নিজস্ব প্রতিনিধিঃ 

ঠিক সময়ে, সরকারের সঠিক সিদ্ধান্তের অভাবে জটিল হয়েছে দেশের করোনা পরিস্থিতি বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রবিবার সকালে, রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী হোমিওপ্যাথিক দলের উদ্যোগে ওষুধ বিতরণ কর্মসূচির ভার্চুয়াল উদ্বোধন করে একথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আজকে যে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা তাতে দেখা যাচ্ছে গোটা হেলথ সিস্টেম ভেঙে পড়েছে। আমরা বরাবর বলে এসেছি সরকার স্বাস্থ্য খাতে চরম অবহেলা করার জন্য, তাদের উদাসীনতা জন্য এবং কোভিড-১৯ শুরু হওয়ার পরে সঠিক সিদ্ধান্ত না নেয়ার কারণে আজকে বাংলাদেশের সবচেয়ে করুণ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এখানে কারো কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই এবং সরকারের পক্ষ থেকে এ অধিদফতরে যারা আছেন তারা একেক সময় একেক রকম কথা বলছেন।

বাংলাদেশে চিকিৎসা ব্যবস্থার সিস্টেম একেবারেই ভেঙে পড়েছে উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা একেবারেই লেজেগোবরে অবস্থা হয়ে গেছে। আমারা বরাবরই বলে আসছি সরকার এই স্বাস্থ্যখাতে চরম অবহেলা করার জন্যে, তাদের উদাসীনতার জন্যে এবং করোনা আক্রমণের পর থেকে তারা সঠিক সিদ্ধান্ত না নেয়ার কারণে, ভ্রান্ত নীতির কারণে বাংলাদেশে একটি করুণ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এখানে কারো কোন নিয়ন্ত্রণ নেই। দেশে যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আছেন তারা একেক সময় একেক কথা বলছেন।

তিনি আরও বলেন, আমাদের ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র গতকাল বলেছেন, আর কাল বিলম্ব না করে অনতিবিলম্বে জোন ভিত্তিক ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন। আপনি দেখুন কতোটা সামঞ্জস্যহীনতা হলে, কতোটা নৈরাজ্য সৃষ্টি হলে মেয়রকে এই কথা বলতে হয়। অনেক আগেই বলা হয়েছে, দেশে রেড জোন, ইয়োলো জোড, গ্রীণ জোনে ভাগ করা হবে। ঢাকা শহরের কিছু অঞ্চলকে গ্রীণ জোনে ভাগ করেছেন এবং রেড জোনগুলো কঠিনভাবে লকডাউনের আওতায় নিয়ে আসবেন। তবে রাজধানীর একটি এলাকা ছাড়া আর কোথাও লকডাউন করেছে বলে আমার মনে হয় না। আমার মনে হয়, সরকার জানেনই না তারা এখন কি করবেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দেশের মানুষকে যে গাইড লাইন দেবে সেটাও তারা দিতে পারেননি। গোটা বাংলাদেশে করোনা মোকাবিলা করার জন্য।

87 মন্তব্য

  1. Hi there! This post couldn’t be written much better! Going through this post reminds me of my previous roommate! He always kept preaching about this. I am going to forward this article to him. Pretty sure he will have a good read. Thank you for sharing!

  2. Someone necessarily assist to make severely articles I would state. This is the first time I frequented your web page and thus far? I amazed with the research you made to make this actual post amazing. Excellent task!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে