নোটিশ :
সংবাদ কর্মী আবশ‌্যক
সংবাদ শিরোনাম
আজ ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস রাজধানীর আগারগাঁওয়ে প্রভাত সমাজকল্যাণ সংস্থার মাস্ক বিতরণ বানিজ্যমন্ত্রীর নির্দেশে তিতুমীরের সুবর্ণজয়ন্তীর রেজিষ্ট্রেশনের সময় বৃদ্ধি ফেনীতে সত্য মিথ্যা যাচাই আগে ইন্টারনেট শেয়ার পরে” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর সীমান্তে দুই বাংলার মিলন মেলা ৪ বছর যাবত হাজিরা খাতায় মেডিকেল অফিসার শারমিন’এর সাক্ষর করেন তার স্বামী মতিঝিলের মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব মাঠে ক্র্যাব ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত আগামী ২০ ও ২১ ডিসেম্বর আ’লীগের জাতীয় সম্মেলন সাংবাদিকদের আস্থা ও ঐক্যের প্ল্যাটফর্ম ঢাকাস্থ চাঁদপুর জেলা সাংবাদিক ফোরাম:সাইফুল আলম চিঠিতে সু চিকে মার্কিন সিনেটরদের নিন্দা
কয়লাখনি দুর্নীতি: সাবেক এমডিসহ ২৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কয়লাখনি দুর্নীতি: সাবেক এমডিসহ ২৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে ২৪৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের সাবেক সাত ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ (এমডি) ২৩ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।  

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) দিনাজপুরের সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক আজিজ আহমেদ ভূঁইয়া দুদকের করা মামলার অভিযোগপত্রের (চার্জশিট) ভিত্তিতে এই অদেশ দেন।

গত ২৩ জুলাই তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক মোঃ সামসুল আলমের পক্ষে দুদক দিনাজপুর সমন্বিত কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান এই চার্জশিট দাখিল করেন।

চার্জশিটে বলা হয়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ২০০৬ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৮ সালের ১৯ জুলাই পর্যন্ত (মেয়াদে) ঘাটতিকৃত ১ লাখ ৪৩ হাজার ৭২৭.৯৯ মেট্রিক টন কয়লা আত্মসাতে জড়িত। যার বাজার মূল্য ২৪৩ কোটি ২৮ লাখ ৮২ হাজার ৫০১ টাকা। আসামিরা দণ্ডবিধির ৪০৯/১০৯ এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন বলে তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে।

যাদের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে তারা হলেন- বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ মাহবুবুর রহমান, মোঃ আবদুল আজিজ খান, প্রকৌশলী খুরশীদুল হাসান, প্রকৌশলী কামরুজ্জামান, মোঃ আমিনুজ্জামান, প্রকৌশলী এসএম নুরুল আওরঙ্গজেব ও প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমেদ।

মামলায় অপর আসামিরা হলেন- সাবেক জিএম (প্রশাসন) মোঃ শরিফুল আলম, মো. আবুল কাসেম প্রধানী, আবু তাহের মোঃ নুর-উজ-জামান চৌধুরী (মাইন অপারেশন বিভাগ), নিরাপত্তা বিভাগের ম্যানেজার মাসুদুর রহমান হাওলাদার, মোঃ আরিফুর রহমান (ম্যানেজার, মেইন্টেন্যান্স অ্যান্ড অপারেশন), নিরাপত্তা বিভাগের ম্যানেজার সৈয়দ ইমাম হাসান, কোল হ্যান্ডলিং ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ডিজিএম মুহাম্মদ খলিলুর রহমান, মেইন্টেন্যান্স অ্যান্ড অপারেশন বিভাগের ডিজিএম মো. মোর্শেদুজ্জামান, প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ডিজিএম মোঃ হাবিবুর রহমান, মাইন ডেভেলপমেন্ট বিভাগের ডিজিএম মোঃ জাহেদুর রহমান, ভেন্টিলেশন ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক ডিজিএম সত্যেন্দ্র নাথ বর্মণ ও মো. মনিরুজ্জামান, কোল হ্যান্ডলিং ম্যানেজমেন্টের ম্যানেজার মোঃ শোয়েবুর রহমান, স্টোর ডিপার্টমেন্টের ডিজিএম একেএম খালেদুল ইসলাম, প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্টের ম্যানেজার অশোক কুমার হালদার ও মাইন প্ল্যানিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের ডিজিএম মোঃ জোবায়ের আলী।

উল্লেখ্য, বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে কয়লা উধাও হয়ে যাওয়ার ঘটনায় ২০১৮ সালের ২৪ জুলাই বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির পক্ষে ম্যানেজার (প্রশাসন) মোহাম্মদ আনিছুর রহমান বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে পার্বতীপুর মডেল থানায় মামলা করেছিলেন।

পার্বতীপুর মডেল থানার মামলা নয়-৩০, তাং-২৪/০৭/২০১৮ সালে। মামলায় অভিযোগ করা হয়, ২০০৫ সালের ১০ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ১৯ জুলাই পর্যন্ত ১ লাখ ৪৪ হাজার ৬৪৪ টন কয়লা উধাও হয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য ২৩০ কোটি টাকা। ওই মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় দুদককে। দুদকের উপ-পরিচালক মোঃ সামসুল আলম এই তদন্ত শেষে চার্জশিট তৈরি করেন। চার্জশিটে এজাহারভুক্ত ১৯ জনের মধ্যে ১৪ জনকে আসামি করা হয়। এছাড়া তদন্তে নতুন করে ৭ জন সাবেক এমডিসহ ৯ জনের নাম বেরিয়ে আসে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018   bdsomachar24.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET