নিজস্ব প্রতিবেদক :

তবে এই ভাড়া কেবল করোনাকালের জন্য প্রযোজ্য হবে এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পুনর্নির্ধারিত হবে বলে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে

বাস–মিনিবাসের ভাড়া ৮০ শতাংশ নয়, ৬০ শতাংশ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়। রবিবার (৩১ মে) দুপুরে বাস ভাড়া নিয়ে মন্ত্রণালয়ে বৈঠকে হয়। সেখানে ভিডিওকলের মাধ্যমে যুক্ত হন সড়কপরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সেখানেই ৬০ শতাংশ বাস ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত অনুমোদন করেন তিনি।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) শনিবার ঢাকাসহ সারাদেশে বাস–মিনিবাসের ভাড়া ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব তৈরি করে।

সোমবার থেকে ঢাকাসহ সারাদেশে বাস চলাচল শুরু হচ্ছে। প্রতিটি বাস–মিনিবাসের অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে চালানোর সিদ্ধান্ত দিয়েছে বিআরটিএ। এরফলে পরিবহন মালিকেরা লোকসানের কথা উল্লেখ করে শতভাগ ভাড়া বৃদ্ধির দাবি করে। তবে বিআরটিএর ভাড়া নির্ধারণে স্থায়ী ব্যয় বিশ্লেষণ কমিটি ঘণ্টা খানেকের বৈঠকে ৮০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব করে। এরপর এই নিয়ে সমালোচনা শুরু হলে সড়কমন্ত্রী ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি চূড়ান্ত করেন।

সড়ক মন্ত্রণালয়ের চূড়ান্তে সিদ্ধান্তে বলা হয়, দূরপাল্লার পথে এখন ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ১টাকা ৪২ পয়সা। এরসঙ্গে যুক্ত হবে বর্ধিত ৬০ শতাংশ। এছাড়া দূরপাল্লার পথে থাকা সড়ক ও সেতুর টোলও মোট ভাড়ার সঙ্গে যুক্ত হবে।

ঢাকা ও এর আশপাশে মিনিবাসের কিলোমিটার প্রতি ভাড়া হার ১টাকা ৬০ পয়সা। আর বড় বাসের ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ১টাকা ৭০ পয়সা। মিনিবাসে সর্বনিম্ন ভাড়া ৫টাকা ও বড় বাসে ৭টাকা। সোমবার থেকে এরসঙ্গে ৬০ শতাংশ বাড়তি ভাড়া যোগ হবে।

এই ভাড়া কেবল করোনাকালের জন্য প্রযোজ্য হবে এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পুনর্নির্ধারিত হবে বলে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে