মোঃ ইমরুল হাসান,চৌহালী উপজেলা প্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোছাঃ শামীম শারমিন’এর হাজিরা খাতায় সাক্ষর করেন তার স্বামী মোঃ আনিছুর রহমান মামুন। আট বছর আগে বগুড়া থেকে বদলী হয়ে আসেন শামীমা শারমিন, আসার কিছুদিন ঠিকঠাকমতো ডিউটি করলেও, তারকিছুদিন পর থেকে তাকে আর হাজিরা খাতায় সই হয়নি, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেের। সবই তার স্বামীর কারিশমা। তার সব স্বাক্ষরও করেন তার স্বামী আনিছুর রহমান মামুন।
ডাঃ শামীমা শারমিন এর পোষ্টিং ঘোড়জান সাব সেন্টারে হলেও তিনি ওখানে যান না কোনদিন।সরকারী কোন নিয়ম তিনি মানেন না, তার ইচ্ছানুসারে কাজ করেন, তার প্রথম সন্তান হওয়ার সময় মাত্রীকালীন ছুটি নিলেও, দ্বিতীয় সন্তানের সময় নেননি, কোন মাত্তীকালীন ছুটি। এখনো তিনি থাকেন টাংগাইল শহরে।
তিনি নেননি ছুটি, তারপরও হাজিরা খাতায় ৪ দিনের হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করতে ভুলে গেছেন তার স্বামী। তার স্বামীর ও তিনবার বদলি হলেও বিপুল পরিমাণ টাকা খরচ করে রয়ে যান, এই চৌহালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের স্বাক্ষর করা লিখিত অভিযোগ সিরাজগঞ্জে সিভিল সার্জন বরাবর দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে