Homeখেলাধুলাবিপিএলে পাকিস্তানের ‘হ্যাটট্রিক’!

বিপিএলে পাকিস্তানের ‘হ্যাটট্রিক’!

স্পোর্টস ডেস্কঃ 

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ২০১২ সালে সেঞ্চুরি করেন আহমেদ শেহজাদ (১১৩)। এরপর কোথায় যেন হারিয়ে যান পাকিস্তানি ব্যাটাররা। এবারের বিপিএলে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন হলো তাদের। এক দশকের হাহাকার দূর করে আবারও পাকিস্তানি কোনো ব্যাটার পেয়েছেন সেঞ্চুরির দেখা।

তাও একট- দুটি নয়, এবারের আসরে এখন পর্যন্ত হওয়া তিনটি সেঞ্চুরির সবকটিই করেছেন পাকিস্তানিরা।

কয়েকদিন আগে চলতি বিপিএলের ঢাকা পর্বে একই ম্যাচে সেঞ্চুরি করেন দুই পাকিস্তানি ব্যাটার। প্রথমে খুলনা টাইগার্সের জার্সিতে আজম খান করেন ১০৯ রান। কিন্তু মঈন খান তনয়ার শতকটি বিফলে যায়।

আজমের শতক ম্লান করে সেঞ্চুরি তুলে নেন প্রতিপক্ষ দলের উসমান খান। তার ব্যাট থেকে আসে ১০৩ রান। উসমানের শতকে ভর করে রোমাঞ্চকর জয় তুলে নেয় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) রাতে চট্টগ্রাম পর্বে বিপিএল দেখেছে আসরের তৃতীয় সেঞ্চুরি। এবার তিন অংকের ম্যাজিক ফিগার ছুঁয়েছেন ফরচুন বরিশালের ইফতিখার আহমেদ।

৩২ বছর বয়সী এই পাকিস্তানি ব্যাটার রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে ৪৫ বলে ছয়টি চার ও নয়টি ছক্কায় কাঁটায় কাঁটায় ১০০ রান করেন। তিনিই হয়েছেন ম্যাচ সেরা। এই সেঞ্চুরি করার পথে বরিশাল অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের সঙ্গে ৮৬ বলে ১৯২ রানের জুটি গড়েন তিনি। যা পঞ্চম উইকেটে সর্বোচ্চ এবং সবমিলিয়ে বিপিএলের তৃতীয় সেরা জুটি।

এই জুটির ওপর দাঁড়িয়ে চার উইকেটে ২৩৮ রান করে বরিশাল। সাকিবরা ভাগ বসান চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ডেও। চার উইকেটে সর্বোচ্চ ২৩৯ রানের রেকর্ডটা অবশ্য রংপুর রাইডার্সের দখলে। অল্পের জন্য এ যাত্রায় টিকে গেল রংপুরের রেকর্ড রানের ইনিংসটা।

এদিকে, ১০ বছর ধরে বিপিএলে শতকের দেখা পাচ্ছিলেন না পাকিস্তানিরা। অথচ এই আসরে তিন শতকের সবকটিই তাদের দখলে। সবমিলিয়ে বিপিএলে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের সেঞ্চুরি হলো চারটি। বিস্ময়কর হচ্ছে- চারজনের প্রত্যেকেই ইনিংস শেষে অপরাজিত ছিলেন।

বিপিএলে সবচেয়ে বেশি ১৩টি সেঞ্চুরি আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটারদের। ব্যক্তিগতভাবে সর্বোচ্চ পাঁচটি সেঞ্চুরি আছে ক্যারিবীয় দানব ক্রিস গেইলের। এ ছাড়া বিপিএলে একাধিক সেঞ্চুরি আছে তার স্বদেশি আন্দ্রে ফ্লেচার, এভিন লুইসের।

ক্যারিবীয়দের বাইরে দুই সেঞ্চুরির উদাহরণ আছে বাংলাদেশের তামিম ইকবালের। সবমিলিয়ে টাইগারদের শতক সংখ্যা পাঁচটি।

RELATED ARTICLES

Most Popular