মেহেরপুর প্রতিনিধিঃ
মেহেরপুরে হিমসাগর জাতের আম ২৫ মে থেকে এবং ল্যাংড়া জাতের আম বাজারজাত শুরু হবে ৩১ মে থেকে। রবিবার বিকালে মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন, কৃষি অধিপ্তর ও আম চাষীদের নিয়ে এক মতবিনিময় সভা থেকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া ১৪মে থেকে দেশি আর্টি ও বোম্বাই জাতের আম বাজার জাত শুরু হবে।
একই সাথে আমে ক্ষতিকর কার্বাইড ও ফরমালিন না মেশানের জন্য আম চাষী ও ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান জানান জেলা প্রশাসক। আম চাষী ও ব্যবসায়ীরা মেহেরপুরের আমে ক্ষতিকর কেমিক্যাল মেশানো হয়না বলে আশ্বস্ত করেন।
জেলা প্রশাসক মো: আতাউল গনির সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম রসুল, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. আখতারুজ্জামান, আম চাষী আলাউদ্দিন, শাহিনুর রহমান প্রমুখ ।
জেলা প্রশাসক মো: আতাউল গনি বলেন, আম উৎপাদনে প্রচারণার দিক দিয়ে সাতক্ষিরা ও রাজশাহী অনেক এগিয়ে আছে। কিন্তু মেহেরপুরও আম উৎপাদনের অনেক এগিয়ে আছে। এখানে আমের পুষ্টিমান ও স্বাদ অনেক ভাল। তাই আমাদের সকলে মিলে মেহেরপুরে হিমসাগর আম নিয়ে ব্যাপক প্রচারণা চালাতে হবে।
তিনি আরো বলেন, আম বাজারজাত করণের যে সময়সীমা নির্ধারণ করা হলো। তার দুএকদিন আগে পরে আম পুষ্ট হলে বাজারজাত করতে সমস্যা নাই। তবে জন স্বাস্থ্যে ক্ষতি হয় এমন কেমিক্যাল মিশ্রণ করবেন না। এমনটি হলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে উপপরিচালক ড. আখতারুজ্জামান বলেন, মেহেরপুরে আমে কোন ধরণের কার্বাইড বা ফরমালিক মিশ্রন করা হয় না। তবে আম পাকানোর জন্য যে কেমিক্যাল স্প্রে করা হয় তাতে ক্ষতির সম্ভাবনা নাই।
মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ইবাদত হোসেন , সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদুল আলমসহ গণমাধ্যমকর্মী ও আমচাষী ও ব্যবসায়ীরা অংশ গ্রহণ করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে