দুই দিনের সফরে চীনে পৌঁছেছেন পুতিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০২:২৬:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪
  • / ২০ Time View

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে চীনে পৌঁছেছেন। স্থানীয় সময় আজ বৃহস্পতিবার (১৬ মে) চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে পৌঁছান তিনি।

পঞ্চম দফায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেয়ার পর পুতিনের এটাই প্রথম বিদেশ সফর। সফরকালে পুতিন চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন। দুই দেশের সম্পর্কের ৭৫তম বার্ষিকী উদ্‌যাপন করবেন তারা। খবর বিবিসির।

পুতিনের বেইজিংয়ে পৌঁছানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে চীনের রাষ্ট্রীয় প্রচারমাধ্যম শিনহুয়া নিউজ এজেন্সি। চীনের বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে পুতিনকে ‘পুরোনো বন্ধু’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা রাশিয়াকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন সি চিন পিং। এ পরিস্থিতিতে চীন-রাশিয়ার দুই নেতার বৈঠকের দিকে তীক্ষ্ণ নজর রাখছে পশ্চিমা বিশ্ব।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে আকস্মিক হামলা চালায় রাশিয়া। এর কয়েকদিন আগেই পুতিন এবং শি জিনপিং রাশিয়া ও চীনের মধ্যে একটি ‘সীমাহীন অংশীদারিত্বের ঘোষণা করেন। ২০২৩ সালের মার্চে শি জিনপিং মস্কো সফর করেন। সে সময় তিনি দেশগুলোর মধ্যে সম্পর্কের একটি ‘নতুন যুগ’ বর্ণনা করেছিলেন।

চীনে সফরের আগে ৭১ বছর বয়সী পুতিন বলেন, পঞ্চম মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার পর বিদেশ সফরের জন্য তিনি প্রথম দেশ হিসেবে চীনকে বেছে নিয়েছেন। এর মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে ‘অভূতপূর্ব উচ্চ স্তরের কৌশলগত অংশীদারিত্ব’ এবং পুতিন ও ৭১ বছর বয়সী শি জিনপিংয়ের গভীর সম্পর্ককে নির্দেশ করছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

দুই দিনের সফরে চীনে পৌঁছেছেন পুতিন

Update Time : ০২:২৬:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে চীনে পৌঁছেছেন। স্থানীয় সময় আজ বৃহস্পতিবার (১৬ মে) চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে পৌঁছান তিনি।

পঞ্চম দফায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেয়ার পর পুতিনের এটাই প্রথম বিদেশ সফর। সফরকালে পুতিন চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন। দুই দেশের সম্পর্কের ৭৫তম বার্ষিকী উদ্‌যাপন করবেন তারা। খবর বিবিসির।

পুতিনের বেইজিংয়ে পৌঁছানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে চীনের রাষ্ট্রীয় প্রচারমাধ্যম শিনহুয়া নিউজ এজেন্সি। চীনের বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে পুতিনকে ‘পুরোনো বন্ধু’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা রাশিয়াকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন সি চিন পিং। এ পরিস্থিতিতে চীন-রাশিয়ার দুই নেতার বৈঠকের দিকে তীক্ষ্ণ নজর রাখছে পশ্চিমা বিশ্ব।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে আকস্মিক হামলা চালায় রাশিয়া। এর কয়েকদিন আগেই পুতিন এবং শি জিনপিং রাশিয়া ও চীনের মধ্যে একটি ‘সীমাহীন অংশীদারিত্বের ঘোষণা করেন। ২০২৩ সালের মার্চে শি জিনপিং মস্কো সফর করেন। সে সময় তিনি দেশগুলোর মধ্যে সম্পর্কের একটি ‘নতুন যুগ’ বর্ণনা করেছিলেন।

চীনে সফরের আগে ৭১ বছর বয়সী পুতিন বলেন, পঞ্চম মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার পর বিদেশ সফরের জন্য তিনি প্রথম দেশ হিসেবে চীনকে বেছে নিয়েছেন। এর মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে ‘অভূতপূর্ব উচ্চ স্তরের কৌশলগত অংশীদারিত্ব’ এবং পুতিন ও ৭১ বছর বয়সী শি জিনপিংয়ের গভীর সম্পর্ককে নির্দেশ করছে।