সাকিব থাকলেও নেই সাইফউদ্দিন, কারণ জানালেন শান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৬:৫৯:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪
  • / ১৫ Time View

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারেননি মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ৪ ম্যাচে খেলার সুযোগ পেয়ে উইকেট নিয়েছেন ৮টি। তবে বল হাতে বেশ খরুচে ছিলেন এই পেসার। বিশেষ করে ডেথ ওভারে প্রতিপক্ষ দলকে আটকে রাখতে পারেননি তিনি। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ১৫ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়ে ভালোই শুরু করেছিলেন তিনি। পরের ম্যাচে ৩৭ রানে ১ উইকেট নিয়েছিলেন সাইফউদ্দিন। এরপর চতুর্থ ম্যাচে মুস্তাফিজুর রহমান ফেরায় একাদশে সুযোগ হয়নি তার।

শেষ ম্যাচে তাসকিন আহমেদ চোটে পড়ায় ফেরানো হয়েছিল সাইফউদ্দিনকে। সেই ম্যাচে ৪ ওভারে ৫৫ রান খরচা করে নিয়েছিলেন একটি উইকেট। ১৮তম ওভারে এসে ১৯ রান খরচা করে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা নিভিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তার জায়গায় নেয়া হয়েছে তানজিম হাসান সাকিবকে।

জিম্বাবুয়ে সিরিজে দুটি ম্যাচ খেলছিলেন সাকিব। এই পেসার একটি ম্যাচে ২৬ রান খরচায় নেন এক উইকেট। আরেকটি ম্যাচে ৪২ রান খরচায় উইকেটশূন্য ছিলেন তিনি। এই দুজনের ব্যাপারে শান্ত বলেন, ‘সাইফউদ্দিন-সাকিব দুজনই খুব ক্লোজ ছিল। আমরা কাকে নেব আমরা শেষ মুহূর্তে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দুজনই খুব ক্লোজ ছিল। দুজনই সমান ম্যাচ খেলেছে। জিনিসটা এমন না যে কেউ আট উইকেট নিয়েছে, কেউ নেয়নি, এমন না। এই চিন্তা করে আমরা সাকিব বা সাইফউদ্দিন একজনকে নেইনি বা বাদ দেইনি। জিনিসটা হচ্ছে সবমিলিয়ে দলের যেটা প্রয়োজন। টিমের জন্য… থাকে না বিশ্বাসের যে ব্যাপারটা, কারো ওপর আত্মবিশ্বাস বেশি ছিল, কারো ওপর কম ছিল। আমাদের সবার কাছে মনে হয়েছে সাকিব টিমের জন্য ভালো কিছু ডেলিভার করবে, আমাদের সেরা দলের কম্বিনেশন অনুযায়ী।’

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

সাকিব থাকলেও নেই সাইফউদ্দিন, কারণ জানালেন শান্ত

Update Time : ০৬:৫৯:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারেননি মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ৪ ম্যাচে খেলার সুযোগ পেয়ে উইকেট নিয়েছেন ৮টি। তবে বল হাতে বেশ খরুচে ছিলেন এই পেসার। বিশেষ করে ডেথ ওভারে প্রতিপক্ষ দলকে আটকে রাখতে পারেননি তিনি। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ১৫ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়ে ভালোই শুরু করেছিলেন তিনি। পরের ম্যাচে ৩৭ রানে ১ উইকেট নিয়েছিলেন সাইফউদ্দিন। এরপর চতুর্থ ম্যাচে মুস্তাফিজুর রহমান ফেরায় একাদশে সুযোগ হয়নি তার।

শেষ ম্যাচে তাসকিন আহমেদ চোটে পড়ায় ফেরানো হয়েছিল সাইফউদ্দিনকে। সেই ম্যাচে ৪ ওভারে ৫৫ রান খরচা করে নিয়েছিলেন একটি উইকেট। ১৮তম ওভারে এসে ১৯ রান খরচা করে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা নিভিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তার জায়গায় নেয়া হয়েছে তানজিম হাসান সাকিবকে।

জিম্বাবুয়ে সিরিজে দুটি ম্যাচ খেলছিলেন সাকিব। এই পেসার একটি ম্যাচে ২৬ রান খরচায় নেন এক উইকেট। আরেকটি ম্যাচে ৪২ রান খরচায় উইকেটশূন্য ছিলেন তিনি। এই দুজনের ব্যাপারে শান্ত বলেন, ‘সাইফউদ্দিন-সাকিব দুজনই খুব ক্লোজ ছিল। আমরা কাকে নেব আমরা শেষ মুহূর্তে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দুজনই খুব ক্লোজ ছিল। দুজনই সমান ম্যাচ খেলেছে। জিনিসটা এমন না যে কেউ আট উইকেট নিয়েছে, কেউ নেয়নি, এমন না। এই চিন্তা করে আমরা সাকিব বা সাইফউদ্দিন একজনকে নেইনি বা বাদ দেইনি। জিনিসটা হচ্ছে সবমিলিয়ে দলের যেটা প্রয়োজন। টিমের জন্য… থাকে না বিশ্বাসের যে ব্যাপারটা, কারো ওপর আত্মবিশ্বাস বেশি ছিল, কারো ওপর কম ছিল। আমাদের সবার কাছে মনে হয়েছে সাকিব টিমের জন্য ভালো কিছু ডেলিভার করবে, আমাদের সেরা দলের কম্বিনেশন অনুযায়ী।’