কোনও দেশে বিকিনি পরা দোষের নয়। আবার কোন দেশে বিকিনি পরে অবাধ বিচরণের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ রয়েছে। এর অন্যতম উদাহরণ হলো মালদ্বীপ। সম্প্রতি বিধিনিষেধ অমান্য করে বিকিনি পরায় এক নারী পর্যটককে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, মালদ্বীপে হলিডে রিসোর্টগুলো ছাড়া আর কোনও দ্বীপে বিকিনি পরে ঘোরার অনুমতি নেই। কঠোরভাবে নিষিদ্ধ।  সেই নিষেধাজ্ঞা ভাঙায় পুলিশ ওই নারীকে গ্রেফতার করেন।

আর এমনি এক বিকিনি পরা নারীকে গ্রেফতারের ভিডিও নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ভিডিও দেখা যাচ্ছে, বিচ-টাওয়েল দিয়ে ওই বিকিনি কন্যার সর্বাঙ্গ ঢেকে দেওয়ার চেষ্টা করছেন তিন পুলিশ অফিসার। তাঁরা ছুটছেন যুবতীর-পিছু। কিন্তু, ওই বিদেশিনি পর্যটক নাগাল ভেঙে ছিটকে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। তোয়ালেতে শরীর খামোখা ঢাকবেন কেন?

ব্রিটিশ অ্যাকসেন্টে ওই যুবতীকে পাল্টা হুঁশিয়ারির সুরে চিৎকার করে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘আপনারা কিন্তু আমাকে যৌন নিগ্রহ করছেন। তারপরও নিরুপায় পুলিশ শেষমেশ ওই বিকিনি পরা নারীকে গ্রেফতার করেছেন।

মালদ্বীপের মাফুসির দ্বীপ থেকে ওই নারীকে গ্রেফতার করা হয়। সেখানে বিকিনি পরার অনুমতি নেই। কারণ, ওই দ্বীপটি নন-রিসোর্ট।

এদিকে, নারী পর্যটককে গ্রেফতারের পর জনসমক্ষে দুঃখ প্রকাশ করেন মলদ্বীপ পুলিশ সার্ভিস কমিশনার মোহম্মদ হামিদ। সেইসঙ্গে ওই ব্রিটিশ তরুণীর সঙ্গে পুলিশের আচরণ যে সমর্থনযোগ্য নয়, তা তিনি স্বীকারও করেন।কার করেন।

https://youtu.be/FGmNZrw8wB8

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে