নীলফামারীর ডিমলায় রাইস ট্রান্সপ্লান্ট দিয়ে বোরোধান রোপণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৫:২৮:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩
  • / ১৮৩ Time View

মশিয়ার রহমান, নীলফামারী প্রতিনিধি: 

নীলফামারীর ডিমলায় এবার আধুনিক পদ্ধতি অর্থাৎ রাইস ট্রান্সপ্লান্টার মেশিন দিয়ে বোরোধান রোপণ করা শুরু হয়েছে।
সোমবার দুপুরে ডিমলা উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে উপজেলার সদর ইউনিয়নের আবহাওয়া অফিসপাড়া এলাকার কৃষক লিখন ইসলামের জমিতে অত্যাধুনিক এই রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মেশিন দিয়ে বোরোধান রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. এসএম আবুবক্কর সাইফুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান নিরেন্দ্র নাথ রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়শা সিদ্দিকা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক সরকার মিন্টু প্রমুখ।
নতুন এই পদ্ধতিতে ধান রোপণ একনজর দেখার জন্য আশপাশের অনেক নারীপুরুষ এসেছিল।
এ পদ্ধতিতে চাষাবাদ করলে খরচ কমবে এবং ফলনও বাড়বে। এমন মন্তব্য করেন জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ। তিনি আরও বলেন, সমলয় চাষাবাদের উদ্দেশ্য হল কৃষকের মাঝে সমবায়ী মনোভাব তৈরি করা। এতে দেশের সমৃদ্ধি বাড়বে।
উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, উপজেলায় এই প্রথম রাইস ট্রান্সপ্লান্টের দিয়ে বোরোধান রোপণ করা হচ্ছে। উপজেলার ২৪ জন কৃষক একত্রিত হয়ে সমবায়ের ভিত্তিতে ২০২২-২৩ অর্থ বছরের সমলয় পদ্ধতিতে ১৫০ বিঘা জমিতে বোরো ধান লাগাবেন। প্রথম পর্যায়ে কৃষকদের কোন খরচ লাগবে না। ধানবীজসহ যাবতীয় খরচ কৃষি বিভাগ বহন করছে।
কৃষকরা জানান, এই পদ্ধতিতে চাষাবাদে আমরা বিভিন্নভাবে লাভবান হতে পারি। শ্রমিক কম লাগে, অর্থ কম লাগবে, স্বল্প সময়ে বেশি জমিতে রোপণ করা যায়।
এই পদ্ধতি আমাদের জানা ছিল না, তবে উপজেলা কৃষি অফিস থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছি।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সেকেন্দার আলী জানান, সমলয় চাষাবাদে অত্র এলাকার কৃষকদের আমরা উদ্বুদ্ধ করতেছি। তারা বুঝতে পেরেছে এবং এই পদ্ধতিতে চাষাবাদে আগ্রহ প্রকাশ করছে। কৃষি প্রণোদনার আওতায় এবার ২৪ জন কৃষককে এই সুবিধা দিচ্ছি।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

নীলফামারীর ডিমলায় রাইস ট্রান্সপ্লান্ট দিয়ে বোরোধান রোপণ

Update Time : ০৫:২৮:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩

মশিয়ার রহমান, নীলফামারী প্রতিনিধি: 

নীলফামারীর ডিমলায় এবার আধুনিক পদ্ধতি অর্থাৎ রাইস ট্রান্সপ্লান্টার মেশিন দিয়ে বোরোধান রোপণ করা শুরু হয়েছে।
সোমবার দুপুরে ডিমলা উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে উপজেলার সদর ইউনিয়নের আবহাওয়া অফিসপাড়া এলাকার কৃষক লিখন ইসলামের জমিতে অত্যাধুনিক এই রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মেশিন দিয়ে বোরোধান রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. এসএম আবুবক্কর সাইফুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান নিরেন্দ্র নাথ রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়শা সিদ্দিকা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক সরকার মিন্টু প্রমুখ।
নতুন এই পদ্ধতিতে ধান রোপণ একনজর দেখার জন্য আশপাশের অনেক নারীপুরুষ এসেছিল।
এ পদ্ধতিতে চাষাবাদ করলে খরচ কমবে এবং ফলনও বাড়বে। এমন মন্তব্য করেন জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ। তিনি আরও বলেন, সমলয় চাষাবাদের উদ্দেশ্য হল কৃষকের মাঝে সমবায়ী মনোভাব তৈরি করা। এতে দেশের সমৃদ্ধি বাড়বে।
উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, উপজেলায় এই প্রথম রাইস ট্রান্সপ্লান্টের দিয়ে বোরোধান রোপণ করা হচ্ছে। উপজেলার ২৪ জন কৃষক একত্রিত হয়ে সমবায়ের ভিত্তিতে ২০২২-২৩ অর্থ বছরের সমলয় পদ্ধতিতে ১৫০ বিঘা জমিতে বোরো ধান লাগাবেন। প্রথম পর্যায়ে কৃষকদের কোন খরচ লাগবে না। ধানবীজসহ যাবতীয় খরচ কৃষি বিভাগ বহন করছে।
কৃষকরা জানান, এই পদ্ধতিতে চাষাবাদে আমরা বিভিন্নভাবে লাভবান হতে পারি। শ্রমিক কম লাগে, অর্থ কম লাগবে, স্বল্প সময়ে বেশি জমিতে রোপণ করা যায়।
এই পদ্ধতি আমাদের জানা ছিল না, তবে উপজেলা কৃষি অফিস থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছি।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সেকেন্দার আলী জানান, সমলয় চাষাবাদে অত্র এলাকার কৃষকদের আমরা উদ্বুদ্ধ করতেছি। তারা বুঝতে পেরেছে এবং এই পদ্ধতিতে চাষাবাদে আগ্রহ প্রকাশ করছে। কৃষি প্রণোদনার আওতায় এবার ২৪ জন কৃষককে এই সুবিধা দিচ্ছি।