নিজস্ব প্রতিবেদক :
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়স্থ চাঁদপুর জেলার শিক্ষার্থীদের সংগঠন ডাকাতিয়া। বিশ্বব্যাপী করোনা সংকটের এই করুণ মূহুর্তে চাদঁপুর জেলার অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার কৃতি সন্তান, ভূমি মন্ত্রনালয়ের সচিব মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী।

ডাকাতিয়ার ৬৫ জন অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের আর্থিক ও সার্বিক সহযোগিতা করে পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। শিক্ষার্থীদের পরিবারের সাথে মোবাইলের মাধ্যমে তাদের পরিবারের খোঁজ খবর নেন। তিনি ডাকাতিয়ার সকল শিক্ষা মূলক কার্যক্রমের সাথে জড়িত।

উল্লেখ্য যে, কিছু দিন আগে ডাকাতিয়া কর্তৃক আয়োজিত চাঁদপুর জেলা ট্যালেন্ট হান্ট প্রতিযোগিতা সফল করার লক্ষ্যে তিনি সকল ধরনের আর্থিক ও সার্বিক সহযোগিতা করেন। তিনি মনে করেন শিক্ষার মাধ্যমে একটি দেশ উন্নয়নের স্বর্ণ শিখরে পৌঁছাতে পারে।

ভূমি সচিব নিজ উদ্যোগে জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়,বুয়েট ও অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে অধ্যয়নরত চাঁদপুর জেলা ও অন্যান্য জেলার ৪শ’ শিক্ষার্থীর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাদের সবাইকে তিনি আর্থিক সহযোগিতা করেছেন।

তিনি তার ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ৩শ’ ৫০ টি পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার হিসেবে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সাবেক ছাত্র হিসেবে অত্র বিভাগের অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এই সংকট মূহুর্তে তিনি চাঁদপুরে ২শ’ ৫০ বেডের সদর হাসপাতালে ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তারদের জন্য ডাক্তার সেপ্টি সেম্ভার, ৫শ’ মাক্স, পি পি ই প্রদান করেন।

এছাড়াও তিনি গোপনে নিজ জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন সামাজিক, মানবিক ও শিক্ষা মূলক কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

তিনি মনে করেন, যে সকল শিক্ষার্থী টিউশনির টাকা দিয়ে তাদের পরিবারের আর্থিক সংকট দূর করতো, এই মুহূর্তে তাদের হেল্প করে পরিবারে আর্থিক সংকট দূর করা এবং ভবিষ্যতে যাতে তারা দেশে গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োজিত হয়ে দেশের এবং জনগণের সেবা করতে পারে সেই প্রত্যাশায় তাদেরকে আর্থিক সহযোগিতার করতেছেন।

ভূমি সচিব মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী বলেন, দেশের এই বিপদের মূহুর্তে আমি এমন শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছি,যারা দেশের ভবিষ্যত কর্ণধার, জাতি গঠনে যাদের ভূমিকা প্রয়োজন, যারা ভবিষ্যতে দেশের গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োজিত হয়ে দেশের সেবা করতে পারবে,মানবিক ও সামাজিক কার্যক্রমের সাথে যুক্ত থাকবে এবং তারা জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ গ্রহণ করে দেশের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখবে।

আমার জানা মতে, এসকল শিক্ষার্থী টিউশনি করে তাদের পরিবারকে সহযোগিতা করতো,তাদের অনেকের পিতা মৃত এবং অসুস্থ জীবন যাপন করছে। তাই আমি চেয়েছি এই বিপদ মূহুর্তে তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়াতে।

ডাকাতিয়ার সভাপতি রাসেল শ্রাবণ বলেন, দেশের এই সংকট মূহুর্তে আমরা ডাকাতিয়া পরিবার আর্থিক অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমি মনে করি ডাকাতিয়ার সকল সদস্য যাতে পরিবারকে নিয়ে কোন বিপদে পড়তে না হয়।আমি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই আমাদের ডাকাতিয়া পরিবারের শুভাকাঙ্ক্ষী ভূমি সচিব মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী স্যারকে।তিনি সবসময় ডাকাতিয়া পরিবারের সকল কার্যক্রমের সাথে যুক্ত থেকে আমাদের সার্বিক সহযোগিতা করে থাকেন।এই বিপদ মূহুর্তে তিনি আমাদের অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের আর্থিক হেল্প করে আবারো প্রমাণ করলেন তিনি একজন প্রকৃত দেশ প্রেমিক ও শিক্ষা অনুরাগী একজন সৎ মানুষ।

ডাকাতিয়ার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের শিমুল বলেন, শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড। আর এই শিক্ষা অর্জন করা শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়াতে পেরে নিজেদের ধন্য মনে করি। আমাদের এই কাজে আর্থিক ও সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য ভূমি সচিব মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী স্যারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি মনে করি মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী স্যার এই বিপদ মূহুর্তে যেভাবে অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে, সেভাবে চাঁদপুরের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ এগিয়ে আসলে আর্থিক সংকটে নিমজ্জিত শিক্ষার্থীরা কিছুটা হলেও বিপদ মুক্ত হবে। তিনি আমাদের সকল কার্যক্রমে নিজ থেকে এগিয়ে আসেন। আপনারা সবাই অবগত আছেন যে, ডাকাতিয়া পরিবার সবসময় শিক্ষার্থীদের কল্যাণে কাজ করে,তেমনি দেশের এই সংকট মূহুর্তে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।আমাদের এই কার্যক্রম চলমান থাকবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে