ঢাবি শিক্ষক সমিতির এক বিজ্ঞপ্তিতে ৩৩ ভুল!

  • Update Time : ০১:০১:৪৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪
  • / 61

গত ১৩ মার্চ অর্থ মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারিকৃত পেনশনসংক্রান্ত (প্রত্যয় স্কিম) ‘বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন’ প্রত্যাহারের দাবিতে সর্বাত্মক কর্মসূচি সংবলিত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

রোববার (৩০ জুন) সংগঠনটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা স্বাক্ষরিত এই বিজ্ঞপ্তিতে ৩৩টি বানান ভুল হওয়ার মতো ঘটনা ঘটেছে।

শুদ্ধ বানান চর্চা (শুবাচ) নামে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকভিত্তিক গ্রুপে মোহাম্মদ আমিন নামে এক এডমিন ঢাবি শিক্ষক সমিতির বিজ্ঞপ্তিটি বিশ্লেষণ করে একটি স্ট্যাটাস দেন। এতে তিনি বিজ্ঞপ্তিটিতে উল্লিখিত ভুল বানানের শব্দগুলো বাছাই করে তার পাশে ব্যাখ্যাসহ সংশোধিত শব্দ লিখেছেন।

আমিন তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি’র বাংলা বানান : এক বিজ্ঞপ্তি, তেত্রিশ ভুল

শুদ্ধিকরণ :

১৬ আষাঢ়>১৬ই আষাঢ় [বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানের পরিশিষ্ট ‘গ’-এ বাংলা তারিখ ও সময় লেখার নিয়ম বিধৃত। এখানে বিশেষ দ্রষ্টব্যে বলা হয়েছে: ‘অ্যাক বৈশাখ, অ্যাগারো জ্যৈষ্ঠ, শোলো ডিসেম্বর, পোঁচিশ বৈশাখ প্রভৃতি উচ্চারণ অশুদ্ধ। শুদ্ধ ও মান্য রীতি: পয়লা বৈশাখ, অ্যাগারোই জ্যৈষ্ঠ, শোলোই ডিসেম্বর, পোঁচিশে বৈশাখ প্রভৃতি।]

৩০ জুন>৩০শে জুন [প্রাগুক্ত]

১ জুলাই> ১লা জুলাই [প্রাগুক্ত]

নিবেন> নেবেন

স্কিম সংক্রান্ত> স্কিমসংক্রান্ত [‘-সংক্রান্ত’ সর্বদা সংশ্লিষ্ট শব্দের পর সেঁটে বসে। দেখুন: বাআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১২৬৪]

দাবীতে> দাবিতে [ দাবি+তে= দাবিতে। ‘দাবি’ আরবি উৎসের শব্দ। বিদেশি উৎসের শব্দের বাংলা বানানে ঈ-কার পরিহার্য।]

১ জুলাই> ১লা জুলাই [প্রাগুক্ত]

নিম্নরূপ;> নিম্নরূপ:/ নিম্নরূপ —

ক্লাশ> ক্লাস

অনলাইন> অনলাইন ক্লাস [ ‘অনলাইন’ নয়; অনলাইন ক্লাস। অন্যগুলোর সঙ্গে ‘ক্লাস’ লেখা হয়েছে।]

সান্ধ্যকালীন> সান্ধ্য/সন্ধ্যাকালীন [‘সান্ধ্য’ শব্দের অর্থ সন্ধ্যাকালীন। সুতরাং, ‘সান্ধ্যকালীন’ কথাটি ভুল ও বাহুল্য। ]

ক্লাশ> ক্লাস

কোর্সের ক্লাশ> কোর্সের ক্লাস

কোন> কোনো [ ‘কোন’ যখন সর্বনাম হিসেবে ব্যবহৃত হয় তখন এর অর্থ- কী, কে, কোনটি ( কোন দিন, কোনটি চাই, কোন জন)। ক্রিয়াবিশেষণ হিসেবে অর্থ- কী প্রকারে, কীভাবে, কীসে (তুমিই বা কোন ভালো শুটার)। এটি কোনও বা কোনও শব্দের সমার্থক নয়। ‘কোনো’ অর্থ- অনির্দিষ্ট বা অনির্ধারিত একজন লোক বিষয় বা বস্তু, কে বা কী (কোনো বিষয়), বহুর মধ্যে একটি বা একজন।]

