নিউমার্কেট এলাকায় জলাবদ্ধতা, যা জানাল ডিএনসিসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৭:২৯:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
  • / 17

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে রাজধানীতেও হালকা থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ফলে রাজধানীর নিউ মার্কেটসহ বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ। তবে নিউমার্কেট এলাকায় জলাবদ্ধতার কারণ হিসেবে কয়েকটি তথ্য দিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।

ডিএনসিসি জানায়, নিউমার্কেট এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসনে ২০২৩ সালের ১০ জুলাই বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ, রাজউক, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন, ওয়াসাসহ সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সঙ্গে ডিএনসিসি’র মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের সভাপতিত্বে নগর ভবনে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে কয়েকটি কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়। সেগুলো হলো-

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর সঙ্গে যৌথ সমন্বয়ে বিজিবি এলাকার অভ্যন্তরে পরিদর্শন করা হয়। সে আলোকে বিজিবি অভ্যন্তরে ও নিউমার্কেটের জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে প্রাক্কলন প্রস্তুত করে অনুমোদন নেয়া হয়েছে। সেখানে নতুন নর্দমা সংযোগ প্রতিষ্ঠায় বর্তমানে দরপত্র কার্যক্রম চলমান। এছাড়া নায়েম রোডের জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রাক্কলন প্রস্তুতির জন্য মাঠ পর্যায়ে অঞ্চলের প্রকৌশল বিভাগ কর্তৃক জরিপ কাজ চলমান রয়েছে।

একইসঙ্গে নিউ মার্কেট ও গ্রীন রোড এলাকাসহ কয়েকটি এলাকায় জলাবদ্ধতার আশঙ্কা করে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বেশ কয়েকবার গণমাধ্যমে কথা বলেছেন।

গত ১৯ মে দায়িত্বভার গ্রহণের ৪ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মেয়র বলেন, সরকারের অন্যান্য সংস্থার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন চলমান থাকায়, কমলাপুর ও গ্রীন রোড় এলাকা, পুরান ঢাকা এবং শহরের গুটিকয়েক এলাকা ছাড়া অন্য কোথাও জলাবদ্ধতা হয় না। যেসব এলাকায় জলাবদ্ধতা হয়, সেসব এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসনে আমরা উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। ইনশাআল্লাহ, অচিরেই সেসব স্থানেও জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধান হবে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

নিউমার্কেট এলাকায় জলাবদ্ধতা, যা জানাল ডিএনসিসি

Update Time : ০৭:২৯:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে রাজধানীতেও হালকা থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ফলে রাজধানীর নিউ মার্কেটসহ বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ। তবে নিউমার্কেট এলাকায় জলাবদ্ধতার কারণ হিসেবে কয়েকটি তথ্য দিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।

ডিএনসিসি জানায়, নিউমার্কেট এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসনে ২০২৩ সালের ১০ জুলাই বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ, রাজউক, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন, ওয়াসাসহ সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সঙ্গে ডিএনসিসি’র মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের সভাপতিত্বে নগর ভবনে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে কয়েকটি কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়। সেগুলো হলো-

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর সঙ্গে যৌথ সমন্বয়ে বিজিবি এলাকার অভ্যন্তরে পরিদর্শন করা হয়। সে আলোকে বিজিবি অভ্যন্তরে ও নিউমার্কেটের জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে প্রাক্কলন প্রস্তুত করে অনুমোদন নেয়া হয়েছে। সেখানে নতুন নর্দমা সংযোগ প্রতিষ্ঠায় বর্তমানে দরপত্র কার্যক্রম চলমান। এছাড়া নায়েম রোডের জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রাক্কলন প্রস্তুতির জন্য মাঠ পর্যায়ে অঞ্চলের প্রকৌশল বিভাগ কর্তৃক জরিপ কাজ চলমান রয়েছে।

একইসঙ্গে নিউ মার্কেট ও গ্রীন রোড এলাকাসহ কয়েকটি এলাকায় জলাবদ্ধতার আশঙ্কা করে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বেশ কয়েকবার গণমাধ্যমে কথা বলেছেন।

গত ১৯ মে দায়িত্বভার গ্রহণের ৪ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মেয়র বলেন, সরকারের অন্যান্য সংস্থার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন চলমান থাকায়, কমলাপুর ও গ্রীন রোড় এলাকা, পুরান ঢাকা এবং শহরের গুটিকয়েক এলাকা ছাড়া অন্য কোথাও জলাবদ্ধতা হয় না। যেসব এলাকায় জলাবদ্ধতা হয়, সেসব এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসনে আমরা উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। ইনশাআল্লাহ, অচিরেই সেসব স্থানেও জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধান হবে।