মঙ্গলবার (৭ মে) ভোররাতে সেহরি খাওয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে এক মাসের সিয়াম সাধনা। এই মাসকে যথাযথভাবে পালনে নানা আয়োজন করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। প্রতিবারের মতো কারাগারেও রমজান ঘিরে বন্দীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা থাকছে সরকারের পক্ষ থেকে।
ইফতার ও সেহরির পাশাপাশি থাকছে তারাবি নামাজের ব্যবস্থাও। কেবল ইফতারেই মাথাপিছু বরাদ্দ ১৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩০ টাকা করা হয়েছে। এই ৩০ টাকার আয়োজনে থাকবে খেজুর, কলা, জিলাপি, শরবত এবং সবার আগ্রহের আইটেম মুড়ি, ছোলা ও পিঁয়াজু। সেহরির সময় থাকবে ডাল, ভাত, সবজি এবং বিশেষ আয়োজন হিসেবে কোনো দিন মাছ, কোনো দিন মাংস। যারা রোজা থাকবেন না, তাদের জন্য নিয়মিতই থাকবে খাবার।
এ বিষয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) জেলার মাহবুবুল ইসলাম জানান, কারাগারে মোট ১১ হাজার বন্দী আছে। সরকার এবার জনপ্রতি বন্দীদের জন্য ইফতারে ৩০ টাকা ধার্য করেছে। যা গতবার ছিল ১৫ টাকা।
তিনি জানান, কারাগারের ভেতরে আসামিদের থাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে নামাজ আদায় করার ব্যবস্থা আছে। বন্দিরা সেখানেই পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করে থাকেন। বন্দীদের থাকার ওয়ার্ডগুলোতেই তারা তারাবি নামাজ আদায় করবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে