মেট্রোরেলের যাত্রীদের জন্য সুখবর

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৪:৪৬:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৩০ Time View

যাত্রী চাহিদা থাকলেও মেট্রোরেলের বগি আর না বাড়িয়ে ফ্রিকোয়েন্সির (বিরতি) সময় কমানোর একটা ব্যবস্থা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার ভি মান্টিটস্কির সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মেট্রোরেল যোগাযোগের ক্ষেত্রে একটা বড় সুবিধা এনে দিয়েছে। এখন মানুষের প্রচুর চাপ, অনেকে উঠতে পারে না। সেক্ষেত্রে একটা আলোচনা আছে যে, ফ্রিকোয়েন্সি কমিয়ে ট্রেন বাড়িয়ে সুবিধাটা বাড়ানো যায় কি না এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে মেট্রোরেল চালু করতে পারবো, কয়েক বছর আগেও এটা আমাদের কাছে স্বপ্নের মত ছিল। মেট্রো তো বাংলাদেশ রেলওয়ে না যখন তখন বগি বাড়ানো যাবে। যখন তখন একটা চেঞ্জ করা যাবে। পৃথিবীর কোনো দেশে মেট্রোর বগির সংখ্যা পাঁচের বেশি নয়। আমাদের এখানে অলরেডি ছয়টা কাজ করতেছে।
তিনি বলেন, এটা তো একটা টেকনোলজিক্যাল বিষয়। আমি অবাক হলাম, কোনো কোনো পত্রিকার সম্পাদকীয় লিখেছে যে, মেট্রোরেলের বগি আরও বাড়ানো হোক। এর বেশি বাড়ানোর আর কোনো সুযোগ নেই। ফ্রিকোয়েন্সিটা দুই মিনিট করে কমানোর একটা ব্যবস্থা হচ্ছে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের অন্যান্য মেট্রোরেল প্রকল্পের বিষয় বলেন, ফান্ড কমিয়ে প্ল্যান বিকৃত করতে আমরা চাইছি না।

রাজধানীর যানজট কমাতে এবং যাত্রী চলাচল দ্রুত করার এখন উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলাচল করছে মেট্রোরেল। প্রতি ১০ মিনিট পর পর ছাড়ে এটি। প্রতিদিন লাখ লাখ যাত্রী মেট্রোরেলে যাতায়াত করেন।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

মেট্রোরেলের যাত্রীদের জন্য সুখবর

Update Time : ০৪:৪৬:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

যাত্রী চাহিদা থাকলেও মেট্রোরেলের বগি আর না বাড়িয়ে ফ্রিকোয়েন্সির (বিরতি) সময় কমানোর একটা ব্যবস্থা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার ভি মান্টিটস্কির সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মেট্রোরেল যোগাযোগের ক্ষেত্রে একটা বড় সুবিধা এনে দিয়েছে। এখন মানুষের প্রচুর চাপ, অনেকে উঠতে পারে না। সেক্ষেত্রে একটা আলোচনা আছে যে, ফ্রিকোয়েন্সি কমিয়ে ট্রেন বাড়িয়ে সুবিধাটা বাড়ানো যায় কি না এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে মেট্রোরেল চালু করতে পারবো, কয়েক বছর আগেও এটা আমাদের কাছে স্বপ্নের মত ছিল। মেট্রো তো বাংলাদেশ রেলওয়ে না যখন তখন বগি বাড়ানো যাবে। যখন তখন একটা চেঞ্জ করা যাবে। পৃথিবীর কোনো দেশে মেট্রোর বগির সংখ্যা পাঁচের বেশি নয়। আমাদের এখানে অলরেডি ছয়টা কাজ করতেছে।
তিনি বলেন, এটা তো একটা টেকনোলজিক্যাল বিষয়। আমি অবাক হলাম, কোনো কোনো পত্রিকার সম্পাদকীয় লিখেছে যে, মেট্রোরেলের বগি আরও বাড়ানো হোক। এর বেশি বাড়ানোর আর কোনো সুযোগ নেই। ফ্রিকোয়েন্সিটা দুই মিনিট করে কমানোর একটা ব্যবস্থা হচ্ছে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের অন্যান্য মেট্রোরেল প্রকল্পের বিষয় বলেন, ফান্ড কমিয়ে প্ল্যান বিকৃত করতে আমরা চাইছি না।

রাজধানীর যানজট কমাতে এবং যাত্রী চলাচল দ্রুত করার এখন উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলাচল করছে মেট্রোরেল। প্রতি ১০ মিনিট পর পর ছাড়ে এটি। প্রতিদিন লাখ লাখ যাত্রী মেট্রোরেলে যাতায়াত করেন।