বাড্ডা থেকে বাবা-ছেলের মরদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০২:৪৭:৩১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / 46

রাজধানীর বাড্ডা থানার বেরাইদ এলাকার একটি বাসা থেকে বাবা ছেলের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন- গিয়াস উদ্দিন ও তার ছেলে রাকিব হোসেন। রাকিব পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রী ও তার বাবা স্কুল শিক্ষক।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির গুলশান বিভাগের বাড্ডা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাজন কুমার সাহা।

এর আগে রাত ৮টার দিকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এসি রাজন সাহা বলেন, স্থানীয়দের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাড্ডা থানার বেরাইদ জেনে পাড়া এলাকার একটি বাসা থেকে বাবা-ছেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, নিহত রাকিব হোসেন পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রি। তার মোবাইল ফোন বন্ধ পেয়ে বাসা ডাকতে যান এক মুদি দোকানী। কিন্তু বাসায় গিয়ে দরজা বন্ধ পেয়ে ডাকাডাকি করে কোন সাড়া না পেয়ে স্থানীয়রা মিলে দরজা ভাঙ্গেন।

রুমের ভেতরে গিয়ে স্থানীয়রা দেখতে পান রাকিবের বাবা পেশায় স্কুল শিক্ষক গিয়াসউদ্দিনের মরদেহ খাটের পড়ে আছে। পাশের রুমের ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে রাকিবের মরদেহ। পরবর্তীতে থানা পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়। পুলিশ গিয়ে বাসা থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

বাড্ডা থেকে বাবা-ছেলের মরদেহ উদ্ধার

Update Time : ০২:৪৭:৩১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাজধানীর বাড্ডা থানার বেরাইদ এলাকার একটি বাসা থেকে বাবা ছেলের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন- গিয়াস উদ্দিন ও তার ছেলে রাকিব হোসেন। রাকিব পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রী ও তার বাবা স্কুল শিক্ষক।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির গুলশান বিভাগের বাড্ডা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাজন কুমার সাহা।

এর আগে রাত ৮টার দিকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এসি রাজন সাহা বলেন, স্থানীয়দের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাড্ডা থানার বেরাইদ জেনে পাড়া এলাকার একটি বাসা থেকে বাবা-ছেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, নিহত রাকিব হোসেন পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রি। তার মোবাইল ফোন বন্ধ পেয়ে বাসা ডাকতে যান এক মুদি দোকানী। কিন্তু বাসায় গিয়ে দরজা বন্ধ পেয়ে ডাকাডাকি করে কোন সাড়া না পেয়ে স্থানীয়রা মিলে দরজা ভাঙ্গেন।

রুমের ভেতরে গিয়ে স্থানীয়রা দেখতে পান রাকিবের বাবা পেশায় স্কুল শিক্ষক গিয়াসউদ্দিনের মরদেহ খাটের পড়ে আছে। পাশের রুমের ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে রাকিবের মরদেহ। পরবর্তীতে থানা পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়। পুলিশ গিয়ে বাসা থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।