আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে ওয়াশিংটন ডিসির ফেডারেল জেলা আদালতে । যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল অনুমোদনে বারবার বাধা দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করা হয়।
.

২০শে নভেম্বর মিশিগান রাজ্যের ডেট্রয়েট শহরের একটি সংগঠন ও তিনজন ভোটার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এই মামলাটি করেছেন।

মামলার নথি থেকে জানা গেছে, মিশিগান ওয়েলফেয়ার রাইটস অর্গানাইজেশন নামের একটি সংগঠন ও তিন ব্যক্তি তাদের মামলায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মিশিগানে নির্বাচনের ফল অনুমোদনে বাধা দেওয়ায় এবং আইনপ্রণেতাদের চাপ দেওয়া থেকে ট্রাম্পকে বিরত থাকতে আদালতকে আদেশ দিতে অনুরোধ করেছেন।
.
এ ছাড়া কৃষ্ণাঙ্গ ভোটারদের বঞ্চিত করা বিশেষ করে ওয়েইন কাউন্টির ভোটারদের বঞ্চিত করার অপচেষ্টা করা হচ্ছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। মামলায় দাবি করা হয়, ট্রাম্প ১৯৬৫ সালের ভোটাধিকার আইনের ১১ (বি) ধারা লঙ্ঘন করেছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মিশিগানের ভোটের ফল অনুমোদনে তাঁর দল, রাজ্য ও স্থানীয় কর্মকর্তাদের চাপ দিচ্ছেন।
মামলার নথি থেকে জানা গেছে, মিশিগান ওয়েলফেয়ার রাইটস অর্গানাইজেশন নামের একটি সংগঠন ও তিন ব্যক্তি তাঁদের মামলায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মিশিগানে নির্বাচনের ফল অনুমোদনে বাধা দেওয়ায় এবং আইনপ্রণেতাদের চাপ দেওয়া থেকে ট্রাম্পকে বিরত থাকতে আদালতকে আদেশ দিতে অনুরোধ করেছেন
মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়, ট্রাম্প ও তাঁর সহযোগীরা মূলত কৃষ্ণাঙ্গ অধ্যুষিত শহরগুলোকে টার্গেট করে ভোটে জালিয়াতির মিথ্যা অভিযোগ বারবার করছেন এবং এসব অভিযোগ আদালত থেকে খারিজ হয়ে যাচ্ছে।

এদিকে ২১শে নভেম্বর মিশিগানের নির্বাচনের ফল অনুমোদনে বাধা দেওয়ার অংশ হিসেবে রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটির চেয়ারম্যান রনা ম্যাকডানিয়েল ও মিশিগান রিপাবলিকান পার্টির চেয়ারম্যান লরা কক্স একটি যৌথ চিঠিতে মিশিগান বোর্ড অব ক্যানভাসারদের একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, মিশিগানের ভোটের ফল অনুমোদন দুই সপ্তাহ বিলম্ব করে যেন রাজ্যের ভোট নিরীক্ষা করা হয়।

মিশিগান সেক্রেটারি অব স্টেটের মতে, ‘বোর্ড ভোটের ফলাফল সরকারিভাবে অনুমোদনের আগে নিরীক্ষা করতে পারবে না।

মামলায় দাবি করা হয়, ট্রাম্প ১৯৬৫ সালের ভোটাধিকার আইনের ১১ (বি) ধারা লঙ্ঘন করেছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মিশিগানের ভোটের ফল অনুমোদনে তাঁর দল, রাজ্য ও স্থানীয় কর্মকর্তাদের চাপ দিচ্ছেন
মিশিগান সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের রিপাবলিকান নেতা মাইক শিরকি ও হাউস স্পিকার লি চ্যাটফিল্ড ২০ নভেম্বর হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

এ বৈঠকে মিশিগানে নির্বাচনের ফলাফল ও এ নিয়ে পরবর্তী কার্যক্রম কী হবে তা আলোচনা হয়েছে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন।
.
মিশিগানের দুজন রিপাবলিকান ও দুজন ডেমোক্র্যাট সমন্বিত বোর্ড অব স্টেট ক্যানভাসারস ২৩২ নভেম্বর কাউন্টির ভোটের ফল যাচাই করে আলোচনার মাধ্যমে পুরো রাজ্যের নির্বাচনী ফল অনুমোদন করার কথা রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

4 + two =