রাণীশংকৈলে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির সময় দুই যুবক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৪:৩৫:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩
  • / ১৮৮ Time View

হুমায়ুন কবির,রাণীশংকৈল,(ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে বুধবার (২৪ মে) দুপুরে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে উপজেলার আদিবাসী আমিন মার্ডির বাড়ীতে চাঁদাবাজিকরে ২৩ হাজার টাকা আত্মসাতের সময় জনতার হাতে আটক হয় মুন্না হাসান (৩৫) ও নুর মোহাম্মদ (৩৪) নামে দুই যুবক। পরে জনতা ওই দুই যুবককে আটক করে থানা পুলিশের হাতে সেপর্দ করেন।
মুন্না দিনাজপুরর ফুলবাড়ী উপজেলার মুত্তারপুর ইউসুফ খলিফার ছেলে এবং নুর মোহাম্মদ একই গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।
থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে ঘটনার দিন দুপুরে উপজেলার ডায়বেটিস মোড় সংলগ্ন সুন্দরপুর গ্রামের আদিবাসী আমিন মার্ডির বাড়ীতে ভুয়া ডিবি পরিচয়ে তারা অভিযান চালায়।
এ সময়ে তারা আমিন মার্ডির পরিবারের লোকজনকে অবৈধ বাংলা তৈরী করে মর্মে মদের মামলা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেন এবং মামলা না দিলে টাকা দিতে হবে বলে হুমকি দিয়ে ভুট্টা বেচা ২৩ হাজার টাকা জোরপূর্বক হাতিয়ে নেন । এ সময় পালিয়ে যাবার সময় তাদের কথাবার্তায় সন্দেহ হলে ভুক্তভোগী ও স্থানীরা তাদের আটক করে থানা পুলিশকে খবর দিয়ে তাদের হাতে তুলে দেন।
রানীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ গুলফামুল ইসলাম মন্ডল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাদের ভুয়া ডিবি পুলিশ সেজে চাঁদাবাজির সত্যতা পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন চলমান রয়েছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

রাণীশংকৈলে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির সময় দুই যুবক আটক

Update Time : ০৪:৩৫:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

হুমায়ুন কবির,রাণীশংকৈল,(ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে বুধবার (২৪ মে) দুপুরে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে উপজেলার আদিবাসী আমিন মার্ডির বাড়ীতে চাঁদাবাজিকরে ২৩ হাজার টাকা আত্মসাতের সময় জনতার হাতে আটক হয় মুন্না হাসান (৩৫) ও নুর মোহাম্মদ (৩৪) নামে দুই যুবক। পরে জনতা ওই দুই যুবককে আটক করে থানা পুলিশের হাতে সেপর্দ করেন।
মুন্না দিনাজপুরর ফুলবাড়ী উপজেলার মুত্তারপুর ইউসুফ খলিফার ছেলে এবং নুর মোহাম্মদ একই গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।
থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে ঘটনার দিন দুপুরে উপজেলার ডায়বেটিস মোড় সংলগ্ন সুন্দরপুর গ্রামের আদিবাসী আমিন মার্ডির বাড়ীতে ভুয়া ডিবি পরিচয়ে তারা অভিযান চালায়।
এ সময়ে তারা আমিন মার্ডির পরিবারের লোকজনকে অবৈধ বাংলা তৈরী করে মর্মে মদের মামলা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেন এবং মামলা না দিলে টাকা দিতে হবে বলে হুমকি দিয়ে ভুট্টা বেচা ২৩ হাজার টাকা জোরপূর্বক হাতিয়ে নেন । এ সময় পালিয়ে যাবার সময় তাদের কথাবার্তায় সন্দেহ হলে ভুক্তভোগী ও স্থানীরা তাদের আটক করে থানা পুলিশকে খবর দিয়ে তাদের হাতে তুলে দেন।
রানীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ গুলফামুল ইসলাম মন্ডল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাদের ভুয়া ডিবি পুলিশ সেজে চাঁদাবাজির সত্যতা পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন চলমান রয়েছে।