ফেব্রুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫৪৪

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৪:৫৪:৫৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৩ মার্চ ২০২৪
  • / ৩৪ Time View

গত ফেব্রুয়ারি মাসে দেশে ৫৮৩ সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৪৪ জন নিহত ও ৮৬৭ জন আহত হয়েছেন। নিহত মানুষের মধ্যে নারী ৭৯ জন, শিশু ৮২টি। রোড সেফটি ফাউন্ডেশন ৯টি জাতীয় দৈনিক, ৭টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও টিভি চ্যানেলের তথ্যের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে।

প্রতিবেদনটি আজ বুধবার প্রকাশ করে এ-সংক্রান্ত তথ্য গণমাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেব্রুয়ারিতে ১৮৭টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হন ২০৬ জন, যা মোট নিহত মানুষের ৩৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৩২ দশমিক শূন্য ৭।

দুর্ঘটনায় ১০৯ জন পথচারী নিহত হয়েছেন, যা মোট নিহত মানুষের ২০ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৭৪ জন, অর্থাৎ ১৩ দশমিক ৬০ শতাংশ।

একই সময়ে ৪টি নৌদুর্ঘটনায় ৬ জন নিহত ও ২ জন আহত হয়েছেন। ৩৪টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ২৮ জন নিহত ও ৬৬ জন আহত হয়েছেন।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, দুর্ঘটনায় যানবাহনভিত্তিক নিহত হওয়ার পরিসংখ্যানে দেখা যায়, মোটরসাইকেলচালক ও আরোহী ২০৬ জন, বাসযাত্রী ২৩ জন, ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান-পিকআপ-ট্রাক্টর-ট্রলি আরোহী ৪১ জন, প্রাইভেট কার-মাইক্রোবাস-অ্যাম্বুলেন্স আরোহী ১৬ জন, থ্রি-হুইলারের যাত্রী (অটোরিকশা-অটোভ্যান-ইজিবাইক-মিশুক) ১১১ জন, স্থানীয়ভাবে তৈরি যানবাহনের যাত্রী (নসিমন-ভটভটি-পাখি ভ্যান-মাহিন্দ্র-চান্দের গাড়ি-ইটভাঙা মেশিন গাড়ি) ২৪ জন ও বাইসাইকেল-প্যাডেল রিকশা-রিকশা ভ্যান আরোহী ১৪ জন নিহত হয়েছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ বলছে, দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ১৭৩টি জাতীয় মহাসড়কে, ২৩৪টি আঞ্চলিক সড়কে, ৯৩টি গ্রামীণ সড়কে, ৭২টি শহরের সড়কে ও অন্যান্য স্থানে ১১টি সংঘটিত হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুর্ঘটনাগুলোর ৯৭টি মুখোমুখি সংঘর্ষ, ২৭৮টি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে, ১১৩টি পথচারীকে চাপা ও ধাক্কা দেওয়া, ৮১টি যানবাহনের পেছনে আঘাত করা ও ১৪টি অন্যান্য কারণে ঘটেছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

ফেব্রুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫৪৪

Update Time : ০৪:৫৪:৫৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৩ মার্চ ২০২৪

গত ফেব্রুয়ারি মাসে দেশে ৫৮৩ সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৪৪ জন নিহত ও ৮৬৭ জন আহত হয়েছেন। নিহত মানুষের মধ্যে নারী ৭৯ জন, শিশু ৮২টি। রোড সেফটি ফাউন্ডেশন ৯টি জাতীয় দৈনিক, ৭টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও টিভি চ্যানেলের তথ্যের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে।

প্রতিবেদনটি আজ বুধবার প্রকাশ করে এ-সংক্রান্ত তথ্য গণমাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেব্রুয়ারিতে ১৮৭টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হন ২০৬ জন, যা মোট নিহত মানুষের ৩৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৩২ দশমিক শূন্য ৭।

দুর্ঘটনায় ১০৯ জন পথচারী নিহত হয়েছেন, যা মোট নিহত মানুষের ২০ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৭৪ জন, অর্থাৎ ১৩ দশমিক ৬০ শতাংশ।

একই সময়ে ৪টি নৌদুর্ঘটনায় ৬ জন নিহত ও ২ জন আহত হয়েছেন। ৩৪টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ২৮ জন নিহত ও ৬৬ জন আহত হয়েছেন।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, দুর্ঘটনায় যানবাহনভিত্তিক নিহত হওয়ার পরিসংখ্যানে দেখা যায়, মোটরসাইকেলচালক ও আরোহী ২০৬ জন, বাসযাত্রী ২৩ জন, ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান-পিকআপ-ট্রাক্টর-ট্রলি আরোহী ৪১ জন, প্রাইভেট কার-মাইক্রোবাস-অ্যাম্বুলেন্স আরোহী ১৬ জন, থ্রি-হুইলারের যাত্রী (অটোরিকশা-অটোভ্যান-ইজিবাইক-মিশুক) ১১১ জন, স্থানীয়ভাবে তৈরি যানবাহনের যাত্রী (নসিমন-ভটভটি-পাখি ভ্যান-মাহিন্দ্র-চান্দের গাড়ি-ইটভাঙা মেশিন গাড়ি) ২৪ জন ও বাইসাইকেল-প্যাডেল রিকশা-রিকশা ভ্যান আরোহী ১৪ জন নিহত হয়েছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ বলছে, দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ১৭৩টি জাতীয় মহাসড়কে, ২৩৪টি আঞ্চলিক সড়কে, ৯৩টি গ্রামীণ সড়কে, ৭২টি শহরের সড়কে ও অন্যান্য স্থানে ১১টি সংঘটিত হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুর্ঘটনাগুলোর ৯৭টি মুখোমুখি সংঘর্ষ, ২৭৮টি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে, ১১৩টি পথচারীকে চাপা ও ধাক্কা দেওয়া, ৮১টি যানবাহনের পেছনে আঘাত করা ও ১৪টি অন্যান্য কারণে ঘটেছে।