একাডেমিক> অ্যাকাডেমিক [বাংলা উচ্চারণে রোমান a-বর্ণের /æ/ উচ্চারণরূপের বাংলা প্রতিবর্ণ হলো অ্যা। রোমান ‘a’-এর প্রতিবর্ণীকরণ বর্ণপদ্ধতিতে হয় না, ধ্বনিপদ্ধতিতে হয়। ইংরেজি বা ইংরেজির মাধ্যমে আগত বিদেশি শব্দের উচ্চারণে যদি /æ/ ধ্বনি থাকে তাহলে বাংলা বানানে অ্যা বা এ্যা-কার হবে।]

নবীন বরণ> নবীনবরণ [স. নবীন+বরণ]।

গ্রহন> গ্রহণ [ণত্ববিধিমতে ‘ণ’ অপরিহার্য।]

কোন> কোনো [প্রাগুক্ত]

ইন্সস্টিটিউটের> ইনস্টিটিউটের/ইন্সটিটিউটের [Institute]

ইন্সস্টিটিউটের অফিস> ইনস্টিটিউটের অফিস/ইন্সটিটিউটের অফিস

ক্লাশ> ক্লাস

সান্ধ্যকালীন> সান্ধ্য/সন্ধ্যাকালীন

ক্লাশ> ক্লাস

কোন> কোনো [প্রাগুক্ত]

লাইব্রেরী> লাইব্রেরি [বিদেশি শব্দের বাংলা বানানে ঈ-কার পরিহার্য।]

সারথী> সারথি [সারথি= √সৃ+ণিচ্‌+অথি। বানানে ঈ-কার হওয়ার সুযোগ নেই।]

ম্যানডেট> ম্যান্ডেট

স্বায়ত্বশাসনে> স্বায়ত্তশাসনে [স্ব+আয়ত্ত+শাসন= স্বায়ত্তশাসন।]

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের> বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের/বিশ্ববিদ্যালয়-শিক্ষকদের

অর্ন্তভূক্তি> অন্তর্ভুক্তি [‘ভুক্তি’ বানানে ঊ-কার পরিহার্য।]

অর্ন্তভূক্তি> অন্তর্ভুক্তীকরণ [ আন্দোলনকারীগণ অন্তর্ভুক্ত হননি, তাঁদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এজন্য আন্দোলন।]

অন্তর্ভূক্তির> অন্তর্ভুক্তির [প্রাগুক্ত]

দাবী> দাবি [‘দাবি’ আরবি উৎসের শব্দ। বিদেশি উৎসের শব্দের বাংলা বানানে ঈ-কার পরিহার্য।]

সহায়ক গ্রন্থ:

বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধান।

বাঙ্গালা ভাষার অভিধান, জ্ঞানেন্দ্রমোহন দাস।

চলন্তিকা: আধুনিক বঙ্গভাষার অভিধান, রাজশেখর বসু।

বঙ্গীয় শব্দকোষ, হরিশচরণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা বলেন, বানান ভুল বলে আসলে কিছু নেই। এগুলো আন্দোলনকে বিভ্রান্ত করার পায়তারামাত্র। তবে দুই-একটা টাইপিং মিসটেক হতে পারে। আর এখন বানান ভুল নিয়ে আমাদের মাথা ঘামানোর সময় নেই। আমরা এখন জটিল একটা আন্দোলনের দিকে যাচ্ছি। কিন্তু কিছু লোক বসে আছে, যাদের চিন্তাভাবনা হল- কীভাবে আন্দোলনটাকে বানচাল করা যায়।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

ঢাবি শিক্ষক সমিতির এক বিজ্ঞপ্তিতে ৩৩ ভুল!

Update Time : ০১:০১:৪৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

গত ১৩ মার্চ অর্থ মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারিকৃত পেনশনসংক্রান্ত (প্রত্যয় স্কিম) ‘বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন’ প্রত্যাহারের দাবিতে সর্বাত্মক কর্মসূচি সংবলিত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

রোববার (৩০ জুন) সংগঠনটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা স্বাক্ষরিত এই বিজ্ঞপ্তিতে ৩৩টি বানান ভুল হওয়ার মতো ঘটনা ঘটেছে।

শুদ্ধ বানান চর্চা (শুবাচ) নামে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকভিত্তিক গ্রুপে মোহাম্মদ আমিন নামে এক এডমিন ঢাবি শিক্ষক সমিতির বিজ্ঞপ্তিটি বিশ্লেষণ করে একটি স্ট্যাটাস দেন। এতে তিনি বিজ্ঞপ্তিটিতে উল্লিখিত ভুল বানানের শব্দগুলো বাছাই করে তার পাশে ব্যাখ্যাসহ সংশোধিত শব্দ লিখেছেন।

আমিন তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি’র বাংলা বানান : এক বিজ্ঞপ্তি, তেত্রিশ ভুল

শুদ্ধিকরণ :

১৬ আষাঢ়>১৬ই আষাঢ় [বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানের পরিশিষ্ট ‘গ’-এ বাংলা তারিখ ও সময় লেখার নিয়ম বিধৃত। এখানে বিশেষ দ্রষ্টব্যে বলা হয়েছে: ‘অ্যাক বৈশাখ, অ্যাগারো জ্যৈষ্ঠ, শোলো ডিসেম্বর, পোঁচিশ বৈশাখ প্রভৃতি উচ্চারণ অশুদ্ধ। শুদ্ধ ও মান্য রীতি: পয়লা বৈশাখ, অ্যাগারোই জ্যৈষ্ঠ, শোলোই ডিসেম্বর, পোঁচিশে বৈশাখ প্রভৃতি।]

৩০ জুন>৩০শে জুন [প্রাগুক্ত]

১ জুলাই> ১লা জুলাই [প্রাগুক্ত]

নিবেন> নেবেন

স্কিম সংক্রান্ত> স্কিমসংক্রান্ত [‘-সংক্রান্ত’ সর্বদা সংশ্লিষ্ট শব্দের পর সেঁটে বসে। দেখুন: বাআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১২৬৪]

দাবীতে> দাবিতে [ দাবি+তে= দাবিতে। ‘দাবি’ আরবি উৎসের শব্দ। বিদেশি উৎসের শব্দের বাংলা বানানে ঈ-কার পরিহার্য।]

১ জুলাই> ১লা জুলাই [প্রাগুক্ত]

নিম্নরূপ;> নিম্নরূপ:/ নিম্নরূপ —

ক্লাশ> ক্লাস

অনলাইন> অনলাইন ক্লাস [ ‘অনলাইন’ নয়; অনলাইন ক্লাস। অন্যগুলোর সঙ্গে ‘ক্লাস’ লেখা হয়েছে।]

সান্ধ্যকালীন> সান্ধ্য/সন্ধ্যাকালীন [‘সান্ধ্য’ শব্দের অর্থ সন্ধ্যাকালীন। সুতরাং, ‘সান্ধ্যকালীন’ কথাটি ভুল ও বাহুল্য। ]

ক্লাশ> ক্লাস

কোর্সের ক্লাশ> কোর্সের ক্লাস

কোন> কোনো [ ‘কোন’ যখন সর্বনাম হিসেবে ব্যবহৃত হয় তখন এর অর্থ- কী, কে, কোনটি ( কোন দিন, কোনটি চাই, কোন জন)। ক্রিয়াবিশেষণ হিসেবে অর্থ- কী প্রকারে, কীভাবে, কীসে (তুমিই বা কোন ভালো শুটার)। এটি কোনও বা কোনও শব্দের সমার্থক নয়। ‘কোনো’ অর্থ- অনির্দিষ্ট বা অনির্ধারিত একজন লোক বিষয় বা বস্তু, কে বা কী (কোনো বিষয়), বহুর মধ্যে একটি বা একজন।]

একাডেমিক> অ্যাকাডেমিক [বাংলা উচ্চারণে রোমান a-বর্ণের /æ/ উচ্চারণরূপের বাংলা প্রতিবর্ণ হলো অ্যা। রোমান ‘a’-এর প্রতিবর্ণীকরণ বর্ণপদ্ধতিতে হয় না, ধ্বনিপদ্ধতিতে হয়। ইংরেজি বা ইংরেজির মাধ্যমে আগত বিদেশি শব্দের উচ্চারণে যদি /æ/ ধ্বনি থাকে তাহলে বাংলা বানানে অ্যা বা এ্যা-কার হবে।]

নবীন বরণ> নবীনবরণ [স. নবীন+বরণ]।

গ্রহন> গ্রহণ [ণত্ববিধিমতে ‘ণ’ অপরিহার্য।]

কোন> কোনো [প্রাগুক্ত]

ইন্সস্টিটিউটের> ইনস্টিটিউটের/ইন্সটিটিউটের [Institute]

ইন্সস্টিটিউটের অফিস> ইনস্টিটিউটের অফিস/ইন্সটিটিউটের অফিস

ক্লাশ> ক্লাস

সান্ধ্যকালীন> সান্ধ্য/সন্ধ্যাকালীন

ক্লাশ> ক্লাস

কোন> কোনো [প্রাগুক্ত]

লাইব্রেরী> লাইব্রেরি [বিদেশি শব্দের বাংলা বানানে ঈ-কার পরিহার্য।]

সারথী> সারথি [সারথি= √সৃ+ণিচ্‌+অথি। বানানে ঈ-কার হওয়ার সুযোগ নেই।]

ম্যানডেট> ম্যান্ডেট

স্বায়ত্বশাসনে> স্বায়ত্তশাসনে [স্ব+আয়ত্ত+শাসন= স্বায়ত্তশাসন।]

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের> বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের/বিশ্ববিদ্যালয়-শিক্ষকদের

অর্ন্তভূক্তি> অন্তর্ভুক্তি [‘ভুক্তি’ বানানে ঊ-কার পরিহার্য।]

অর্ন্তভূক্তি> অন্তর্ভুক্তীকরণ [ আন্দোলনকারীগণ অন্তর্ভুক্ত হননি, তাঁদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এজন্য আন্দোলন।]

অন্তর্ভূক্তির> অন্তর্ভুক্তির [প্রাগুক্ত]

দাবী> দাবি [‘দাবি’ আরবি উৎসের শব্দ। বিদেশি উৎসের শব্দের বাংলা বানানে ঈ-কার পরিহার্য।]

সহায়ক গ্রন্থ:

বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধান।

বাঙ্গালা ভাষার অভিধান, জ্ঞানেন্দ্রমোহন দাস।

চলন্তিকা: আধুনিক বঙ্গভাষার অভিধান, রাজশেখর বসু।

বঙ্গীয় শব্দকোষ, হরিশচরণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা বলেন, বানান ভুল বলে আসলে কিছু নেই। এগুলো আন্দোলনকে বিভ্রান্ত করার পায়তারামাত্র। তবে দুই-একটা টাইপিং মিসটেক হতে পারে। আর এখন বানান ভুল নিয়ে আমাদের মাথা ঘামানোর সময় নেই। আমরা এখন জটিল একটা আন্দোলনের দিকে যাচ্ছি। কিন্তু কিছু লোক বসে আছে, যাদের চিন্তাভাবনা হল- কীভাবে আন্দোলনটাকে বানচাল করা যায়।