সৌদিতে আগুনে নিহত বারেকের বাড়ি নওগাঁয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৫:৫৪:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুলাই ২০২৩
  • / ১৩৪ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক

সৌদি আরবের একটি ফার্নিচারের কারখানায় আগুনে পুড়ে সাত বাংলাদেশি প্রবাসী শ্রমিকসহ ৯ জন নিহত হয়েছেন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (১৪ জুলাই) সন্ধ্যায় রিয়াদ থেকে প্রায় ৩৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সৌদি আরবের দাম্মামের হুফুপ শহরের সানাইয়ারআল মনসুরা শিল্প এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

তাদের মধ্যে বারেক সরদার (৪৫) নামে একজনের পরিচয় শনাক্ত করা গেছে। তার বাড়ি নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার উদয়পুর মণ্ডল পাড়া গ্রামের। তিনি ওই গ্রামের মৃত রহমান সরদারের ছেলে।

রিয়াদের বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে প্রাথমিকভাবে আরও যাদের শনাক্ত করা হয়েছে তারা হলেন- আরিফ মো. সাহাদাত, মো. শাকিল প্রামাণিক, সাইফুল ইসলাম, রুমান প্রামাণিক, মো. ফিরুজ সরদার আলী ও মো. রব হোসাইন। তাদের মধ্যে তিন জন নাটোরের এবং একজন রাজশাহীর বাসিন্দা।

নিহত বারেক সরদারের বড় ভাই শাহাদাত হোসেন জানান, সৌদি আরবে আমাদের এক ভাই এবং ভাতিজা রয়েছে। তারাই বারেকের মৃত্যুর ঘটনা আমাকে জানিয়েছেন।

বারেক ফার্নিচারের শ্রমিক হিসেবে ২০০৬ সালে সৌদি আরবে যান। এরপর সর্বশেষ ২০১০ সালে বাড়িতে এসেছিলেন। এরপর কয়েক মাস থেকে আবারও যান সৌদি আরবে। দুর্ঘনার আগ পর্যন্ত তিনি ওই কারখানায় কাজ করছিলেন।

শাহাদাত হোসেনে আরও জানান, ওই পরিবারের বারেক ছিলেন একমাত্র উপার্জনের ব্যক্তি। এভাবে তার চলে যাওয়া কিছুতেই মানতে পারছিনা। বড় মেয়েটার বিয়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে বাড়িতে এক মেয়ে ও স্ত্রী রয়েছে।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ তারেকুর রহমান সরকার জানান, বিষয়টি বিভিন্ন মাধ্যমে শুনতে পাচ্ছি। এবিষয়ে বিস্তারিত জানতে আমরা খোঁজ খবর রাখছি।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

সৌদিতে আগুনে নিহত বারেকের বাড়ি নওগাঁয়

Update Time : ০৫:৫৪:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুলাই ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

সৌদি আরবের একটি ফার্নিচারের কারখানায় আগুনে পুড়ে সাত বাংলাদেশি প্রবাসী শ্রমিকসহ ৯ জন নিহত হয়েছেন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (১৪ জুলাই) সন্ধ্যায় রিয়াদ থেকে প্রায় ৩৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সৌদি আরবের দাম্মামের হুফুপ শহরের সানাইয়ারআল মনসুরা শিল্প এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

তাদের মধ্যে বারেক সরদার (৪৫) নামে একজনের পরিচয় শনাক্ত করা গেছে। তার বাড়ি নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার উদয়পুর মণ্ডল পাড়া গ্রামের। তিনি ওই গ্রামের মৃত রহমান সরদারের ছেলে।

রিয়াদের বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে প্রাথমিকভাবে আরও যাদের শনাক্ত করা হয়েছে তারা হলেন- আরিফ মো. সাহাদাত, মো. শাকিল প্রামাণিক, সাইফুল ইসলাম, রুমান প্রামাণিক, মো. ফিরুজ সরদার আলী ও মো. রব হোসাইন। তাদের মধ্যে তিন জন নাটোরের এবং একজন রাজশাহীর বাসিন্দা।

নিহত বারেক সরদারের বড় ভাই শাহাদাত হোসেন জানান, সৌদি আরবে আমাদের এক ভাই এবং ভাতিজা রয়েছে। তারাই বারেকের মৃত্যুর ঘটনা আমাকে জানিয়েছেন।

বারেক ফার্নিচারের শ্রমিক হিসেবে ২০০৬ সালে সৌদি আরবে যান। এরপর সর্বশেষ ২০১০ সালে বাড়িতে এসেছিলেন। এরপর কয়েক মাস থেকে আবারও যান সৌদি আরবে। দুর্ঘনার আগ পর্যন্ত তিনি ওই কারখানায় কাজ করছিলেন।

শাহাদাত হোসেনে আরও জানান, ওই পরিবারের বারেক ছিলেন একমাত্র উপার্জনের ব্যক্তি। এভাবে তার চলে যাওয়া কিছুতেই মানতে পারছিনা। বড় মেয়েটার বিয়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে বাড়িতে এক মেয়ে ও স্ত্রী রয়েছে।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ তারেকুর রহমান সরকার জানান, বিষয়টি বিভিন্ন মাধ্যমে শুনতে পাচ্ছি। এবিষয়ে বিস্তারিত জানতে আমরা খোঁজ খবর রাখছি।