নোটিশ :
সংবাদ কর্মী আবশ‌্যক
সংবাদ শিরোনাম
গণমাধ্যম দুর্বল হয়ে গেলে, গণতন্ত্র দুর্বল হয়ে পড়বে : চাঁদপুরে সাংবাদিক সমাবেশে জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম স্বরনকালের ভয়াবহ বন্যার কবলে গাইবান্ধাবাসী চাঁদপুরে মালববাহী জাহাজ ডুবি ॥ ১০ জন উদ্ধার জবি ছাত্রলীগের সম্মেলন সামনে রেখে আবারও সক্রিয় বিতর্কিতরা স্বাক্ষর জাল করে বিয়ে, কথিত স্বামীর বিরুদ্ধে ছাত্রীর মামলা গোবিন্দগঞ্জে অপহৃত শিশু সহ দুই অপহরণকারী জনতার হাতে আটক মেহেরপুরে মৎস্য সপ্তাহ-২০১৯ উপলক্ষে র‌্যালি ও মাছের পোনা অবমুক্তকরণ রেললাইনের পাশের সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সুপারিশ ‘২৫-৩১ জুলাই সারাদেশে মশক নিধন সপ্তাহ পালন করা হবে’ রাণীশংকৈলে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুনার্মেন্টের পুরস্কার বিতরণ
আওয়ামীলীগ ও বিএনপির ইশতেহার নিয়ে কী ভাবছে কোটাসংস্কার আন্দোলনকারীরা

আওয়ামীলীগ ও বিএনপির ইশতেহার নিয়ে কী ভাবছে কোটাসংস্কার আন্দোলনকারীরা

আওয়ামীলীগ ও বিএনপির ইশতেহার নিয়ে কী ভাবছে কোটাসংস্কার আন্দোলনকারীরা

বিডিসমাচার ডেস্কঃ

মঙ্গলবারে ১৮ ই ডিসেম্বর আওয়ামীলীগ ও বিএনপি প্রধান দুই রাজনৈতিক দল তাদের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে। ইশতেহার এর বিষয়টি কীভাবে দেখছেন জানতে চাইলে “সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ” এর অন্যতম যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর বলেন দুটি দলই খুব ভালো কিছু প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তবে আমি মনে বিএনপির ইশতেহারে ক্ষমতাকে বিকেন্দ্রীকরণ, ভারসাম্য ও শান্তিপূর্ণ রাজনীতি এবং সুশাসন নিয়ে খুবই দারুণ এবং চমকপ্রদ কিছু বিষয় উঠে এসেছে যা আওয়ামীলীগের ইশতেহারেও থাকা উচিত ছিল,যদিও সেটি সেখানে নেই।অনন্য বিষয়গুলো নিয়েও যদি কিছু বলেন জানতে চাইলে নুর বলেনন, ‌”ব্লু-ইকোনমি, তরুণ যুব সমাজকে দক্ষ জনশক্তিকে রূপান্তরিত করা এবং কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা, শিক্ষার সকল স্তরেমান বৃদ্ধিসহ বেশ কিছু ভালো ও চমৎকার প্রস্তাবনা আওয়ামীলীগের ইশতেহারে রয়েছে।
আরও কিছু বিষয় তারা ইশতেহারে দিয়েছে যেমন; দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ,গণতন্ত্র ও আইনের শাসন সুদৃঢ় করা, দক্ষ ও সেবামুখী জনপ্রশাসন এবং জনবান্ধব আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা। এই দাবিগুলোর প্রতিটি দাবিই আওয়ামী লীগ চাইলে তাদের দুই মেয়াদের যে কোন এক মেয়াদেও পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বাস্তবায়ন করতে পারতো, কিন্তু করেনি। সুতরাং আগামীতে ক্ষমতায় এলে কতটুকু করবে তা নিয়ে সন্দেহ-সংশয় রয়েছে।তাছাড়া ছাত্রসংসদ নির্বাচনের মতো একটি গুরুত্বপূর্ন বিষয়ে তাদের ইশতেহারে না দেখে হতাশ হয়েছি”।
বিএনপি এবং ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার নিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে চাকরিতে অবশ্যই একটা বয়সসীমা থাকা দরকার।তাই উন্মুক্ত বয়সের বিষয়টি ছাড়া রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার মধ্যে ভারসাম্য, দুই বারের বেশি প্রধানমন্ত্রী না করা, বিরোধী দল থেকে ডেপুটি স্পিকার নিয়োগ দেওয়া হবে, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে যুক্ত করে সংসদে উচ্চকক্ষ গঠন, গণভোট ব্যবস্থা পূনঃপ্রবর্তন,ডাকসুসহ সকল ছাত্রসংসদ নির্বাচন চালু করা, স্বল্প সুদে শিক্ষা ঋণ চালু করা, মাদ্রাসা শিক্ষাকে আরও আধুনিক ও যুগোপযোগী করা, ভ্যাট বিরোধী, কোটা সংস্কার আন্দোলনে ক্ষতিগ্রস্থ ছাত্রছাত্রীদের সকল মামলা প্রত্যাহার ও ক্ষতিপূরণ দেয়া ,শিক্ষিত বেকারদের বেকার ভাতা প্রদানসহ বেশ কিছু প্রস্তাবনা রয়েছে যা অবশ্যই সমর্থনযোগ্য ও প্রশংসনীয়”।
নির্বাচন কেমন হবে বলে মনে করেন জানতে চাইলে নুর বলেন, যদিও নির্বাচন নিয়ে বর্তমানে একটি সংঘাত-সহিংস পরিস্থিতি বিরাজ করছে,তবে আমি মনে করি বর্তমান পরিস্থিতি যাই হোক। ৩০ ডিসেম্বর ভোটবিপ্লবের মাধ্যমে জণগন,পেশী শক্তি ও সন্ত্রাস নির্ভর অপরাজনীতি রুখে দাঁড়াবে,নতুন এক সম্ভাবনাময়ী ও উদ্যমী বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018   bdsomachar24.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET