রাণীশংকৈল পৌরশহরের হাজীপাড়া রাস্তাটি ভেঙে অচল, এলাকাবাসীর দূর্ভোগ চরমে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১২:৫৮:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০
  • / ১১৭ Time View
হুমায়ুন কবির, রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ
.
ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল পৌরশহরের ৮ নং ওয়ার্ডের আরডিআরএস অফিস থেকে হাজীপাড়া পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তার মাঝখানে দুটি স্থানে বর্ষায় পানিতে ভেঙ্গে বড় বড় দুটি গর্ত হয়ে গেছে। যা চলাচলে একেবারে অযোগ্য। এতে দু’পাশের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে দু’শ পরিবার চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।
.
শনিবার (১১ জুলাই) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে রাস্তাটির বেহাল দশা। জানা যায়, এ পাকা রাস্তাটি মাসখানেক আগে প্রবল বর্ষণের স্রোতে দু’জায়গায় ভেঙে গেলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এতদিনেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। ভূক্তভোগি এলাকাবাসী এ ব্যাপারে অনেক অভিযোগ করেও কোনো ফল হয়নি। কয়েকদিন আগে আবার প্রচন্ড বৃষ্টিতে ভাঙা রাস্তাটি পানিতে তলিয়ে যাওয়ার উপক্রম। এতে প্রায় দুই শতাধিক পরিবারসহ এলাকাবাসি চরম দূর্ভোগে পড়েছেন।
.
স্থানীয় মোকসেদ আলী, জাকির হোসেন, মানিক ইলেকট্রিসিয়ান, ফয়সাল করিরসহ অনেকে অভিযোগ করে বলেন, গত একমাস যাবৎ রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করা যায় না। বিকল্প পথে অনেক দূর দিয়ে ঘুরে বাজারে যেতে হয়। এ ব্যাপারে কাউন্সিলর ও পৌর মেয়রের কোন মাথা ব্যথা নাই। আমরা এ রাস্তাটির মেরামতের জন্য দ্রুত পদক্ষেপ কামনা করছি। দেখা গেছে এ রাস্তা দিয়ে রাসেল মিনি স্টেডিয়াম সংলগ্ন দক্ষিন সন্ধ্যারই, হাজিপাড়া, নন্দুয়ার ও হোসেনগাও ইউনিয়ন ভূমি অফিসে অনেককেই যেতে হয়।
.
ইউনিয়ন সহকারি ভূমি অফিসার জাহিরুল ইসলাম বলেন, রাস্তাটি মেরামত খুব জরুরী। সংশ্লিষ্ট পৌর কাউন্সিলর সাদেকুল ইসলাম বলেন, মেয়রকে রাস্তাটিতে রাবিশ (ইটের গুড়া) দিয়ে মেরামতের জন্য একাধিকবার বলা হলেও কোন গুরুত্ব পাওয়া যায়নি। তাই এ বিষয়ে তার কিছু করার নেই বলেও তিনি জানান। এদিকে এ ভাঙা জলাবদ্ধ রাস্তাটিকে আশংকাজনক মনে করা হচ্ছে।
Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

রাণীশংকৈল পৌরশহরের হাজীপাড়া রাস্তাটি ভেঙে অচল, এলাকাবাসীর দূর্ভোগ চরমে

Update Time : ১২:৫৮:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০
হুমায়ুন কবির, রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ
.
ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল পৌরশহরের ৮ নং ওয়ার্ডের আরডিআরএস অফিস থেকে হাজীপাড়া পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তার মাঝখানে দুটি স্থানে বর্ষায় পানিতে ভেঙ্গে বড় বড় দুটি গর্ত হয়ে গেছে। যা চলাচলে একেবারে অযোগ্য। এতে দু’পাশের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে দু’শ পরিবার চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।
.
শনিবার (১১ জুলাই) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে রাস্তাটির বেহাল দশা। জানা যায়, এ পাকা রাস্তাটি মাসখানেক আগে প্রবল বর্ষণের স্রোতে দু’জায়গায় ভেঙে গেলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এতদিনেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। ভূক্তভোগি এলাকাবাসী এ ব্যাপারে অনেক অভিযোগ করেও কোনো ফল হয়নি। কয়েকদিন আগে আবার প্রচন্ড বৃষ্টিতে ভাঙা রাস্তাটি পানিতে তলিয়ে যাওয়ার উপক্রম। এতে প্রায় দুই শতাধিক পরিবারসহ এলাকাবাসি চরম দূর্ভোগে পড়েছেন।
.
স্থানীয় মোকসেদ আলী, জাকির হোসেন, মানিক ইলেকট্রিসিয়ান, ফয়সাল করিরসহ অনেকে অভিযোগ করে বলেন, গত একমাস যাবৎ রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করা যায় না। বিকল্প পথে অনেক দূর দিয়ে ঘুরে বাজারে যেতে হয়। এ ব্যাপারে কাউন্সিলর ও পৌর মেয়রের কোন মাথা ব্যথা নাই। আমরা এ রাস্তাটির মেরামতের জন্য দ্রুত পদক্ষেপ কামনা করছি। দেখা গেছে এ রাস্তা দিয়ে রাসেল মিনি স্টেডিয়াম সংলগ্ন দক্ষিন সন্ধ্যারই, হাজিপাড়া, নন্দুয়ার ও হোসেনগাও ইউনিয়ন ভূমি অফিসে অনেককেই যেতে হয়।
.
ইউনিয়ন সহকারি ভূমি অফিসার জাহিরুল ইসলাম বলেন, রাস্তাটি মেরামত খুব জরুরী। সংশ্লিষ্ট পৌর কাউন্সিলর সাদেকুল ইসলাম বলেন, মেয়রকে রাস্তাটিতে রাবিশ (ইটের গুড়া) দিয়ে মেরামতের জন্য একাধিকবার বলা হলেও কোন গুরুত্ব পাওয়া যায়নি। তাই এ বিষয়ে তার কিছু করার নেই বলেও তিনি জানান। এদিকে এ ভাঙা জলাবদ্ধ রাস্তাটিকে আশংকাজনক মনে করা হচ্ছে।