মহারাষ্ট্রে ঘূর্ণিঝড় ‘নিসর্গের’ আঘাত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৬:১০:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুন ২০২০
  • / ১৭৭ Time View

ভারতের মহারাষ্ট্রে কিছুটা দুর্বল হয়ে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ। বুধবার (০৩ জুন) দুপুরে ঘণ্টায় ৯৩ কিলোমিটার গতিবেগে আলিবাগ উপকূলে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড়টি। প্রায় একশ’ বছরের মধ্যে কোনো ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানলেও হয়নি তেমন ক্ষয়ক্ষতি। তবে মুম্বাইয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জারি আছে সতর্কতা।

মুম্বাই থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে আলিবাগ উপকূলে বুধবার দুপুরে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ। প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হয় মহারাষ্ট্র-জুড়েই। ফুঁসতে দেখা গেছে সমুদ্র, প্রায় ৬ ফুট উচ্চতার ঢেউ দেখা গেছে কোথাও কোথাও। এতে রাজ্যের নিচু এলাকাগুলোতে ঢুকে পড়ে পানি।

মুম্বাইয়ের উপকূলীয় এলাকায় বিশেষ সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি রয়েছে। সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয় বিমান চলাচল।

ঘূর্ণিঝড়ের আগেই ৪০ হাজারের বেশি মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়। ক্ষয়ক্ষতি কমাতে মহারাষ্ট্র ও গুজরাটের উপকূলীয় এলাকায় শুরু থেকেই কাজ করছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ৪৩টি দল। ভারতে মহারাষ্ট্র রাজ্যেই করোনার প্রকট সব থেকে বেশি হওয়ায় স্বাস্থ্য সচেতনতা মেনে কাজ করতে হচ্ছে তাদের।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

মহারাষ্ট্রে ঘূর্ণিঝড় ‘নিসর্গের’ আঘাত

Update Time : ০৬:১০:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুন ২০২০

ভারতের মহারাষ্ট্রে কিছুটা দুর্বল হয়ে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ। বুধবার (০৩ জুন) দুপুরে ঘণ্টায় ৯৩ কিলোমিটার গতিবেগে আলিবাগ উপকূলে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড়টি। প্রায় একশ’ বছরের মধ্যে কোনো ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানলেও হয়নি তেমন ক্ষয়ক্ষতি। তবে মুম্বাইয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জারি আছে সতর্কতা।

মুম্বাই থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে আলিবাগ উপকূলে বুধবার দুপুরে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ। প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হয় মহারাষ্ট্র-জুড়েই। ফুঁসতে দেখা গেছে সমুদ্র, প্রায় ৬ ফুট উচ্চতার ঢেউ দেখা গেছে কোথাও কোথাও। এতে রাজ্যের নিচু এলাকাগুলোতে ঢুকে পড়ে পানি।

মুম্বাইয়ের উপকূলীয় এলাকায় বিশেষ সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি রয়েছে। সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয় বিমান চলাচল।

ঘূর্ণিঝড়ের আগেই ৪০ হাজারের বেশি মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়। ক্ষয়ক্ষতি কমাতে মহারাষ্ট্র ও গুজরাটের উপকূলীয় এলাকায় শুরু থেকেই কাজ করছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ৪৩টি দল। ভারতে মহারাষ্ট্র রাজ্যেই করোনার প্রকট সব থেকে বেশি হওয়ায় স্বাস্থ্য সচেতনতা মেনে কাজ করতে হচ্ছে তাদের।