বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ
ঘড়িতে সন্ধ্যা ছয়টা। বিশ্ববিদ্যালয়ের লেকপাড়ে একদল তরুণ-তরুণীর হলদে শাড়ি-পাঞ্জাবিতে চোখ আটকে যাচ্ছে পথচারীদের। সবাই একটু-আধটু উঁকি দিয়ে দেখছে, কি হয়! ক্যাম্পাসে গায়ে হলুদের আয়োজন যে বশেমুরবিপ্রবি বিশ্ববিদ্যালয়ে এবারই প্রথম। বাঁশের ডালা, কুলা, চালুন ও মাটির সরা, ঘড়া, মটকা দিয়ে বিয়ের বাড়ির আমেজ তৈরির মধ্য দিয়ে বশেমুরবিপ্রবি সমাজবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্স এর শিক্ষার্থী জুয়েল এবং চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আশার গায়ে হলুদ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের লেকপাড়ে কনের ও বরের সহপাঠীদের আয়োজনে আশা ও জুয়েলের গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান শুরু হয়। বন্ধুবান্ধব ছাড়াও বিভাগের সিনিয়র-জুনিয়রদের পাশাপাশি এ সময় বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। জানা যায়, গায়ে হলুদের এ আয়োজন কনের পরিবারের লোকজন কেউ করেননি। পুরো আয়োজনটি করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদেরই ক্যাম্পাসে।
এরকম ঘটনা রীতিমত সাড়া ফেলেছে পুরো বিশ্ববিদ্যালয়ে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বাধিক চর্চিত খবর এখন এটি। অনেকেই ইচ্ছা প্রকাশ করে বলছেন, তিনিও পরিবারের সাড়া পেলে গায়ে হলুদের আয়োজন করবেন বিশ্ববিদ্যালয়েই।
আশার বন্ধু রাফি জানান, ‘বশেমুরবিপ্রবি ক্যাম্পাসে এই প্রথম কারও গায়ে হলুদের আয়োজন হচ্ছে। আমরা আনন্দিত। বান্ধবীর জন্য অনেক অনেক শুভকামনা।’ উল্লেখ্য আশা ও জুয়েলের বাড়ি খুলনায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে