বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বিাচন ঘিরে এখন মুখর চলচ্চিত্রের আতুর ঘর হিসেবে পরিচিত এফডিসি প্রাঙ্গণ। নির্বাচন ঘনিয়ে আসায় এখন তারকাদের বেশ জমজমাট উপস্থিতি এফডিসিতে। প্রতিদিনই দুপুরের পর থেকেই সমিতির অফিসে দেখা যাচ্ছে নবীন–প্রবীণ শিল্পীদের সরব উপস্থিতি।

নির্বাচনের ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে চলচ্চিত্র পাড়ায় জোয়ার ভাসছে নির্বাচনের। তবে এদিকে আজ এক সভায় নির্বাচনের সময় এক সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশিন ইলিয়াস কাঞ্চন।
এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করবেন জ্যেষ্ঠ নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। তিন সদস্যের আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রযোজক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম খান। বাকি দুজন সদস্য হলেন পরিচালক সোহানুর রহমান ও রশিদুল আমিন।
তবে বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) তফসিল ঘোষণা দিয়ে শুরু হয়ে এবারের ২০১৯-২১ এর দ্বি-বার্ষিকী নির্বাচন। পরের দিন শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) খসড়া ভোটার তালিকায় মোট ৪৪০ সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। এর বাহিরে যারা বাদ পড়েছেন তাদের নাম তালিকা ওঠার জন্য আজ রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করা হয়েছিল।
তবে নির্বাচন পিছিয়ে যাওয়ার কারণে এই সময় আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন বিদায়ি কমিটির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান। তিনি বলেন, শিল্পীদের তালিকা নিয়ে অনেকের অনেক মন্তব্য থাকতে পারে। আমরা আমাদের চলচ্চিত্রের শিল্পীদের ভোটার তালিকায় নাম রাখছি। তারপরও সবার সিদ্ধান্তে আমরা বিষয়টি ওপেন রেখেছি। আশা করছি এই সমস্যাটা দ্রুতই সমাধান হবে।
তফসিল অনুযায়ী নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক সমিতির স্থায়ী সদস্যরা আগামীকাল ৩০ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টার মধ্যে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।  আগামী ২ অক্টোবর দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৫টার মধ্যে নির্বাচন কমিশনারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া যাবে। ৩ অক্টোবর বিকেল ৫টায় প্রার্থীদের খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হবে। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৫ অক্টোবর। ওই দিনই চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশিত হবে।

এখন পর্যন্ত এবারের নির্বাচনে চমক হিসেবে আছেন সভাপতি মৌসুমি। অন্যদিকে চমকের আভাস দিচ্ছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। শিল্পী সমিতির ইতিহাসে তিনিই প্রথম নারী সভাপতি পদপ্রার্থী হিসেবে লড়তে যাচ্ছেন। তার সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক পদে লড়তে যাচ্ছেন।
জানা গেছে মৌসুমি-তায়েব প্যানেলে থাকবেন সহ সভাপতি পদে চিত্রনায়ক রিয়াজ ও ফেরদৌস থাকবেন। এই প্যানেল থেকে আরও নাম শুনা যাচ্ছে চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা, পপি, নিপুণ, নিরবের মতো তারকারা শিল্পীরা প্রার্থী হতে পারেন। তবে এ বিষয়ে চূড়ান্তভাবে জানা যাবে আগামী  (১ অক্টোবর) মঙ্গলবার। এদিন মনোনয়ন ফর্ম নিবেন তারকারা।
এদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হবেন বলে জানিয়েছেন খল অভিনেতা সিবা শানু। তবে সভাপতি কে হবেন তা নিয়ে ধুয়াশা হওয়ার কারণে তার সাধারণ সম্পাদক পদটিও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।
তবে শুনা যাচ্ছে এবারের নির্বাচনে দুইটি প্যানেল চূড়ান্তভাবে নাম প্রকাশ করলেও আরও একটি প্যানেল আসতে পারে বলে আভাস মিলছে। অন্যদিকে সতন্ত্রপদে সভাপতি পদে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছিলেন চিত্রনায়ক রুবেল। তার বিষয়টিও এখন পর্যন্ত ধোঁয়াশায় রয়েছে। তিনিও এ বিষয়ে মুখ খুলেননি।
উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৭ সালের ৫ মে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক মেয়াদে (২০১৭-১৯) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। নির্বাচনের ৬ দিন পর ১২ মে বিকেল ৫টায় এফডিসির জহির রায়হান কালার ল্যাবে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে