যে ৫ খাবার না ছাড়লে ওজন কমানো যাবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১২:৪৫:২৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ২০০ Time View

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ 

যে ৫ খাবার না ছাড়লে ওজন কমানো যাবে না
ওজন কমানো মোটেই সহজ কোনো কাজ নয়। একবার ওজন বাড়তে শুরু করলে তার লাগাম টেনে ধরা মুশকিল হয়ে পড়ে অনেকের জন্যই। পরিমিত খাবার খেয়ে, শরীরচর্চা ও পরিশ্রম করে ওজন কমানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু আপনার এতসব চেষ্টাও বিফল হতে পারে যদি আপনি কিছু খাবার খাওয়া না ছাড়তে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলো কী-

কোমল পানীয়

কোমল পানীয় খেতে নিশ্চয়ই ভালোলাগে? কিন্তু এতে থাকে প্রচুর চিনি। সেইসঙ্গে এই পানীয়ে নেই কোনো পুষ্টিগুণও। কোমল পানীয় খেলে তা শরীরে সুগারের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। সেইসেঙ্গ এ ধরনের পানীয় ক্ষুধাও বাড়িয়ে দেয়। যে কারণে খাওয়ার পরিমাণ বেড়ে যায়। ফলস্বরূপ ওজন বাড়তে থাকে দ্রুত।

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই খেতে কে না পছন্দ করেন! এই মুখরোচক খাবার সবার কাছেই লোভনীয়। কিন্তু খেতে যতই ভালোলাগুক ওজন কমানোর চেষ্টা করলে এই খাবার একেবারেই বাদ দিতে হবে তালিকা থেকে। এনসিবিআই-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই খাবারে ওজন তো কমবেই না বরং বাড়তে পারে। এতে কোনো ফাইবার নেই। সেইসঙ্গে রয়েছে উচ্চ মাত্রায় লবণ। ফ্রেঞ্চ ফ্রাই তৈরি হয় ডুবো তেলে। সেই তেল শরীরে ফ্যাট বৃদ্ধি করে। তাই ওজন কমাতে চাইলে এই খাবার বাদ দিতে হবে।

বেকারির খাবার

বেকারির খাবার যেমন জ্যাম, জেলি, ক্রিম দেওয়া বিস্কুট, কুকিজ, কেক, ডোনাটে থাকে প্রচুর মিষ্টি। এ ধরনের খাবার ময়দা দিয়ে তৈরি হয়। সেইসঙ্গে এসব খাবারে থাকে স্যাচুরেটেড ফ্যাট। এসব উপাদান শরীরে প্রদাহ তৈরি করতে পারে। এ ধরনের খাবার ওজনও বৃদ্ধি করে। তাই ওজন কমাতে চাইলে এ জাতীয় খাবার একেবারেই বাদ দিতে হবে।

রেডমিট

আমাদের যেকোনো আয়োজনে মাংসের বিভিন্ন পদ থাকেই। মাংস ছাড়া বিভিন্ন উৎসবের খাবারও অসম্পূর্ণ থেকে যায়। কিন্তু রেডমিটে থাকে অনেকটা স্যাচুরেটেড ফ্যাট। পাশাপাশি এই মাংস শরীরে প্রদাহ তৈরি করতে পারে। অতিরিক্ত রেডমিট খেলে তা কোলেস্টেরল বাড়িয়ে রক্তনালীতে বাধা তৈরি করে। তাই ওজন কমাতে চাইলে রেডমিট খাওয়ার লাগাম টানুন।

মদ্যপান

মদে রয়েছে হাই ক্যালোরি, এমনটাই জানানো হয়েছে এনসিবিআই-তে প্রকাশিত এক গবেষণায়। এক মিলিগ্রাম মদে থাকে প্রায় ৭ ক্যালোরি। সেইসঙ্গে এই পানীয় ক্ষুধা বাড়িয়ে দেয়। সেইসঙ্গে এই পানীয়ের কোনো পুষ্টিগুণও নেই। চিকিৎসাবিজ্ঞান বলছে, এই পদার্থ মেটাবলিজম প্রক্রিয়াকে ধীর করে দেয়, সেইসঙ্গে লিভারের ক্ষতি করে। তাই মদ্যপানের অভ্যাস থাকলে তা বাদ দিন।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

যে ৫ খাবার না ছাড়লে ওজন কমানো যাবে না

Update Time : ১২:৪৫:২৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ 

যে ৫ খাবার না ছাড়লে ওজন কমানো যাবে না
ওজন কমানো মোটেই সহজ কোনো কাজ নয়। একবার ওজন বাড়তে শুরু করলে তার লাগাম টেনে ধরা মুশকিল হয়ে পড়ে অনেকের জন্যই। পরিমিত খাবার খেয়ে, শরীরচর্চা ও পরিশ্রম করে ওজন কমানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু আপনার এতসব চেষ্টাও বিফল হতে পারে যদি আপনি কিছু খাবার খাওয়া না ছাড়তে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলো কী-

কোমল পানীয়

কোমল পানীয় খেতে নিশ্চয়ই ভালোলাগে? কিন্তু এতে থাকে প্রচুর চিনি। সেইসঙ্গে এই পানীয়ে নেই কোনো পুষ্টিগুণও। কোমল পানীয় খেলে তা শরীরে সুগারের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। সেইসেঙ্গ এ ধরনের পানীয় ক্ষুধাও বাড়িয়ে দেয়। যে কারণে খাওয়ার পরিমাণ বেড়ে যায়। ফলস্বরূপ ওজন বাড়তে থাকে দ্রুত।

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই খেতে কে না পছন্দ করেন! এই মুখরোচক খাবার সবার কাছেই লোভনীয়। কিন্তু খেতে যতই ভালোলাগুক ওজন কমানোর চেষ্টা করলে এই খাবার একেবারেই বাদ দিতে হবে তালিকা থেকে। এনসিবিআই-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই খাবারে ওজন তো কমবেই না বরং বাড়তে পারে। এতে কোনো ফাইবার নেই। সেইসঙ্গে রয়েছে উচ্চ মাত্রায় লবণ। ফ্রেঞ্চ ফ্রাই তৈরি হয় ডুবো তেলে। সেই তেল শরীরে ফ্যাট বৃদ্ধি করে। তাই ওজন কমাতে চাইলে এই খাবার বাদ দিতে হবে।

বেকারির খাবার

বেকারির খাবার যেমন জ্যাম, জেলি, ক্রিম দেওয়া বিস্কুট, কুকিজ, কেক, ডোনাটে থাকে প্রচুর মিষ্টি। এ ধরনের খাবার ময়দা দিয়ে তৈরি হয়। সেইসঙ্গে এসব খাবারে থাকে স্যাচুরেটেড ফ্যাট। এসব উপাদান শরীরে প্রদাহ তৈরি করতে পারে। এ ধরনের খাবার ওজনও বৃদ্ধি করে। তাই ওজন কমাতে চাইলে এ জাতীয় খাবার একেবারেই বাদ দিতে হবে।

রেডমিট

আমাদের যেকোনো আয়োজনে মাংসের বিভিন্ন পদ থাকেই। মাংস ছাড়া বিভিন্ন উৎসবের খাবারও অসম্পূর্ণ থেকে যায়। কিন্তু রেডমিটে থাকে অনেকটা স্যাচুরেটেড ফ্যাট। পাশাপাশি এই মাংস শরীরে প্রদাহ তৈরি করতে পারে। অতিরিক্ত রেডমিট খেলে তা কোলেস্টেরল বাড়িয়ে রক্তনালীতে বাধা তৈরি করে। তাই ওজন কমাতে চাইলে রেডমিট খাওয়ার লাগাম টানুন।

মদ্যপান

মদে রয়েছে হাই ক্যালোরি, এমনটাই জানানো হয়েছে এনসিবিআই-তে প্রকাশিত এক গবেষণায়। এক মিলিগ্রাম মদে থাকে প্রায় ৭ ক্যালোরি। সেইসঙ্গে এই পানীয় ক্ষুধা বাড়িয়ে দেয়। সেইসঙ্গে এই পানীয়ের কোনো পুষ্টিগুণও নেই। চিকিৎসাবিজ্ঞান বলছে, এই পদার্থ মেটাবলিজম প্রক্রিয়াকে ধীর করে দেয়, সেইসঙ্গে লিভারের ক্ষতি করে। তাই মদ্যপানের অভ্যাস থাকলে তা বাদ দিন।