পাইকগাছা-কয়রার উন্নয়নে প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১১:২৭:৩০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ১৩০ Time View

প্রতিনিধি

এলাকার উন্নয়নে করনীয় নিয়ে ঢাকায় কর্মরত সরকারি এবং বেসরকারি বিভিন্ন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিয়ম করেছেন খুলনা-৬ (পাইকগাছা -কয়রা) আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য রশিদুজ্জামান। এসময় পাইকগাছা এবং কয়রা উপজেলার সার্বিক উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় করনীয় নিয়ে আলোচনা হয়। আলোচনায় গুরুত্ব পায় ওই অঞ্চলের শিক্ষা, চিকিৎসা, রাস্তাঘাট ও বেড়ীবাঁধের উন্নয়ন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ সচিবালয়ের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নব নির্বাচিত সংসদ সদস্য মো; রশীদুজ্জামান। এতে উপস্থিত ছিলেন সরকারের বাংলাদেশ সচিবালয়ে কর্মরত পাইকগাছা এবং কয়রা উপজেলার কর্মকর্তা-কর্মচারী, পুলিশে কর্মরত উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এবং বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরতরা।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা পাইকগাছা কয়রার বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেন। আলোচনায় শিক্ষা, চিকিৎসা , রাস্তাঘাট উন্নয়নে জোর দেন কর্মকর্তারা। এছাড়া নদী খনন এবং নদী ভাঙ্গন রোধে বেড়ীবাঁধের উন্নয়নেও জোর দেওয়া হয়। এসব ক্ষেত্রে যার যার জায়গা থেকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন তারা। এছাড়া পাইকগাছা কৃষি কলেজ নিয়ে চলমান সমস্যা সমাধানের বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়।

এসময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেন, এলাকার উন্নয়নে সবার আগে মনোযোগ দিতে হবে শিক্ষাখাতে ৷ শিক্ষা ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয়। এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিক্ষার্থীদের মান উন্নয়নে আমাদের সবাইকে অবদান রাখতে হবে। তারা যেন কোনো অবহেলার শিকার না হয় সে বিষয়ে আমাদের সার্বক্ষণিক তদারকি করতে হবে। আসছে বছরগুলোতে পাইকগাছা-কয়রা থেকে আরো শিক্ষার্থীরা যেন উচ্চশিক্ষার সুযোগ পায়, সে বিষয়ে তাদেরকে অনুপ্রেরণা দিতে হবে।

তিনি বলেন, যেসব ক্ষেত্রে দুই উপজেলার মানুষ পিছিয়ে রয়েছে সেগুলোর উন্নয়নে সম্মিলিতভাবে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। শিক্ষা সচিবের সাথে আলোচনা করে পাইকগাছা কৃষি কলেজ নিয়ে চলমান সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেওয়ার আশ্বাস দেন তপনকান্তি ঘোষ।

সভায় নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মো: রশীদুজ্জামান উপস্থিত সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং আগামীতে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে উপস্থিত সকলের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, এলাকার সার্বিক উন্নয়নে আমি সবসময়ই মনোযোগী ছিলাম। আগামীতেও এলাকাবাসীর সেবা করে যেতে চাই। এখানে যেসব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে সেগুলোর উন্নয়নে সবাই মিলে কাজ করতে হবে। তাহলেই এলাকার উন্নয়ন সম্ভব।

মতিবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) জয়দেব কুমার ভদ্র, ক্রীড়া পরিদপ্তরের পরিচালক আ ন ম তরিকুল ইসলাম, বিদ্যুৎ ও জ্বালানী মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শেখ মনিরুজ্জামান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো: আলম মোস্তফা, পুলিশের অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক সানা শামিমুর রহমানসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এবং প্রতিষ্ঠানে কর্মরত পাইকগাছা কয়রা উপজেলার কর্মকর্তারা।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

পাইকগাছা-কয়রার উন্নয়নে প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগ

Update Time : ১১:২৭:৩০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

প্রতিনিধি

এলাকার উন্নয়নে করনীয় নিয়ে ঢাকায় কর্মরত সরকারি এবং বেসরকারি বিভিন্ন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিয়ম করেছেন খুলনা-৬ (পাইকগাছা -কয়রা) আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য রশিদুজ্জামান। এসময় পাইকগাছা এবং কয়রা উপজেলার সার্বিক উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় করনীয় নিয়ে আলোচনা হয়। আলোচনায় গুরুত্ব পায় ওই অঞ্চলের শিক্ষা, চিকিৎসা, রাস্তাঘাট ও বেড়ীবাঁধের উন্নয়ন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ সচিবালয়ের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নব নির্বাচিত সংসদ সদস্য মো; রশীদুজ্জামান। এতে উপস্থিত ছিলেন সরকারের বাংলাদেশ সচিবালয়ে কর্মরত পাইকগাছা এবং কয়রা উপজেলার কর্মকর্তা-কর্মচারী, পুলিশে কর্মরত উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এবং বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরতরা।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা পাইকগাছা কয়রার বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেন। আলোচনায় শিক্ষা, চিকিৎসা , রাস্তাঘাট উন্নয়নে জোর দেন কর্মকর্তারা। এছাড়া নদী খনন এবং নদী ভাঙ্গন রোধে বেড়ীবাঁধের উন্নয়নেও জোর দেওয়া হয়। এসব ক্ষেত্রে যার যার জায়গা থেকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন তারা। এছাড়া পাইকগাছা কৃষি কলেজ নিয়ে চলমান সমস্যা সমাধানের বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়।

এসময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেন, এলাকার উন্নয়নে সবার আগে মনোযোগ দিতে হবে শিক্ষাখাতে ৷ শিক্ষা ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয়। এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিক্ষার্থীদের মান উন্নয়নে আমাদের সবাইকে অবদান রাখতে হবে। তারা যেন কোনো অবহেলার শিকার না হয় সে বিষয়ে আমাদের সার্বক্ষণিক তদারকি করতে হবে। আসছে বছরগুলোতে পাইকগাছা-কয়রা থেকে আরো শিক্ষার্থীরা যেন উচ্চশিক্ষার সুযোগ পায়, সে বিষয়ে তাদেরকে অনুপ্রেরণা দিতে হবে।

তিনি বলেন, যেসব ক্ষেত্রে দুই উপজেলার মানুষ পিছিয়ে রয়েছে সেগুলোর উন্নয়নে সম্মিলিতভাবে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। শিক্ষা সচিবের সাথে আলোচনা করে পাইকগাছা কৃষি কলেজ নিয়ে চলমান সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেওয়ার আশ্বাস দেন তপনকান্তি ঘোষ।

সভায় নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মো: রশীদুজ্জামান উপস্থিত সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং আগামীতে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে উপস্থিত সকলের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, এলাকার সার্বিক উন্নয়নে আমি সবসময়ই মনোযোগী ছিলাম। আগামীতেও এলাকাবাসীর সেবা করে যেতে চাই। এখানে যেসব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে সেগুলোর উন্নয়নে সবাই মিলে কাজ করতে হবে। তাহলেই এলাকার উন্নয়ন সম্ভব।

মতিবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) জয়দেব কুমার ভদ্র, ক্রীড়া পরিদপ্তরের পরিচালক আ ন ম তরিকুল ইসলাম, বিদ্যুৎ ও জ্বালানী মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শেখ মনিরুজ্জামান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো: আলম মোস্তফা, পুলিশের অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক সানা শামিমুর রহমানসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এবং প্রতিষ্ঠানে কর্মরত পাইকগাছা কয়রা উপজেলার কর্মকর্তারা।