নীলফামারীতে জাল টাকাসহ গ্রেপ্তার ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৬:১০:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুন ২০২০
  • / ১১৫ Time View
মশিয়ার রহমান, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি:
কোরবানীর ঈদ বাজারকে সামনে রেখে লাখ লাখ টাকার জাল নোট বাজারে ছাড়ার চেষ্টা করছে একটি চক্র। আরো নোট ছাড়ার জন্য বেশ কয়েকটি চক্র সক্রিয় বলে তথ্য পাওয়া গেছে। এমন তথ্যে নীলফামারীর ডোমার থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার হয়েছে জাল টাকা চক্রের ৫ সদস্য।
.
এ সময় তাদের কাছে উদ্ধার করা হয় প্রায় ৪ লাখ টাকার জাল নোট। আজ বুধবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান। বুধবার দুপুরে গ্রেফতাকৃতরা নীলফামারী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবাববন্দী প্রদান করে।
.
পুলিশ সুপার আরো জানান, জাল টাকার চক্রটি শুধু নীলফামারীতে নয়। তারা রংপুর বিভাগের বিভিন্নস্থানে আস্তানা গেড়েছে। তারা জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছে আসল ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে তারা এক লাখ টাকার জাল নোট বিক্রি সঙ্গে জড়িত। এ ঘটনায় ডোমার থানায় ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫এ(বি) ধারায় গতকাল মঙ্গলবার একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং ১২, তারিখ ২৩ জুন ২০২০।
.
মামলা সুত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকালে ওই চক্রের এক সদস্য সাদ্দাম নীলফামারীর ডোমার উপজেলার বাজারে একটি এক হাজার টাকা জাল নোট খুচরা করতে গিয়ে বচসায় জড়িয়ে পড়ে। এসময় আশপাশের লোকজন এসে সাদ্দামকে আটক করে।
.
খবর পেয়ে ডোমার সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জয়ব্রত পাল, ডোমার থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান ,এসআই জহিরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে উক্ত সাদ্দামকে আটক করে থানায় নেয়। সেখানে আটক ব্যাক্তির নিকট থেকে আরো দুইটি এক হাজার টাকার জাল নোট পাওয়া যায়।
.
এরপর ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছে তথ্য পেয়ে রাতেই পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় ডোমার থানা পুলিশ দ্রুত রওনা দেয় দিনাজপুর জেলা শহরে। দিনাজপুর থানা পুলিশের সহায়তায় পুলিশের দলটি দিনাজপুর শহরের চকবাজার লেনস্থ মৃগয়া আবাসিক হোটেলের ৬০৩ নম্বর কক্ষে অভিযান চালিয়ে অপর চারজনকে আটক করে। এ সময় তাদের নিকট থেকে বিভিন্ন সিরিজের ৩৮৫টি এক হাজার টাকার জাল নোট, একটি ৫০০ টাকা ও একটি একশত টাকা সহ সর্বমোট তিন লাখ ৮৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল নোট এবং ৭টি মোবাইল ফোন উদ্ধারের মাধ্যমে জব্দ করে।
.
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, টাঙ্গাইলের কাতলী তরবগঞ্জ এলাকার আসামী সাদ্দাম (২৫), ময়মনসিংহ জেলার গলফা গ্রামের মো: সামছুল (২৯), একই জেলার স্বল্প-পশ্চিম পাড়া এলাকার সফিকুল ইসলাম (২৪), ঢাকার দক্ষিন যাত্রাবাড়ি এলাকার মাসুম মিয়া (২৮), মাদারীপুর জেলার ছয়না গ্রামের সাইদুল খাঁ।
.
ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান জানান, গ্রেফতারকৃতরা আন্তঃজেলা চোরাকারবারী দলের সদস্য। তারা ঢাকা হতে ৩০ হাজার টাকায় ১লক্ষ টাকা সংগ্রহ করে। বিভিন্ন হাট-বাজারের ভিরের মধ্যে তারা জাল টাকা ভাঙিয়ে আসল টাকা সংগ্রহ করে। তারা আসন্ন কুরবানী ঈদে এই টাকা সারাদেশে ছড়িয়ে দেওয়ার কথা স্বিকার করে।
Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

নীলফামারীতে জাল টাকাসহ গ্রেপ্তার ৫

Update Time : ০৬:১০:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুন ২০২০
মশিয়ার রহমান, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি:
কোরবানীর ঈদ বাজারকে সামনে রেখে লাখ লাখ টাকার জাল নোট বাজারে ছাড়ার চেষ্টা করছে একটি চক্র। আরো নোট ছাড়ার জন্য বেশ কয়েকটি চক্র সক্রিয় বলে তথ্য পাওয়া গেছে। এমন তথ্যে নীলফামারীর ডোমার থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার হয়েছে জাল টাকা চক্রের ৫ সদস্য।
.
এ সময় তাদের কাছে উদ্ধার করা হয় প্রায় ৪ লাখ টাকার জাল নোট। আজ বুধবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান। বুধবার দুপুরে গ্রেফতাকৃতরা নীলফামারী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবাববন্দী প্রদান করে।
.
পুলিশ সুপার আরো জানান, জাল টাকার চক্রটি শুধু নীলফামারীতে নয়। তারা রংপুর বিভাগের বিভিন্নস্থানে আস্তানা গেড়েছে। তারা জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছে আসল ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে তারা এক লাখ টাকার জাল নোট বিক্রি সঙ্গে জড়িত। এ ঘটনায় ডোমার থানায় ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫এ(বি) ধারায় গতকাল মঙ্গলবার একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং ১২, তারিখ ২৩ জুন ২০২০।
.
মামলা সুত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকালে ওই চক্রের এক সদস্য সাদ্দাম নীলফামারীর ডোমার উপজেলার বাজারে একটি এক হাজার টাকা জাল নোট খুচরা করতে গিয়ে বচসায় জড়িয়ে পড়ে। এসময় আশপাশের লোকজন এসে সাদ্দামকে আটক করে।
.
খবর পেয়ে ডোমার সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জয়ব্রত পাল, ডোমার থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান ,এসআই জহিরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে উক্ত সাদ্দামকে আটক করে থানায় নেয়। সেখানে আটক ব্যাক্তির নিকট থেকে আরো দুইটি এক হাজার টাকার জাল নোট পাওয়া যায়।
.
এরপর ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছে তথ্য পেয়ে রাতেই পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় ডোমার থানা পুলিশ দ্রুত রওনা দেয় দিনাজপুর জেলা শহরে। দিনাজপুর থানা পুলিশের সহায়তায় পুলিশের দলটি দিনাজপুর শহরের চকবাজার লেনস্থ মৃগয়া আবাসিক হোটেলের ৬০৩ নম্বর কক্ষে অভিযান চালিয়ে অপর চারজনকে আটক করে। এ সময় তাদের নিকট থেকে বিভিন্ন সিরিজের ৩৮৫টি এক হাজার টাকার জাল নোট, একটি ৫০০ টাকা ও একটি একশত টাকা সহ সর্বমোট তিন লাখ ৮৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল নোট এবং ৭টি মোবাইল ফোন উদ্ধারের মাধ্যমে জব্দ করে।
.
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, টাঙ্গাইলের কাতলী তরবগঞ্জ এলাকার আসামী সাদ্দাম (২৫), ময়মনসিংহ জেলার গলফা গ্রামের মো: সামছুল (২৯), একই জেলার স্বল্প-পশ্চিম পাড়া এলাকার সফিকুল ইসলাম (২৪), ঢাকার দক্ষিন যাত্রাবাড়ি এলাকার মাসুম মিয়া (২৮), মাদারীপুর জেলার ছয়না গ্রামের সাইদুল খাঁ।
.
ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান জানান, গ্রেফতারকৃতরা আন্তঃজেলা চোরাকারবারী দলের সদস্য। তারা ঢাকা হতে ৩০ হাজার টাকায় ১লক্ষ টাকা সংগ্রহ করে। বিভিন্ন হাট-বাজারের ভিরের মধ্যে তারা জাল টাকা ভাঙিয়ে আসল টাকা সংগ্রহ করে। তারা আসন্ন কুরবানী ঈদে এই টাকা সারাদেশে ছড়িয়ে দেওয়ার কথা স্বিকার করে।