হামাস প্রধানের সঙ্গে নেলসন ম্যান্ডেলার নাতির সাক্ষাৎ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১১:১৬:৫৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৪
  • / ২১ Time View

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার নিরপরাধ ফিলিস্তিনি জনগণের বিরুদ্ধে ইসরাইলের ভয়াবহ গণহত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের পলিটব্যুরো প্রধান ইসমাইল হানিয়া। তিনি এই গণহত্যার মূল হোতা ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু ও তার সন্ত্রাসী মন্ত্রিসভার সদস্যদের বিচার করার দাবি জানিয়েছেন।

তুরস্কের বন্দরনগরী ইস্তাম্বুলে দক্ষিণ আফ্রিকার অবিসংবাদিত প্রয়াত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার নাতি এনকোসি জুয়েলিভেলিলে ম্যান্ডেলার সঙ্গে এক বৈঠকে এ দাবি জানান হানিয়া।

গাজা পরিস্থিতির ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সমাজের দায়িত্ব রয়েছে- উল্লেখ করে হামাস নেতা বলেন, যদি ন্যায়বিচার বাস্তবায়ন করতে হয় তাহলে নেতানিয়াহু ও তার সন্ত্রাসী মন্ত্রিসভার সদস্যদের গ্রেফতার করে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে হবে।

তিনি আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত বা আইসিজে’তে ইসরাইলি গণহত্যার বিরুদ্ধে মামলা করায় দক্ষিণ আফ্রিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। হানিয়া দক্ষিণ আফ্রিকার আজকের এই অবস্থানের জন্য নেলসন ম্যান্ডেলার সাহসী ভূমিকার কথা স্মরণ করে বলেন, বর্ণবাদবিরোধী এই নেতা সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়ে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার পক্ষে আওয়াজ তুলেছিলেন।

বৈঠকে জুয়েলিভেলিলে ম্যান্ডেলা গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি হামলার তীব্র নিন্দা জানান এবং দখলদার সেনাদের হামলায় হানিয়ার তিন ছেলে ও নাতি-নাতনীদের নিহতের ঘটনায় শোক ও সমবেদনা জানান। ম্যান্ডেলা বলেন, জেরুজালেম আল-কুদসকে রাজধানী করে একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হওয়া পর্যন্ত ফিলিস্তিনি জনগণের স্বাধীকার আন্দোলনের প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সমর্থন দিয়ে যাবে। পার্সটুডে

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

হামাস প্রধানের সঙ্গে নেলসন ম্যান্ডেলার নাতির সাক্ষাৎ

Update Time : ১১:১৬:৫৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৪

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার নিরপরাধ ফিলিস্তিনি জনগণের বিরুদ্ধে ইসরাইলের ভয়াবহ গণহত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের পলিটব্যুরো প্রধান ইসমাইল হানিয়া। তিনি এই গণহত্যার মূল হোতা ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু ও তার সন্ত্রাসী মন্ত্রিসভার সদস্যদের বিচার করার দাবি জানিয়েছেন।

তুরস্কের বন্দরনগরী ইস্তাম্বুলে দক্ষিণ আফ্রিকার অবিসংবাদিত প্রয়াত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার নাতি এনকোসি জুয়েলিভেলিলে ম্যান্ডেলার সঙ্গে এক বৈঠকে এ দাবি জানান হানিয়া।

গাজা পরিস্থিতির ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সমাজের দায়িত্ব রয়েছে- উল্লেখ করে হামাস নেতা বলেন, যদি ন্যায়বিচার বাস্তবায়ন করতে হয় তাহলে নেতানিয়াহু ও তার সন্ত্রাসী মন্ত্রিসভার সদস্যদের গ্রেফতার করে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে হবে।

তিনি আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত বা আইসিজে’তে ইসরাইলি গণহত্যার বিরুদ্ধে মামলা করায় দক্ষিণ আফ্রিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। হানিয়া দক্ষিণ আফ্রিকার আজকের এই অবস্থানের জন্য নেলসন ম্যান্ডেলার সাহসী ভূমিকার কথা স্মরণ করে বলেন, বর্ণবাদবিরোধী এই নেতা সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়ে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার পক্ষে আওয়াজ তুলেছিলেন।

বৈঠকে জুয়েলিভেলিলে ম্যান্ডেলা গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি হামলার তীব্র নিন্দা জানান এবং দখলদার সেনাদের হামলায় হানিয়ার তিন ছেলে ও নাতি-নাতনীদের নিহতের ঘটনায় শোক ও সমবেদনা জানান। ম্যান্ডেলা বলেন, জেরুজালেম আল-কুদসকে রাজধানী করে একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হওয়া পর্যন্ত ফিলিস্তিনি জনগণের স্বাধীকার আন্দোলনের প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সমর্থন দিয়ে যাবে। পার্সটুডে