নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় ও আলোচিত সঙ্গীত শিল্পী ডলি সায়ন্তনী। বাংলাদেশ টেলিভিশনসহ বিভিন্ন মাধ্যমে হরেক রকম অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছেন তিনি। মিডিয়া জার্নালিস্ট ফোরাম অব বাংলাদেশ (মিজাফ) এর জুরি বোর্ড জনপ্রিয় উপস্থাপক হিসেবে মনোনিত করেছেন সংগীতে ডলি সায়ন্তনীকে। ছোট্ট বেলা থেকেই মিডিয়ার প্রতি তাঁর প্রবল আগ্রহ থেকেই এই পথচলা ।
বাংলাদেশ টেলিভিশন ঘোষক হিসেবে তালিকাভূক্ত হন ২০০৯ ইং এবং বাংলাদেশ বেতারে তালিকাভূক্ত ২০১৩ ইং সালে। যদিও বাংলাদেশ বেতারে নাট্যশিল্পী হিসেবে তালিকাভূক্ত হয়েছেন ২০০৪ ইং এবং বাংলাদেশ বেতারে ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান দর্পণে তালিকাভূক্ত হন ২০০৪ ইং সালে। তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী থেকে অভিনয়ে স্বল্পমেয়াদী নাট্যকর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন এবং ২০০৩ ইং সালে সালেক খান এর প্রশিক্ষণে। প্রাচ্যনাট গ্রুপেও নাট্যকর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। পাবনা জেলাতে সাকলায়েন এর জন্ম।
তিনি বিভিন্ন বেশ কয়েকটি দেশ যেমন – কাতার, মালেশিয়া, থাইল্যান্ড ও ভারত সফর করছেন। কবিতা, গান ও ভ্রমণ কাহিনী লিখতে ভালবাসেন।সাবলীল ভংগিতে ছন্দে ছন্দে ছোট্ট ছোট্ট কথামালায় চমৎকার স্টেজ উপস্থাপনায় সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি। ছন্দ কথা যেন মুখে লেগেই থাকে। রং পছন্দের তালিকায় রয়েছে সাদা-কালো। ডলি সায়ন্তনী বি. কম. (অর্নাস) এবং এম. কম (ব্যবস্থাপনা) শেষে মার্কেটিং এ এমবিএ করে একটি রিয়েলস্টেট কোম্পানীতে হেড অব মার্কেটিং হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।
ভবিষ্যতে সফলভাবে পথ চলতে চান মিডিয়াতে।
এতো স্বল্প সময়ে কিভাবে এত অর্জন করছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, “সময়কে ব্যবহার করছি এবং কাজকে প্রাধান্য দিয়ে মনযোগ সহকারে চেষ্টা করি, পরিশ্রম বলে মনে হয় না”। সেচ্ছাসেবামূলক সংস্থা জনস্বার্থ ফাউন্ডেশন ও জয়যাত্রা ফাউন্ডেশন এর মাধ্যমে সাধারণ মানুষের মাঝে বিভিন্ন বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করতে কাজ করেন।
মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান, এমপি মহোদয় মিজাফ তারকা এ্যাওয়ার্ড ২০১৮ ইং প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে আরো অনেক গুণীজনসহ জনপ্রিয় শিল্পী এসডি রুবেল, শুভ্রদেব, চিত্রনায়িকা অঞ্জনা, উপস্থিত ছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে