ফেনীতে ২২৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০১:২৮:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জুন ২০২০
  • / 279
রাশেদুল ইসলাম:
ফেনীতে নতুন করে আরও ৩২ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে একজন পৌরসভার কাউন্সিলর, স্বাস্থ্য কর্মচারী ও একই পরিবারের ১২ জন রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় কোভিড–১৯ রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২২৫।

শুক্রবার (৫ই জুন) বিকালে, সিভিল সার্জন ডা. মো. সাজ্জাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। স্বাস্থ্য বিভাগের সূত্র জানিয়েছে, আজ দুপুরে নোয়াখালীর আবদুল মালেক উকিল মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে ১১৩ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে ৩২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে দাগনভূঞা পৌরসভার একজন কাউন্সিলর, পৌরসভা এলাকার ইয়ারপুর ও আমানউল্যাহপুরে ৩ জন, ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের দেকরামপুর ও দুধমুখা বাজার এলাকায় ২ জন, জায়লস্কর ইউনিয়নের ছোট আহম্মদপুরে ১ জন, পূববর্চন্দ্রপুর ইউনিয়নের বৈঠারপাড়ে ১২ জন রয়েছেন।

পূর্বচন্দ্রপুরে আক্রান্ত ১২ জন একই পরিবারের সদস্য। ওই পরিবারে আগেও ৬ জন আক্রান্ত হয়ে হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এছাড়া সোনাগাজী উপজেলায় স্বাস্থ্য বিভাগের এক কর্মচারী, ফুলগাজী উপজেলার জিএমহাট ইউনিয়নের বশিকপুরে ১ জন ও সদর উপজেলায় ১১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২২৫ জনে।

শুক্রবার পর্যন্ত ২,১৯৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে প্রেরণ করা হলে আজ পর্যন্ত ১,৭৫৯ জনের প্রতিবেদন আসে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬৩ জন। এদের মধ্যে সদরে ২১ জন, সোনাগাজীতে ৮ জন, ছাগলনাইয়ায় ১৩ জন, দাগনভূঞায় ১০ জন, পরশুরামে ৭ জন ও ফুলগাজীতে ৪ জন। করোনা শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সদরের ৮২ জন, ছাগলনাইয়ায় ২৪ জন, দাগনভূঞায় ৭৭ জন, সোনাগাজীতে ২২ জন, ফুলগাজীতে ৮ জন ও পরশুরামে ৭ জন রয়েছেন। অপর ৫ জন পাশ্ববর্তী চট্টগ্রাম, মিরসরাই, চৌদ্দগ্রাম ও সেনবাগের বাসিন্দা ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নমুনা পরীক্ষা করে আক্রান্ত হয়েছেন।

একজনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে প্রেরণ করা হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ সদস্য, গনমাধ্যমকর্মীও রয়েছেন।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

ফেনীতে ২২৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত

Update Time : ০১:২৮:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জুন ২০২০
রাশেদুল ইসলাম:
ফেনীতে নতুন করে আরও ৩২ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে একজন পৌরসভার কাউন্সিলর, স্বাস্থ্য কর্মচারী ও একই পরিবারের ১২ জন রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় কোভিড–১৯ রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২২৫।

শুক্রবার (৫ই জুন) বিকালে, সিভিল সার্জন ডা. মো. সাজ্জাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। স্বাস্থ্য বিভাগের সূত্র জানিয়েছে, আজ দুপুরে নোয়াখালীর আবদুল মালেক উকিল মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে ১১৩ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে ৩২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে দাগনভূঞা পৌরসভার একজন কাউন্সিলর, পৌরসভা এলাকার ইয়ারপুর ও আমানউল্যাহপুরে ৩ জন, ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের দেকরামপুর ও দুধমুখা বাজার এলাকায় ২ জন, জায়লস্কর ইউনিয়নের ছোট আহম্মদপুরে ১ জন, পূববর্চন্দ্রপুর ইউনিয়নের বৈঠারপাড়ে ১২ জন রয়েছেন।

পূর্বচন্দ্রপুরে আক্রান্ত ১২ জন একই পরিবারের সদস্য। ওই পরিবারে আগেও ৬ জন আক্রান্ত হয়ে হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এছাড়া সোনাগাজী উপজেলায় স্বাস্থ্য বিভাগের এক কর্মচারী, ফুলগাজী উপজেলার জিএমহাট ইউনিয়নের বশিকপুরে ১ জন ও সদর উপজেলায় ১১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২২৫ জনে।

শুক্রবার পর্যন্ত ২,১৯৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে প্রেরণ করা হলে আজ পর্যন্ত ১,৭৫৯ জনের প্রতিবেদন আসে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬৩ জন। এদের মধ্যে সদরে ২১ জন, সোনাগাজীতে ৮ জন, ছাগলনাইয়ায় ১৩ জন, দাগনভূঞায় ১০ জন, পরশুরামে ৭ জন ও ফুলগাজীতে ৪ জন। করোনা শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সদরের ৮২ জন, ছাগলনাইয়ায় ২৪ জন, দাগনভূঞায় ৭৭ জন, সোনাগাজীতে ২২ জন, ফুলগাজীতে ৮ জন ও পরশুরামে ৭ জন রয়েছেন। অপর ৫ জন পাশ্ববর্তী চট্টগ্রাম, মিরসরাই, চৌদ্দগ্রাম ও সেনবাগের বাসিন্দা ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নমুনা পরীক্ষা করে আক্রান্ত হয়েছেন।

একজনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে প্রেরণ করা হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ সদস্য, গনমাধ্যমকর্মীও রয়েছেন।