মতলব উত্তরে ব্যবসায়ীর মাথায় আঘাত করে ছিনতাই, আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৭:৩৩:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৫৩ Time View

আল-আমিন ভূঁইয়া:

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের হাতি ঘাটা ক্যানেলের উপর এক ব্যবসায়ীর মাথায় আঘাত করে ছিনতাই। অবশেষে ছিনতাই কারী আটক। সরজমিনে জানা যায় হাতি ঘাটা গ্রামের মরহুম শুকুর আলী মাষ্টারের ছেলে মোঃ কবির হোসেন (৫১) তিনি সুজাতপুর বাজারে এজেন্ট ব্যাংকিং, বিকাশের দোকান দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করিয়া আসছে। প্রত্যেক দিনের ন্যায় গত ০২ ফ্রেরুয়ারী রাত আনুমানিক আটটায় তার ব্যবসা পরিচালনা করে বাড়ি ফিরছিলেন, তার বাড়ির কাছাকাছি টরকী হাতি ঘাটা সেচ ক্যানেলে আসলে দুই তিন জন লোক এসে ব্যবসায়ী হুমাইয়ূন কবিরের মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করে তার হাতে থাকা ব্যাগ নিয়ে ছিনতাই কারীরা চম্পট দেয়।

এ ব্যাপারে কবির ডাক চিৎকার দিলে আশেপাশের লোকজন জুটে এসে এক ছিনতাই কারী কে জনতা আটক করে ঘন পিটুনি দেয়ে বাড়িতে নিয়ে আটক করে রাখে। এ ঘটনা শুনে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুবকর ছিদ্দিক ঘটনাস্থল এসে ছিনতাই কারী কে হেফাজতে রেখে থানা পুলিশ কে খবর দিলে, থানা পুলিশের এসআই আবু হানিফ ও মোজাম্মেল হক সরজমিন তদন্ত করে ছিনতাই কারী কে থানা পুলিশের হেফাজতে নিয়ে যায়।

ঘটনাস্থল থেকে ছিনতাইকারীর জবান বন্ধী মোতাবেক ছিনতাইকারীর বক্তব্য অনুযায়ী ছিনতাইকারীর নাম মোঃ আলামিন (৩৫) পিতাঃ আউয়াল মোল্লা গ্রাম ছোট দূর্গাপুর, মতলব উত্তর, চাঁদপুর। তিনি আরও একজনের নাম উল্লেখ করেন ইয়াছিন, এছাড়া আর কোন ঠিকানা বলতে পারেন নাই, তিনি ছয়চাক্কার গাড়ি চালান বলে জানান, তিনি আরও জানান তার সাথের ইয়াছিন নামে যেই লোক তিনি ও নন্দলাল পুর ছয় চাক্কার গাড়িতে কাজ করেন বলে জানান। তার এলোমেলো বক্তব্যের কারনেই এলাকা বাসির ধারনা আটককৃত আলামিন একজন ছিনতাই কারী। তবে আলামিন পুলিশের কাছে বক্তব্য দেন সে ছিনতাইকারী নন, তাকে ইয়াছিন নামে ঐ লোক একটি অটোরিকশা যোগে হাতি ঘাটা টরকীতে আনেন।

হাতি ঘাটা টরকীর আব্দুল মান্নান বেপারীর ছেলে হেলাল বেপারী (৫৩) বলেন, তিনি নামাজ পরতে যাবেন, এসময় দেখে দুজন লোক দৌড় দিয়ে পালাচ্ছে আর এলাকা বাসি ডাকাত ডাকাত বলে ডাক চিৎকার দিচ্ছে। মানুষের চেচামেচির কারনে ছিনতাইকারী দূ,জন দৌড়ে ক্যানেলের পানিতে পরে যায়। এসময় হেলাল বেপারী আলামিন নামের এক ছিনতাইকারী কে আটক করেন। এদিকে ছিনতাই কারীর হাতে আহত হুমায়ুন কবির মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা ধীন আছেন।

ব্যবসায়ী হুমায়ুন কবির বলেন, তার ব্যাগ নিয়ে গেছেন ছিনতাই কারী চক্র, ব্যাগে প্রায় ৪/৫ লক্ষ্য টাকা টাকা ও ৬ টি মোবাইল ছিল, এগুলি নিয়ে ছিতাকারীর দল চম্পট দেয়। এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানান ব্যবসায়ী হুমায়ুন কবির। তবে এলাকা বাসি এ ঘটনার ব্যাপারে ডাকাতি বলে আখ্যায়িত করেছেন।

তবে মতলব উত্তর থানার ভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা সানোয়ার হোসেন খাঁন বলেন এ ঘটনার ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে, আলামিন নামে এক আটক আছে, আলামিনের জবান বন্ধী অনুযায়ী আরও দু,জন পলাতক আছে একজন ইয়াছিন ও অপরজন শাহপরান, এদেরকে পাগড়াও করার জন্য থানা পুলিশের টীম তন্য তন্য করে খুজছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

মতলব উত্তরে ব্যবসায়ীর মাথায় আঘাত করে ছিনতাই, আটক ১

Update Time : ০৭:৩৩:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আল-আমিন ভূঁইয়া:

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের হাতি ঘাটা ক্যানেলের উপর এক ব্যবসায়ীর মাথায় আঘাত করে ছিনতাই। অবশেষে ছিনতাই কারী আটক। সরজমিনে জানা যায় হাতি ঘাটা গ্রামের মরহুম শুকুর আলী মাষ্টারের ছেলে মোঃ কবির হোসেন (৫১) তিনি সুজাতপুর বাজারে এজেন্ট ব্যাংকিং, বিকাশের দোকান দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করিয়া আসছে। প্রত্যেক দিনের ন্যায় গত ০২ ফ্রেরুয়ারী রাত আনুমানিক আটটায় তার ব্যবসা পরিচালনা করে বাড়ি ফিরছিলেন, তার বাড়ির কাছাকাছি টরকী হাতি ঘাটা সেচ ক্যানেলে আসলে দুই তিন জন লোক এসে ব্যবসায়ী হুমাইয়ূন কবিরের মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করে তার হাতে থাকা ব্যাগ নিয়ে ছিনতাই কারীরা চম্পট দেয়।

এ ব্যাপারে কবির ডাক চিৎকার দিলে আশেপাশের লোকজন জুটে এসে এক ছিনতাই কারী কে জনতা আটক করে ঘন পিটুনি দেয়ে বাড়িতে নিয়ে আটক করে রাখে। এ ঘটনা শুনে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুবকর ছিদ্দিক ঘটনাস্থল এসে ছিনতাই কারী কে হেফাজতে রেখে থানা পুলিশ কে খবর দিলে, থানা পুলিশের এসআই আবু হানিফ ও মোজাম্মেল হক সরজমিন তদন্ত করে ছিনতাই কারী কে থানা পুলিশের হেফাজতে নিয়ে যায়।

ঘটনাস্থল থেকে ছিনতাইকারীর জবান বন্ধী মোতাবেক ছিনতাইকারীর বক্তব্য অনুযায়ী ছিনতাইকারীর নাম মোঃ আলামিন (৩৫) পিতাঃ আউয়াল মোল্লা গ্রাম ছোট দূর্গাপুর, মতলব উত্তর, চাঁদপুর। তিনি আরও একজনের নাম উল্লেখ করেন ইয়াছিন, এছাড়া আর কোন ঠিকানা বলতে পারেন নাই, তিনি ছয়চাক্কার গাড়ি চালান বলে জানান, তিনি আরও জানান তার সাথের ইয়াছিন নামে যেই লোক তিনি ও নন্দলাল পুর ছয় চাক্কার গাড়িতে কাজ করেন বলে জানান। তার এলোমেলো বক্তব্যের কারনেই এলাকা বাসির ধারনা আটককৃত আলামিন একজন ছিনতাই কারী। তবে আলামিন পুলিশের কাছে বক্তব্য দেন সে ছিনতাইকারী নন, তাকে ইয়াছিন নামে ঐ লোক একটি অটোরিকশা যোগে হাতি ঘাটা টরকীতে আনেন।

হাতি ঘাটা টরকীর আব্দুল মান্নান বেপারীর ছেলে হেলাল বেপারী (৫৩) বলেন, তিনি নামাজ পরতে যাবেন, এসময় দেখে দুজন লোক দৌড় দিয়ে পালাচ্ছে আর এলাকা বাসি ডাকাত ডাকাত বলে ডাক চিৎকার দিচ্ছে। মানুষের চেচামেচির কারনে ছিনতাইকারী দূ,জন দৌড়ে ক্যানেলের পানিতে পরে যায়। এসময় হেলাল বেপারী আলামিন নামের এক ছিনতাইকারী কে আটক করেন। এদিকে ছিনতাই কারীর হাতে আহত হুমায়ুন কবির মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা ধীন আছেন।

ব্যবসায়ী হুমায়ুন কবির বলেন, তার ব্যাগ নিয়ে গেছেন ছিনতাই কারী চক্র, ব্যাগে প্রায় ৪/৫ লক্ষ্য টাকা টাকা ও ৬ টি মোবাইল ছিল, এগুলি নিয়ে ছিতাকারীর দল চম্পট দেয়। এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানান ব্যবসায়ী হুমায়ুন কবির। তবে এলাকা বাসি এ ঘটনার ব্যাপারে ডাকাতি বলে আখ্যায়িত করেছেন।

তবে মতলব উত্তর থানার ভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা সানোয়ার হোসেন খাঁন বলেন এ ঘটনার ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে, আলামিন নামে এক আটক আছে, আলামিনের জবান বন্ধী অনুযায়ী আরও দু,জন পলাতক আছে একজন ইয়াছিন ও অপরজন শাহপরান, এদেরকে পাগড়াও করার জন্য থানা পুলিশের টীম তন্য তন্য করে খুজছে।