শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চাইলে আবারও ছাত্ররাজনীতি চালু হতে পারে: বুয়েট উপাচার্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৩:৫৮:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪
  • / ৩৭ Time View

শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চাইলে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) আবার ছাত্ররাজনীতি চালু হতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির উপাচার্য সত্য প্রসাদ মজুমদার।

আজ রোববার উপাচার্য তাঁর নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

উপাচার্য বলেন, ছাত্র রাজনীতি ছাত্রদের গড়ে ওঠার জন্যই দরকার। বুয়েটের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চাইলে আবার ছাত্ররাজনীতি চালু হতে পারে।

ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিসহ ৫ দফা দাবিতে গত শুক্রবার থেকে বুয়েট শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছে। পুরকৌশল বিভাগের ২১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ রাব্বীসহ ছয়জনের স্থায়ী বহিষ্কার দাবি করে তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। এরই মধ্যে ইমতিয়াজের হলের সিট বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, ২০১৯ সালে আবরার হত্যার পর ক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করা হয়। সে নিষেধাজ্ঞা না মেনে গত বুধবার রাতে কিছু ছাত্রলীগ নেতা-কর্মী ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালায়। এর প্রতিবাদে তাঁরা বিক্ষোভ করছে। দাবি আদায়ে রোববার পর্যন্ত পরীক্ষাসহ সব একাডেমিক কার্যক্রম বর্জনের হুঁশিয়ারি দিয়েছে বুয়েটের শিক্ষার্থীরা।

এ প্রসঙ্গে সত্য প্রসাদ মজুমদার বলেন, তদন্ত কমিটি কাজ করছে, রিপোর্ট পেলে ব্যবস্থা নেব। আর পরীক্ষা ওপেন আছে, কেউ চাইলে দিতে পারে।

এর আগে গতকাল শনিবার উপাচার্য সত্য প্রসাদ মজুমদার সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোর সঙ্গে আমরাও সহমত। কিন্তু এগুলো পূরণে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণের জন্য সময় প্রয়োজন।’

এদিকে আজ রোববার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি চালুর দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ করছে ছাত্রলীগ।

সমাবেশে ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ, অথচ নিষিদ্ধ ঘোষিত রাজনীতি সেখানে চলছে। অনতিবিলম্বে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি চালু করতে হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চাইলে আবারও ছাত্ররাজনীতি চালু হতে পারে: বুয়েট উপাচার্য

Update Time : ০৩:৫৮:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চাইলে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) আবার ছাত্ররাজনীতি চালু হতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির উপাচার্য সত্য প্রসাদ মজুমদার।

আজ রোববার উপাচার্য তাঁর নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

উপাচার্য বলেন, ছাত্র রাজনীতি ছাত্রদের গড়ে ওঠার জন্যই দরকার। বুয়েটের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চাইলে আবার ছাত্ররাজনীতি চালু হতে পারে।

ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিসহ ৫ দফা দাবিতে গত শুক্রবার থেকে বুয়েট শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছে। পুরকৌশল বিভাগের ২১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ রাব্বীসহ ছয়জনের স্থায়ী বহিষ্কার দাবি করে তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। এরই মধ্যে ইমতিয়াজের হলের সিট বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, ২০১৯ সালে আবরার হত্যার পর ক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করা হয়। সে নিষেধাজ্ঞা না মেনে গত বুধবার রাতে কিছু ছাত্রলীগ নেতা-কর্মী ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালায়। এর প্রতিবাদে তাঁরা বিক্ষোভ করছে। দাবি আদায়ে রোববার পর্যন্ত পরীক্ষাসহ সব একাডেমিক কার্যক্রম বর্জনের হুঁশিয়ারি দিয়েছে বুয়েটের শিক্ষার্থীরা।

এ প্রসঙ্গে সত্য প্রসাদ মজুমদার বলেন, তদন্ত কমিটি কাজ করছে, রিপোর্ট পেলে ব্যবস্থা নেব। আর পরীক্ষা ওপেন আছে, কেউ চাইলে দিতে পারে।

এর আগে গতকাল শনিবার উপাচার্য সত্য প্রসাদ মজুমদার সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোর সঙ্গে আমরাও সহমত। কিন্তু এগুলো পূরণে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণের জন্য সময় প্রয়োজন।’

এদিকে আজ রোববার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি চালুর দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ করছে ছাত্রলীগ।

সমাবেশে ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ, অথচ নিষিদ্ধ ঘোষিত রাজনীতি সেখানে চলছে। অনতিবিলম্বে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি চালু করতে হবে।