শতভাগ সফলতা নিয়ে দেশে ফিরেছে ডিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৫:৩৫:৩৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪
  • / 18

ঝিনাইদহ-৪ আসনের এমপি আনোয়ারুল আজিম আনারের হত্যা মামলা তদন্ত করতে ভারত গিয়েছিল ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি প্রতিনিধি দল।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) দুপুরে তারা কলকাতা থেকে ফিরেছেন। ফেরার আগে দেশটির বিমানবন্দরে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের বলছেন, আমরা যে উদ্দেশ্য নিয়ে কলকাতায় এসেছিলাম, তার শতভাগ সফলতা নিয়ে আমরা বাংলাদেশে ফিরছি। আরও ভালো খবর আপনারা পাবেন।

ডিবি প্রধান বলেন, এবার কলকাতা আসার পর এখানকার পুলিশের সঙ্গে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আমাদের যে হৃদ্যতা ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি হয়েছে; এতে করে বলতে পারি বাংলাদেশ থেকে কেউ অপরাধ করে এসে কলকাতাকে স্বর্গীয় ভবন মনে করবে, তা অসম্ভব। আমরা আগামীতে তাদের আরও দ্রুত সময়ে কলকাতা থেকে ধরে নিয়ে যেতে পারব।

তিনি বলেন, আমরা যে মূল ঘাতককে গ্রেপ্তার করেছি, তার কাছে থেকে পাওয়া তথ্য আমরা মিলিয়ে নেয়ার কাজ করেছি কলকাতায়। দ্বিতীয়ত, ভারতে গ্রেপ্তার জিহাদ। তার সঙ্গে আমাদের কাছে থাকা মূল ঘাতকের কথা মিলিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছি। এতে শতভাগ মিলেছে আমাদের কাছে গ্রেপ্তার মূল ঘাতক ও ভারতে গ্রেপ্তার জিহাদের কথা। আমাদের আরও একটি বিষয় ছিল, সেটি হলো স্বচক্ষে ডিজিটাল এভিডেন্সগুলো মিলিয়ে দেখা। এমপি যার বাসায় ছিলেন, সেই গোপাল বাবুর সঙ্গেও আমরা কথা বলেছি।

হারুন অর রশীদ বলেন, নেপাল ও যুক্তরাষ্ট্রে আত্মগোপনে থাকা দু’জনকে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তারের আবেদন করেছে পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি ও কলকাতা পুলিশ। ভারতের সাথে চুক্তি থাকায় তাদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা যাবে।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, উদ্ধারকৃত মাংসের ফরেনসিক ও ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট দ্রুত পাঠাতে ভারতীয় প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে। প্রতিকূল আবহাওয়ার মধ্যে খালসহ বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালানোয় সিআইডিসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ দেন ডিএমপির ডিবি প্রধান। আশা প্রকাশ করেন, দ্রুতই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন হবে।

তিনি আরও বলেন, সেপটিক ট্যাংক থেকে যে মরদেহের খণ্ডাংশগুলো পাওয়া গেছে, আমরা ধারণা করছি এগুলো এমপি আনারের। তবে, ডিএনএ টেস্ট ও ফরেনসিক রিপোর্ট ছাড়া এটা নিশ্চিত করে বলা যাবে না। ডিএনএ টেস্টের জন্য ভিকটিম আনারের মেয়ে ভারতে আসবে। ডরিনের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। সে ভিসার জন্য আবেদন করেছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

শতভাগ সফলতা নিয়ে দেশে ফিরেছে ডিবি

Update Time : ০৫:৩৫:৩৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

ঝিনাইদহ-৪ আসনের এমপি আনোয়ারুল আজিম আনারের হত্যা মামলা তদন্ত করতে ভারত গিয়েছিল ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি প্রতিনিধি দল।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) দুপুরে তারা কলকাতা থেকে ফিরেছেন। ফেরার আগে দেশটির বিমানবন্দরে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের বলছেন, আমরা যে উদ্দেশ্য নিয়ে কলকাতায় এসেছিলাম, তার শতভাগ সফলতা নিয়ে আমরা বাংলাদেশে ফিরছি। আরও ভালো খবর আপনারা পাবেন।

ডিবি প্রধান বলেন, এবার কলকাতা আসার পর এখানকার পুলিশের সঙ্গে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আমাদের যে হৃদ্যতা ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি হয়েছে; এতে করে বলতে পারি বাংলাদেশ থেকে কেউ অপরাধ করে এসে কলকাতাকে স্বর্গীয় ভবন মনে করবে, তা অসম্ভব। আমরা আগামীতে তাদের আরও দ্রুত সময়ে কলকাতা থেকে ধরে নিয়ে যেতে পারব।

তিনি বলেন, আমরা যে মূল ঘাতককে গ্রেপ্তার করেছি, তার কাছে থেকে পাওয়া তথ্য আমরা মিলিয়ে নেয়ার কাজ করেছি কলকাতায়। দ্বিতীয়ত, ভারতে গ্রেপ্তার জিহাদ। তার সঙ্গে আমাদের কাছে থাকা মূল ঘাতকের কথা মিলিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছি। এতে শতভাগ মিলেছে আমাদের কাছে গ্রেপ্তার মূল ঘাতক ও ভারতে গ্রেপ্তার জিহাদের কথা। আমাদের আরও একটি বিষয় ছিল, সেটি হলো স্বচক্ষে ডিজিটাল এভিডেন্সগুলো মিলিয়ে দেখা। এমপি যার বাসায় ছিলেন, সেই গোপাল বাবুর সঙ্গেও আমরা কথা বলেছি।

হারুন অর রশীদ বলেন, নেপাল ও যুক্তরাষ্ট্রে আত্মগোপনে থাকা দু’জনকে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তারের আবেদন করেছে পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি ও কলকাতা পুলিশ। ভারতের সাথে চুক্তি থাকায় তাদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা যাবে।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, উদ্ধারকৃত মাংসের ফরেনসিক ও ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট দ্রুত পাঠাতে ভারতীয় প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে। প্রতিকূল আবহাওয়ার মধ্যে খালসহ বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালানোয় সিআইডিসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ দেন ডিএমপির ডিবি প্রধান। আশা প্রকাশ করেন, দ্রুতই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন হবে।

তিনি আরও বলেন, সেপটিক ট্যাংক থেকে যে মরদেহের খণ্ডাংশগুলো পাওয়া গেছে, আমরা ধারণা করছি এগুলো এমপি আনারের। তবে, ডিএনএ টেস্ট ও ফরেনসিক রিপোর্ট ছাড়া এটা নিশ্চিত করে বলা যাবে না। ডিএনএ টেস্টের জন্য ভিকটিম আনারের মেয়ে ভারতে আসবে। ডরিনের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। সে ভিসার জন্য আবেদন করেছে।