নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

একদিকে মহামারি করোনা, অন্যদিকে গণপরিবহন না থাকা। এ দুই ভয়কে ‘জয়’ করে ঢাকা ছেড়েছিলেন অনেকেই। এদের কেউ ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটির শুরুতেই, কেউ আবার ঈদকে সামনে রেখে। সরকারের পক্ষ থেকে, আগামী রোববার (৩১ মে) থেকে সবকিছু ‘সীমিত আকারে’ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত আসায় তারা এখন ঢাকার পথে। যাওয়ার সময়ের সেই দুই ভয়কে মাথায় নিয়েই তারা আবার ফিরছেন রাজধানীতে।

শুক্রবার (২৯ মে) সকাল থেকেই দেশের সবগুলো মহাসড়কে এখন রাজধানীমুখী মানুষের চাপ। ভিড় জমেছে ফেরিঘাটেও।

শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন প্রবেশ পথ যেমন গাবতলী, আব্দুল্লাহপুর, সায়েদাবাদ, মাওয়া ঘাটে দেখা যায় রাজধানীমুখী মানুষের ভিড়। সকাল থেকে যত সময় গড়িয়েছে এ ভিড় ততই বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সরকার সাধারণ ছুটি আর না বাড়ানোর সিদ্ধান্তে ঢাকামুখী মানুষের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে।

গণপরিবহনবাদে সব ধরনের যানবাহনে রাজধানীতে প্রবেশ করছেন ‘রাজধানীর অস্থায়ী’ বাসিন্দারা। পিকআপ ভ্যান, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল, ইজিবাইক, সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে তারা ঢুকছেন ঢাকায়। ব্যক্তিগত গাড়িও চাপ রয়েছে মহাসড়কে।

সাধারণ ছুটির প্রথম দিকে পুলিশের চেকপোস্ট এবং বাধা থাকলেও এখন এর কোনটিই নেই। ফলে যারা ব্যক্তিগত গাড়ি ছাড়া অন্য বাহনে ঢাকায় ফিরছেন সেখানে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। একেকটি প্রাইভেটকারে ৪ জনের জায়গায় ৭ থেকে ৮ জন, মাইক্রোতে দশ জনের বদলে ১২ থেকে ১৪ জনকেও বসতে দেখা গিয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে