রাজনৈতিক কোনো ইস্যু না থাকলেই ভারত বিরোধিতা শুরু হয়: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১১:১৩:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
  • / ২৮ Time View

মিত্রশক্তির বিরোধিতা পাকিস্তান আমল থেকেই হয়ে আসছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, দেশে যখন রাজনৈতিক কোনো ইস্যু না থাকে, তখনই ভারত বিরোধিতা শুরু হয়।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এ মন্তব্য করেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার এত বছর পরও ঘোষক নিয়ে বিতর্ক হয়। ঘোষণার পাঠক ঘোষক হতে পারেন না। আবুল কাশেম সন্দ্বীপ, এমএ হান্নানসহ অনেকেই ঘোষণা পাঠ করেছিলেন বঙ্গবন্ধুর নামে। মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমানও বঙ্গবন্ধুর পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। স্বাধীনতার ঘোষক কে, এই বিতর্কের অবসান তখনই হবে যখন সত্যকে অনুসন্ধান করা হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এই অঞ্চলের মানুষের জন্য স্বাধীনতার ঘোষণা দেয়ার ম্যান্ডেট কেবল বঙ্গবন্ধু পেয়েছিলেন ১৯৭০-এর নির্বাচনের মধ্যদিয়ে। এছাড়া ঘোষক দাবি করার বৈধ অধিকার কারো নেই। বিএনপির নেতৃত্বে যে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বিজয়কে সুসংহত করতে বাধা হয়ে আছে, তাদেরকে পরাজিত করেই তারা এগিয়ে যাবেন বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

Please Share This Post in Your Social Media

রাজনৈতিক কোনো ইস্যু না থাকলেই ভারত বিরোধিতা শুরু হয়: ওবায়দুল কাদের

Update Time : ১১:১৩:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

মিত্রশক্তির বিরোধিতা পাকিস্তান আমল থেকেই হয়ে আসছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, দেশে যখন রাজনৈতিক কোনো ইস্যু না থাকে, তখনই ভারত বিরোধিতা শুরু হয়।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এ মন্তব্য করেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার এত বছর পরও ঘোষক নিয়ে বিতর্ক হয়। ঘোষণার পাঠক ঘোষক হতে পারেন না। আবুল কাশেম সন্দ্বীপ, এমএ হান্নানসহ অনেকেই ঘোষণা পাঠ করেছিলেন বঙ্গবন্ধুর নামে। মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমানও বঙ্গবন্ধুর পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। স্বাধীনতার ঘোষক কে, এই বিতর্কের অবসান তখনই হবে যখন সত্যকে অনুসন্ধান করা হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এই অঞ্চলের মানুষের জন্য স্বাধীনতার ঘোষণা দেয়ার ম্যান্ডেট কেবল বঙ্গবন্ধু পেয়েছিলেন ১৯৭০-এর নির্বাচনের মধ্যদিয়ে। এছাড়া ঘোষক দাবি করার বৈধ অধিকার কারো নেই। বিএনপির নেতৃত্বে যে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বিজয়কে সুসংহত করতে বাধা হয়ে আছে, তাদেরকে পরাজিত করেই তারা এগিয়ে যাবেন বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।