রাণীশংকৈলে নিখোঁজের ৫ ঘন্টা পর নদী থেকে ছাত্রের লাশ উদ্ধার

  • Update Time : ০৯:২৬:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪
  • / 29

হুমায়ুন কবির,রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধিঃ

নতুন কারিকুলামে বুধবার (৩ জুলাই) ষান্মাসিক পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলো ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রণির ছাত্র সঞ্জয় মহন্ত সাহা(১৫) এবং সেরা পৌরশহরের ডাবতলী এলাকার অমল মহন্ত সাহার ছেলে। স্কুলের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে কুলিক নদী। চলমান বৃষ্টি ও উজান থেকে বয়ে আসা বন্যায় প্লাবিত হয় নদীর দুকূল। নদীর উপর দিয়ে স্থাপিত ব্রিজ। কয়েকজন বন্ধু পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার সময় ব্রিজের নিচে নদীতে গোসল করছিল। তাদের দেখে লোভ সামলাতে না পেরে গোসল করার জন্য ব্রিজ থেকে লাফ দিয়ে নদীর পানিতে ঝাঁপ দেয় সঞ্জয়। কিন্তু হঠাৎ পানির প্রবল স্রোত আর স্রোতের ঘুন্নিতে তলিয়ে যায় সঞ্জয়। এতে তার বন্ধুরা তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করে। না পেয়ে সঞ্জয়’র বাড়িতে খবর দেয়। পরে খবর পেয়ে প্রথমে রাণীশংকৈল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা অনেক চেষ্টার পর খুঁজে পায়নি। পরে রংপুরের ডুবুরির দল নিখোঁজের ৫ ঘন্টা পর এদিন রাত ৮ টায় কুলিক নদীর ব্রিজের নিচ থেকে সঞ্জয়ের মরদেহ উদ্ধার করে। রাণীশংকৈল ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নাসিম ইকবাল জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে খোঁজাখুজি করেছেন। কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি। পরে রংপুরের ডুবুরি টিমকে খবর দেয়া হলে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে উদ্ধার কাজ পরিচালনা করে মরদেহ উদ্ধার করে। রাণীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী অফিসার রকিবুল হাসান জানান, স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা অনেক খোঁজাখুঁজির চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে রংপুরের ডুবুরি দল নদী থেকে ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে ।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

রাণীশংকৈলে নিখোঁজের ৫ ঘন্টা পর নদী থেকে ছাত্রের লাশ উদ্ধার

Update Time : ০৯:২৬:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪

হুমায়ুন কবির,রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধিঃ

নতুন কারিকুলামে বুধবার (৩ জুলাই) ষান্মাসিক পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলো ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রণির ছাত্র সঞ্জয় মহন্ত সাহা(১৫) এবং সেরা পৌরশহরের ডাবতলী এলাকার অমল মহন্ত সাহার ছেলে। স্কুলের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে কুলিক নদী। চলমান বৃষ্টি ও উজান থেকে বয়ে আসা বন্যায় প্লাবিত হয় নদীর দুকূল। নদীর উপর দিয়ে স্থাপিত ব্রিজ। কয়েকজন বন্ধু পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার সময় ব্রিজের নিচে নদীতে গোসল করছিল। তাদের দেখে লোভ সামলাতে না পেরে গোসল করার জন্য ব্রিজ থেকে লাফ দিয়ে নদীর পানিতে ঝাঁপ দেয় সঞ্জয়। কিন্তু হঠাৎ পানির প্রবল স্রোত আর স্রোতের ঘুন্নিতে তলিয়ে যায় সঞ্জয়। এতে তার বন্ধুরা তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করে। না পেয়ে সঞ্জয়’র বাড়িতে খবর দেয়। পরে খবর পেয়ে প্রথমে রাণীশংকৈল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা অনেক চেষ্টার পর খুঁজে পায়নি। পরে রংপুরের ডুবুরির দল নিখোঁজের ৫ ঘন্টা পর এদিন রাত ৮ টায় কুলিক নদীর ব্রিজের নিচ থেকে সঞ্জয়ের মরদেহ উদ্ধার করে। রাণীশংকৈল ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নাসিম ইকবাল জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে খোঁজাখুজি করেছেন। কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি। পরে রংপুরের ডুবুরি টিমকে খবর দেয়া হলে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে উদ্ধার কাজ পরিচালনা করে মরদেহ উদ্ধার করে। রাণীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী অফিসার রকিবুল হাসান জানান, স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা অনেক খোঁজাখুঁজির চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে রংপুরের ডুবুরি দল নদী থেকে ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে ।