Homeতথ্য প্রযুক্তিবাজারে আসছে আইফোন ১৪

বাজারে আসছে আইফোন ১৪

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্কঃ

সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী মাসেই বাজারে আসতে পারে অ্যাপলের আইফোন ১৪।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আগামী ৯ সেপ্টেম্বর থেকে প্রি-অর্ডার গ্রহণ এবং ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে সরবরাহ শুরু হতে পারে। পাশপাশি নতুন ম্যাক, আইপ্যাড এবং ৩টি মডেলের অ্যাপল ওয়াচ লঞ্চ করতে পারে টেক জায়ান্ট অ্যাপল ইনকরপোরশেন।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে অনুসারে, অ্যাপলের খুচরা বিক্রয়কর্মীদের বলা হয়েছে, ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে বড় ধরনের নতুন একটি পণ্য রিলিজের জন্য প্রস্তুত হতে।’

আইফোন ১৪ সিরিজের মোড়ক উন্মোচনের অনুষ্ঠানটি অনলাইনে সম্প্রচার করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি সশরীরে উপস্থিত হওয়ার পরিবর্তে মহামারির সময় গৃহীত পন্থা অব্যাহত রাখতে চায়।

আইফোনের মোড়ক উন্মোচনের অনুষ্ঠানগুলো মূলত অত্যন্ত জাকজমকপূর্ণভাবে হয়ে থাকে। তা ছাড়া অ্যাপলের কর্মীরা ইতোমধ্যে উপস্থাপনার বিষয়গুলো রেকর্ড করা শুরু করেছেন বলেও জানা গেছে।

মূল অনুষ্ঠানের এখনো প্রায় ৩ সপ্তাহ বাকি, এ ক্ষেত্রে কোম্পানির পরিকল্পনায় পরিবর্তনও আসতে পারে তাই এ বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছেন অ্যাপলের একজন মুখপাত্র। তবে, প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসের প্রথমার্ধে অ্যাপল তাদের নতুন আইফোনের মোড়ক উন্মোচন করে।

স্ট্যান্ডার্ড আইফোন ১৪ দেখতে অনেকটা আইফোন ১৩-এর মতোই হবে। আইফোন ১৪ লাইনআপে ৪টি নতুন মডেল অন্তর্ভুক্ত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। মডেলগুলো হলো: আইফোন ১৪, আইফোন ১৪ ম্যাক্স, আইফোন ১৪ প্রো এবং আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স।

তবে, চলতি বছর আইফোন ১৪ সিরিজে ৫.৪-ইঞ্চির ‘মিনি’ সংস্করণটি থাকবে না। তার পরিবর্তে অ্যাপল ৬.১-ইঞ্চি স্ক্রিনসহ দুটি মডেল এবং ৬.৭-ইঞ্চি স্ক্রিনসহ দুটি মডেলের পরিকল্পনা করছে প্রতিষ্ঠানটি।

এ ছাড়া আইফোন ১৪ প্রো লাইনের জন্য বড় ধরনের পরিবর্তনের পরিকল্পনা করছে কোম্পানিটি। অ্যাপল সামনের দিকে ‘নচ’ নামে পরিচিত ক্যামেরা কাটআউটটি ফেস আইডি সেন্সরের জন্য পিল-আকৃতির গর্ত দিয়ে এবং ক্যামেরার জন্য একটি হোল-পাঞ্চ প্রতিস্থাপন করবে। যা ব্যবহারকারীদের একটু বেশি স্ক্রিন স্পেস দেবে।

এ ছাড়া আইফোন ১৪ প্রো-তে একটি ফাস্ট চিপ যুক্ত থাকতে। যেখানে অ্যাপল স্ট্যান্ডার্ড আইফোন ১৪ মডেলগুলোতে আইফোন ১৩-এর এ১৫ চিপগুলোই রাখবে।

আইফোন ১৪ প্রো-তে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আসতে পারে ক্যামেরা সিস্টেমে। প্রো মডেলগুলোতে ১২ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড এবং টেলিফটো সেন্সরগুলোর পাশাপাশি থাকবে একটি ৪৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা। এ ছাড়া অ্যাপল ভিডিও রেকর্ডিং এবং ব্যাটারি লাইফ উন্নতিরও পরিকল্পনা করছে।

অ্যাপলের আয়ের প্রধান উৎসই হচ্ছে আইফোন বিক্রি। গত বছরে অ্যাপলের মোট বিক্রির অর্ধেকেরও বেশি এসেছে আইফোন থেকে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular