সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল রেজাউল করিমের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৮:১০:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০২০
  • / ১৪৭ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. রেজাউল করিম হেলাল (৫৭) মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

বুধবার (১৭ জুন) দিনগত রাত ১টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন বলে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

রেজাউল করিম হেলাল দীর্ঘদিন ডায়াবেটিস ও কিডনি সমস্যায় ভুগছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি হার্ট অ্যাটাক করেন। এরপর তাকে লাইফ সাপোর্টে দেয়া হয়েছিল।

তিনি ১৯৯৫ সনের ১২ আগস্ট বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনে আইনপেশা পরিচালনার সনদপ্রাপ্ত হন এবং ১৯৯৭ সনের ৩ আগস্ট সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য হন।

তিনি ২০১৯ সনের ৭ জুলাই বাংলাদেশের সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং ৮ জুলাই কাজে যোগদান করে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তিনি মিরপুর -১ নম্বরে মধ্য পাইকপাড়ায় বসবাস করতেন।

সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি ও অ্যার্টনি জেনারেল কার্যালয়ের পক্ষ থেকে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়েছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল রেজাউল করিমের মৃত্যু

Update Time : ০৮:১০:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. রেজাউল করিম হেলাল (৫৭) মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

বুধবার (১৭ জুন) দিনগত রাত ১টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন বলে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

রেজাউল করিম হেলাল দীর্ঘদিন ডায়াবেটিস ও কিডনি সমস্যায় ভুগছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি হার্ট অ্যাটাক করেন। এরপর তাকে লাইফ সাপোর্টে দেয়া হয়েছিল।

তিনি ১৯৯৫ সনের ১২ আগস্ট বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনে আইনপেশা পরিচালনার সনদপ্রাপ্ত হন এবং ১৯৯৭ সনের ৩ আগস্ট সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য হন।

তিনি ২০১৯ সনের ৭ জুলাই বাংলাদেশের সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং ৮ জুলাই কাজে যোগদান করে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তিনি মিরপুর -১ নম্বরে মধ্য পাইকপাড়ায় বসবাস করতেন।

সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি ও অ্যার্টনি জেনারেল কার্যালয়ের পক্ষ থেকে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়েছে।