মাদারীপুরে করোনায় নতুন ৫১ জনসহ আক্রান্ত ৫৪৮

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৬:৩৯:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুন ২০২০
  • / ১৩৫ Time View

স্টাফ রিপোর্টার।।

মাদারীপুরে ‘রেড জোন’ এলাকাগুলোতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৫১ জন। এ নিয়ে জেলায় কোভিডে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৫৪৮। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৯ জন।

আজ শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. শফিকুল ইসলাম।

স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ২২৬টি নমুনার ফলাফল হাতে পায় স্বাস্থ্য বিভাগ। এর মধ্যে ৫১ জনের শরীরে ধরা পড়ে কোভিড-১৯। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ৩৫ জন, রাজৈরে ৭ জন, কালকিনিতে ৫ জন এবং শিবচর উপজেলায় ৪ জন রোগী রয়েছেন। নতুন ৫১ জন আক্রান্তসহ জেলায় মোট রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৪৮ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ১২ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলো ১৪৫ জন। জেলা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন আছেন ৩৪৩জন।

মাদারীপুরের সিভিল সার্জন ডা. শফিকুল ইসলাম বলেন, মোট ৪ হাজার ৬৫২টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। তার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ২২৬টিসহ মোট ৪ হাজার ১২৫টির নমুনার রিপোর্ট হাতে পাওয়া যায়। এর মধ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৫৪৮জন।

উল্লেখ্য, দেশে প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয় মাদারীপুর সদর উপজেলার কুনিয়া ইউনিয়নের আপাসী গ্রামে। পরে বেশ কয়েকজন রোগী শনাক্ত হয় শিবচর উপজেলায়। এরপরে দেশের বিভিন্ন জেলায় ধরা পড়ে অদৃশ্য শত্রু এই করোনা ভাইরাস। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বাড়ায় মাদারীপুরের ৪টি পৌরসভার ২০টি ওয়ার্ড ও জেলার ২২টি ইউনিয়নকে ‘রেড জান’ ঘোষণা করে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এদিকে এসব এলাকায় বিধি-নিষেধ আরোপ করে বুধবার জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেন। এতে বলা হয় বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) ভোর ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কাঁচাবাজার, ২টা পর্যন্ত নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান ও সার্বক্ষণিক ওষুধের দোকানসহ জরুরি সেবা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যা, আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত এই লকডাউন বহাল থাকবে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

মাদারীপুরে করোনায় নতুন ৫১ জনসহ আক্রান্ত ৫৪৮

Update Time : ০৬:৩৯:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুন ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার।।

মাদারীপুরে ‘রেড জোন’ এলাকাগুলোতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৫১ জন। এ নিয়ে জেলায় কোভিডে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৫৪৮। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৯ জন।

আজ শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. শফিকুল ইসলাম।

স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ২২৬টি নমুনার ফলাফল হাতে পায় স্বাস্থ্য বিভাগ। এর মধ্যে ৫১ জনের শরীরে ধরা পড়ে কোভিড-১৯। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ৩৫ জন, রাজৈরে ৭ জন, কালকিনিতে ৫ জন এবং শিবচর উপজেলায় ৪ জন রোগী রয়েছেন। নতুন ৫১ জন আক্রান্তসহ জেলায় মোট রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৪৮ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ১২ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলো ১৪৫ জন। জেলা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন আছেন ৩৪৩জন।

মাদারীপুরের সিভিল সার্জন ডা. শফিকুল ইসলাম বলেন, মোট ৪ হাজার ৬৫২টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। তার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ২২৬টিসহ মোট ৪ হাজার ১২৫টির নমুনার রিপোর্ট হাতে পাওয়া যায়। এর মধ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৫৪৮জন।

উল্লেখ্য, দেশে প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয় মাদারীপুর সদর উপজেলার কুনিয়া ইউনিয়নের আপাসী গ্রামে। পরে বেশ কয়েকজন রোগী শনাক্ত হয় শিবচর উপজেলায়। এরপরে দেশের বিভিন্ন জেলায় ধরা পড়ে অদৃশ্য শত্রু এই করোনা ভাইরাস। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বাড়ায় মাদারীপুরের ৪টি পৌরসভার ২০টি ওয়ার্ড ও জেলার ২২টি ইউনিয়নকে ‘রেড জান’ ঘোষণা করে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এদিকে এসব এলাকায় বিধি-নিষেধ আরোপ করে বুধবার জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেন। এতে বলা হয় বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) ভোর ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কাঁচাবাজার, ২টা পর্যন্ত নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান ও সার্বক্ষণিক ওষুধের দোকানসহ জরুরি সেবা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যা, আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত এই লকডাউন বহাল থাকবে।