বাজারে আয়ের ওপর দেওয়া করছাড় বাতিল করার পক্ষে আইএমএফ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১২:২৫:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪
  • / ৩০ Time View

সরকারকে প্রবাসী আয়ের ওপর দেওয়া কর সুবিধা প্রত্যাহারের পরামর্শ দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। একইসঙ্গে পুঁজিবাজার থেকে আয়ের ওপর দেওয়া করছাড়ও বাতিল করার পক্ষে আইএমএফ।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থাটির ঢাকায় সফররত প্রতিনিধি দল জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠককালে ‘ইনকাম ট্যাক্স এক্সপেনডিচার’ শীর্ষক তাদের মূল্যায়ন প্রতিবেদনে এ সুপারিশ করেছে।

দেশে দীর্ঘদিন ধরে চলছে ডলার সংকট। এমন পরিস্থিতির মধ্যে রেমিট্যান্স বাড়াতে তার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে।
এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে রেমিট্যান্সের ওপর পুরোপুরি কর অব্যাহতি রয়েছে। শুধু তাই নয়, প্রবাসী আয়ের ওপর আড়াই শতাংশ শতাংশ নগদ প্রণোদনাও দেওয়া হচ্ছে।

একইভাবে সরকারের বিভিন্ন ধরনের বন্ড, এমনকি শেয়ারবাজার থেকে আয়ের ওপর দেওয়া করছাড়ও বাতিল করার পক্ষে মত দিয়েছে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা আইএমএফ।

ব্যক্তি খাতের করদাতারা বর্তমানে বাড়িভাড়া ভাতা, চিকিৎসাসহ ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা বা মোট বেতনের এক-তৃতীয়াংশ কর অব্যাহতি পান। এই সুবিধাও বাতিল করার সুপারিশ করেছে আইএমএফ। এছাড়া সরকারি চাকরিজীবীদের দেওয়া বিভিন্ন ধরনের ভাতার ক্ষেত্রেও কর অব্যাহতি বাতিলের কথা বলেছে।

এছাড়া আইএমএফ সরকারি সিকিউরিটিজ, মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট, পাবলিকলি লিস্টেড সিকিউরিটিজ এবং সঞ্চয়পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কর অব্যাহতি বা ছাড় বাতিল করা বা কমিয়ে আনার কথা বলেছে।

গত বছরের শুরুতে বাংলাদেশকে ৪ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার ঋণ অনুমোদনকালে সংস্থাটি ৩০টির মতো শর্ত পরিপালনের শর্ত দেয়, যার মধ্যে কর ব্যয় যৌক্তিক করার কথাও বলা হয়েছে।

এ লক্ষ্যে এনবিআরও কর ব্যয় কমিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে, যার অংশ হিসেবে গত বছরই কিছু ভ্যাট ও কর সুবিধা কমানো হয়েছে। তবে বহু আগে থেকেই সরকার রেমিট্যান্সের ওপর কর আরোপ করেনি।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

বাজারে আয়ের ওপর দেওয়া করছাড় বাতিল করার পক্ষে আইএমএফ

Update Time : ১২:২৫:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪

সরকারকে প্রবাসী আয়ের ওপর দেওয়া কর সুবিধা প্রত্যাহারের পরামর্শ দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। একইসঙ্গে পুঁজিবাজার থেকে আয়ের ওপর দেওয়া করছাড়ও বাতিল করার পক্ষে আইএমএফ।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থাটির ঢাকায় সফররত প্রতিনিধি দল জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠককালে ‘ইনকাম ট্যাক্স এক্সপেনডিচার’ শীর্ষক তাদের মূল্যায়ন প্রতিবেদনে এ সুপারিশ করেছে।

দেশে দীর্ঘদিন ধরে চলছে ডলার সংকট। এমন পরিস্থিতির মধ্যে রেমিট্যান্স বাড়াতে তার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে।
এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে রেমিট্যান্সের ওপর পুরোপুরি কর অব্যাহতি রয়েছে। শুধু তাই নয়, প্রবাসী আয়ের ওপর আড়াই শতাংশ শতাংশ নগদ প্রণোদনাও দেওয়া হচ্ছে।

একইভাবে সরকারের বিভিন্ন ধরনের বন্ড, এমনকি শেয়ারবাজার থেকে আয়ের ওপর দেওয়া করছাড়ও বাতিল করার পক্ষে মত দিয়েছে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা আইএমএফ।

ব্যক্তি খাতের করদাতারা বর্তমানে বাড়িভাড়া ভাতা, চিকিৎসাসহ ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা বা মোট বেতনের এক-তৃতীয়াংশ কর অব্যাহতি পান। এই সুবিধাও বাতিল করার সুপারিশ করেছে আইএমএফ। এছাড়া সরকারি চাকরিজীবীদের দেওয়া বিভিন্ন ধরনের ভাতার ক্ষেত্রেও কর অব্যাহতি বাতিলের কথা বলেছে।

এছাড়া আইএমএফ সরকারি সিকিউরিটিজ, মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট, পাবলিকলি লিস্টেড সিকিউরিটিজ এবং সঞ্চয়পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কর অব্যাহতি বা ছাড় বাতিল করা বা কমিয়ে আনার কথা বলেছে।

গত বছরের শুরুতে বাংলাদেশকে ৪ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার ঋণ অনুমোদনকালে সংস্থাটি ৩০টির মতো শর্ত পরিপালনের শর্ত দেয়, যার মধ্যে কর ব্যয় যৌক্তিক করার কথাও বলা হয়েছে।

এ লক্ষ্যে এনবিআরও কর ব্যয় কমিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে, যার অংশ হিসেবে গত বছরই কিছু ভ্যাট ও কর সুবিধা কমানো হয়েছে। তবে বহু আগে থেকেই সরকার রেমিট্যান্সের ওপর কর আরোপ করেনি।