মোঃ ইমরুল হাসান শিকদার,চৌহালী উপজেলা প্রতিনিধিঃ
সারা দেশের মধ্যে ১৬ টি উপজেলাকে বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রী পরিষদ, (দীপ,হাওর,চর অঞ্চল) হিসাবে ঘোষণা করেন।আর সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলা চর অঞ্চল হিসাবে পরিচিত লাভ করেন। শুধু তাই সকল সরকারী কর্মকর্তা, কর্মচারীদের চর অঞ্চল হিসাবে মূল বেতনের ২০% টাকা অতিরিক্ত দেওয়া হয়।
কিন্তু চৌহালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোছাঃ শামীমা শারমিন ডিউটি না করে বেতন নেয় সারা বছর। শুধু তাই না ফিংগারপিন্টের নিয়ম চালু থাকলেও কোনদিনও দেন না তিনি ফিংগারপিন্ট। তার ফিংগারপিন্ট দেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন মালি।
এই উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার এই সুবিধা পান, তার স্বামী উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোঃ আনিছুর রহমান মামুন এর জন্য। তার স্বামীও ডিউটি করেন না ঠিক মতো, তার ডিউটি মূলত আইএমসিতে, কিন্তু তার ডিউটি সকাল ৯টার থাকলেও তিনি আসেন ১১টায়।
কারন ওনি চৌহালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সকল নেতার প্রিয় ব্যক্তি, কারন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডিউটি না করলেও, নেতাদের ডিউটি টা ঠিক মতোই করেন। তাই কেউ কিছুই বলেন না। এই বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তার ডাঃ আব্দুল কাদের এর সাথে যোগাযোগ করা হলে,তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে