রাজশাহীতে একদিনে করোনা উপসর্গ নিয়ে ৭ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৪:৪৬:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ জুন ২০২০
  • / ১১৯ Time View
পাপ্পু কুমার, রাজশাহী:
রাজশাহীতে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে একদিনে মৃত্যু বরন করলেন সাত জন। গত ২৪ ঘন্টাই এদের মৃত্যু হয়েছে।যারা মারা গেছেন তারা হলেন- রাজশাহী মহানগরীর আমবাগান এলাকার সাইদুর রহমান (৪৫), শিরোইল কলোনী বড় মসজিদ এলাকার সিয়ামুল হক (৬০), লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া এলাকার রাবেয়া বেগম (৬৫) এবং ঘোষপাড়া এলাকার মো. খোকন (৪০)।
.
এদের মধ্যে খোকন ও সাইদুর মারা গেছেন হাসপাতালের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে। সাইদুর ছিলেন ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে। আর রাবেয়া বেগম ছিলেন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে।
.
তানোর উপজেলার কামারগাঁ গ্রামের মকবুল হোসেন (৭৫), রাজশাহীর হযরত শাহমখদুম (র.) মাজারে আসা যশোরের অভয়নগরের আশরাফুল ইসলাম (৪৮) এবং বোয়ালিয়া থানা এলাকার সুভাষ চন্দ্র সাহা (৫০)।
.
ডা. সাইফুল ফেরদৌস জানান, হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে যারা মারা গেছেন তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়াও তাদের লাশ দাফনের জন্য কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনকে জানানো হয়েছে। তানোরের মকবুল হোসেনের দুই ছেলে করোনায় আক্রান্ত। মকবুল করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।
.
সবার লাশ দাফনের ব্যবস্থা করেছেন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবকরা। যশোরের আশরাফুল ইসলাম রাজশাহীর হযরত শাহমখদুম (র.) এর মাজারের সামনে থাকতেন। কয়েকদিন ধরে তার জ্বব ছিল। রোববার সকালে তিনি মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে রামেকের মর্গে পাঠায়। পরে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনকে দাফনের দায়িত্ব দেয়া হয়।
Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

রাজশাহীতে একদিনে করোনা উপসর্গ নিয়ে ৭ জনের মৃত্যু

Update Time : ০৪:৪৬:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ জুন ২০২০
পাপ্পু কুমার, রাজশাহী:
রাজশাহীতে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে একদিনে মৃত্যু বরন করলেন সাত জন। গত ২৪ ঘন্টাই এদের মৃত্যু হয়েছে।যারা মারা গেছেন তারা হলেন- রাজশাহী মহানগরীর আমবাগান এলাকার সাইদুর রহমান (৪৫), শিরোইল কলোনী বড় মসজিদ এলাকার সিয়ামুল হক (৬০), লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া এলাকার রাবেয়া বেগম (৬৫) এবং ঘোষপাড়া এলাকার মো. খোকন (৪০)।
.
এদের মধ্যে খোকন ও সাইদুর মারা গেছেন হাসপাতালের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে। সাইদুর ছিলেন ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে। আর রাবেয়া বেগম ছিলেন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে।
.
তানোর উপজেলার কামারগাঁ গ্রামের মকবুল হোসেন (৭৫), রাজশাহীর হযরত শাহমখদুম (র.) মাজারে আসা যশোরের অভয়নগরের আশরাফুল ইসলাম (৪৮) এবং বোয়ালিয়া থানা এলাকার সুভাষ চন্দ্র সাহা (৫০)।
.
ডা. সাইফুল ফেরদৌস জানান, হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে যারা মারা গেছেন তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়াও তাদের লাশ দাফনের জন্য কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনকে জানানো হয়েছে। তানোরের মকবুল হোসেনের দুই ছেলে করোনায় আক্রান্ত। মকবুল করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।
.
সবার লাশ দাফনের ব্যবস্থা করেছেন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবকরা। যশোরের আশরাফুল ইসলাম রাজশাহীর হযরত শাহমখদুম (র.) এর মাজারের সামনে থাকতেন। কয়েকদিন ধরে তার জ্বব ছিল। রোববার সকালে তিনি মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে রামেকের মর্গে পাঠায়। পরে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনকে দাফনের দায়িত্ব দেয়া হয়।