প্রায় ৯ ঘণ্টা পর ডেমরায় গুদামে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১১:১৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪
  • / ২৫ Time View

প্রায় ৯ ঘণ্টা পর রাজধানীর ডেমরার ভাঙ্গা প্রেস এলাকায় একটি কাপড়ের গুদামে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে আগুন এখনও পুরোপুরি নেভেনি। পুরোপুরি নেভাতে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ও নৌবাহিনীর ২টি ইউনিট কাজ করছে।

শুক্রবার (২২ মার্চ) সকাল ৮টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার কথা জানায় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ। তবে, পানি স্বল্পতায় নির্বাপণ কাজ ব্যাহত হওয়ার কথা জানায় ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (উন্নয়ন ও প্রশিক্ষণ) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. রেজাউল করিম বলেন, আগুন আর বাইরে ছড়ানোর সম্ভাবনা নেই। তবে, সম্পূর্ণভাবে নেভাতে আরও সময় লাগতে পারে। কারণ হিসেবে তিনি জানান, ভবনটিতে কোনো বিকল্প এক্সিট পয়েন্ট নেই। ভবনটির অবকাঠামোগত ক্ষতির ঝুঁকিও আছে। এছাড়া ভেতরে দাহ্য পদার্থ ও খেলার সামগ্রী আছে। এছাড়াও ভবনটির আশপাশে পানির কোনো উৎস নেই। সিঁড়িগুলোও খুবই সংকীর্ণ। নিজস্ব কোনো ওয়াটার রিজার্ভারও নেই ভবনটিতে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ডেমরার ভাঙ্গা প্রেস এলাকার ওই গুদামে আগুন লাগে। খবর পেয়ে রাত পৌনে ১২টার দিকে ডেমরা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। পরে পোস্তগোলা, সিদ্দিকবাজার ও খিলগাঁও ফায়ার স্টেশনের আরও কয়েকটি ইউনিট যোগ দিয়ে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে।

তবে আগুন লাগার কারণ জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া, এ ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। আগুনে ক্ষয়ক্ষতির বিষয়েও এখন পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

প্রায় ৯ ঘণ্টা পর ডেমরায় গুদামে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

Update Time : ১১:১৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪

প্রায় ৯ ঘণ্টা পর রাজধানীর ডেমরার ভাঙ্গা প্রেস এলাকায় একটি কাপড়ের গুদামে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে আগুন এখনও পুরোপুরি নেভেনি। পুরোপুরি নেভাতে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ও নৌবাহিনীর ২টি ইউনিট কাজ করছে।

শুক্রবার (২২ মার্চ) সকাল ৮টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার কথা জানায় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ। তবে, পানি স্বল্পতায় নির্বাপণ কাজ ব্যাহত হওয়ার কথা জানায় ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (উন্নয়ন ও প্রশিক্ষণ) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. রেজাউল করিম বলেন, আগুন আর বাইরে ছড়ানোর সম্ভাবনা নেই। তবে, সম্পূর্ণভাবে নেভাতে আরও সময় লাগতে পারে। কারণ হিসেবে তিনি জানান, ভবনটিতে কোনো বিকল্প এক্সিট পয়েন্ট নেই। ভবনটির অবকাঠামোগত ক্ষতির ঝুঁকিও আছে। এছাড়া ভেতরে দাহ্য পদার্থ ও খেলার সামগ্রী আছে। এছাড়াও ভবনটির আশপাশে পানির কোনো উৎস নেই। সিঁড়িগুলোও খুবই সংকীর্ণ। নিজস্ব কোনো ওয়াটার রিজার্ভারও নেই ভবনটিতে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ডেমরার ভাঙ্গা প্রেস এলাকার ওই গুদামে আগুন লাগে। খবর পেয়ে রাত পৌনে ১২টার দিকে ডেমরা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। পরে পোস্তগোলা, সিদ্দিকবাজার ও খিলগাঁও ফায়ার স্টেশনের আরও কয়েকটি ইউনিট যোগ দিয়ে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে।

তবে আগুন লাগার কারণ জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া, এ ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। আগুনে ক্ষয়ক্ষতির বিষয়েও এখন পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি।