ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি :

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ মিছিল ও মহাসড়ক অবরোধ করেছেন বাস মালিক-শ্রমিকরা।

বুধবার (১ জুলাই) সকাল সোয়া ১০টা থেকে বেলা পৌনে ১১টা পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল-বিশ্বরোড মোড়ে এ কর্মসূচি পালন করেন তারা। অবরোধের ফলে মহসাড়কে প্রায় আধা ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। এ সময় সেখানে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

সকাল সোয়া ১০টার দিকে জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ ও লোকাল বাস পরিচালনা কমিটির সম্পাদক নিয়ামত খানের নেতৃত্বে সরাইল-বিশ্বরোড গোলচত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিল থেকে মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবি জানিয়ে হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়া হয়।

পরে বিক্ষোভকারীরা মহাসড়কে অবরোধ করেন। এর ফলে যান চলাচল বন্ধ হয়ে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে প্রশাসনকে সাতদিনের আল্টিমেটাম দিয়ে অবরোধ প্রত্যাহার করা হলেও বেলা পৌনে ১১টায় মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ বলেন, উচ্চ আদালত থেকে মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু হাইওয়ে পুলিশকে ম্যানেজ করে অবাধে তিন চাকার যানবাহন মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এতে করে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে।

এছাড়া করোনাভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের কথা থাকলেও সিএনজি চালিত অটোরিকশাগুলো সেই নির্দেশনা মানছে না। তাই মহাসড়কের তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধে আমারা সাতদিনের আল্টিমেটাম দিয়েছি। এর মধ্যে আমাদের দাবি না মানা হলে আরও কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

3 + eight =