তিন প্রকল্পের উদ্বোধন দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার বহিঃপ্রকাশ: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০২:৪০:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০২৩
  • / ১৩৮ Time View

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‌‘তিন প্রকল্পের উদ্বোধন দুই দেশের (বাংলাদেশ ও ভারত) অনন্য সাধারণ বন্ধুত্ব এবং পারস্পরিক সহযোগিতার বহিঃপ্রকাশ।’

বুধবার (১ নভেম্বর) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আখাউড়া-আগরতলা ও খুলনা-মোংলা রেলপথ এবং রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘উদ্বোধন হওয়া উন্নয়ন প্রকল্পগুলো উভয় দেশের জনগণের সমৃদ্ধি নিশ্চিত করবে। এছাড়া আঞ্চলিক যোগাযোগ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এজন্য আমি নরেন্দ্র মেদিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

বাংলাদেশ-ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় এ কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিগত বছরগুলোতে আমরা দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন করেছি। বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ খাতে আমাদের অর্জন দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত লাভ করেছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘পদ্মা সেতু দুই দেশের যোগাযোগের পাশাপাশি, আঞ্চলিক যোগাযোগের ক্ষেত্রেও বড় ভূমিকা রাখছে। সাম্প্রতিক সময়ে আমরা দুই দেশের সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টার মাধ্যমে অনেক সফলতা অর্জন করেছি। ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা নিশ্চিতকরণ। চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারের মাধ্যমে ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলে যোগাযোগ সহজীকরণ করা হয়েছে।’

এ সময় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দ্বীপান্বিতা তিথি উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ ভারতবাসীকে শুভেচ্ছা জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

তিন প্রকল্পের উদ্বোধন দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার বহিঃপ্রকাশ: প্রধানমন্ত্রী

Update Time : ০২:৪০:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০২৩

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‌‘তিন প্রকল্পের উদ্বোধন দুই দেশের (বাংলাদেশ ও ভারত) অনন্য সাধারণ বন্ধুত্ব এবং পারস্পরিক সহযোগিতার বহিঃপ্রকাশ।’

বুধবার (১ নভেম্বর) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আখাউড়া-আগরতলা ও খুলনা-মোংলা রেলপথ এবং রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘উদ্বোধন হওয়া উন্নয়ন প্রকল্পগুলো উভয় দেশের জনগণের সমৃদ্ধি নিশ্চিত করবে। এছাড়া আঞ্চলিক যোগাযোগ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এজন্য আমি নরেন্দ্র মেদিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

বাংলাদেশ-ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় এ কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিগত বছরগুলোতে আমরা দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন করেছি। বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ খাতে আমাদের অর্জন দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত লাভ করেছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘পদ্মা সেতু দুই দেশের যোগাযোগের পাশাপাশি, আঞ্চলিক যোগাযোগের ক্ষেত্রেও বড় ভূমিকা রাখছে। সাম্প্রতিক সময়ে আমরা দুই দেশের সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টার মাধ্যমে অনেক সফলতা অর্জন করেছি। ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা নিশ্চিতকরণ। চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারের মাধ্যমে ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলে যোগাযোগ সহজীকরণ করা হয়েছে।’

এ সময় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দ্বীপান্বিতা তিথি উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ ভারতবাসীকে শুভেচ্ছা জানান তিনি।