ঢাবিতে চার দিনব্যাপী ‘জাতীয় ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন-২০২৪’ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৩:৪৬:৩৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪
  • / 21

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছায়া জাতিসংঘ সংগঠনের (ডিইউমুনা) চার দিনব্যাপী একাদশ তম অধিবেশন ‘জাতীয় ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন-২০২৪’ (ডানমান-২০২৪) শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন অধিবেশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠান হয়। আগামী রোববার (২ জুন) পর্যন্ত এ অধিবেশন চলবে।

এবারের অধিবেশনের মহাসচিব এস এম নাহিয়ান ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল। দেশ ও দেশের বাইরের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আসা পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।

এবারের অধিবেশনের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়- ‘সংঘাতের ঊর্ধ্বে স্থায়িত্ব ন্যায্য শান্তি প্রতিষ্ঠায় সম্মিলিত উদ্যোগ’। গত বছরের মতো এবারও ডিইউমুনা কর্তৃক প্রণয়ন করা হয়েছে একটি ইকুইটি পলিসি, যার মূল উদ্দেশ্য প্রতিনিধি ও পরিচালনা পর্ষদের নিরাপত্তা ও সুষ্ঠু পরিচালনা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা। এটি সম্পূর্ণ অধিবেশনে একটি ন্যায়সঙ্গত পরিবেশ নিশ্চিতকরণে ভূমিকা রাখবে। ২০২২ সালে প্রথম চালু করা হয় এ ইকুইটি পলিসি।

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ও জটিল বৈশ্বিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা, বিতর্ক ও সমাধান প্রণয়নের উদ্দেশে এ বছর মোট ১১টি কমিটি নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে তরুণ শিক্ষার্থীরা তাদের কূটনৈতিক ও যোগাযোগ দক্ষতা এবং উপস্থিত বক্তৃতার মতো গুণ বিকাশ করতে পারবেন। এ বছর ৫টি নতুন কমিটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। নতুন কমিটিগুলো হলো- আফ্রিকান ইউনিয়ন (এইউ), ইউনাইটেড নেশনস অফিস ফর ডিজাস্টার রিস্ক রিডাকশন (ইউএনডিআরআর), কমিটি অন দ্য পিসফুল ইউজেস অব আউটার স্পেস (সিওপিইউওএস), উত্তর আটলান্টিক চুক্তি সংগঠন মিলিটারি কমিটি এবং ব্রিকস প্লাস সামিট।

ব্রিকস প্লাস সামিটে বাংলাদেশের ছায়া জাতিসংঘ সার্কিটে প্রথমবারের মতো এসেছে ডাবল ডেলিগেশন। এছাড়াও এবার বিশেষভাবে বেশ কয়েকটি কমিটিতে দুটি করে আলোচ্যসূচি নিয়ে আলোচনা করা হবে। ২০১২ সাল থেকে অত্যন্ত সুষ্ঠুভাবে শিক্ষামূলক এ কার্যক্রমের আয়োজন করে আসছে ডিইউমুনা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাবি উপাচার্য ড. মাকসুদ কামাল বলেন, আমাদের অবশ্যই টেকসই উন্নয়নমূলক কাজের চর্চা করতে হবে এবং তা প্রচারের উপায় খুঁজে বের করতে হবে।

সম্মেলনের মহাসচিব এস এম নাহিয়ান ইসলাম বলেন, আমরা একাত্মতার সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের পাশে আছি এবং ডানমান-২০২৪ এর প্রতিপাদ্যটি ন্যায়বিচারের প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতির একটি উদাহরণ। অংশগ্রহণকারীরা তাদের স্বতঃস্ফূর্ততা ও পেশাদারত্ব প্রকাশের মাধ্যমে সম্মেলনটিকে প্রাণবন্ত ও সফল করে তুলবে বলে আমরা আশাবাদী।

অধিবেশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার, ডিইউমুনার মডারেটর ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেইন, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. ডেভিড ডোল্যান্ড এবং ডিইউমুনার সাবেক সভাপতি এম জে সোহেল প্রমুখ।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

ঢাবিতে চার দিনব্যাপী ‘জাতীয় ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন-২০২৪’ শুরু

Update Time : ০৩:৪৬:৩৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছায়া জাতিসংঘ সংগঠনের (ডিইউমুনা) চার দিনব্যাপী একাদশ তম অধিবেশন ‘জাতীয় ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন-২০২৪’ (ডানমান-২০২৪) শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন অধিবেশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠান হয়। আগামী রোববার (২ জুন) পর্যন্ত এ অধিবেশন চলবে।

এবারের অধিবেশনের মহাসচিব এস এম নাহিয়ান ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল। দেশ ও দেশের বাইরের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আসা পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।

এবারের অধিবেশনের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়- ‘সংঘাতের ঊর্ধ্বে স্থায়িত্ব ন্যায্য শান্তি প্রতিষ্ঠায় সম্মিলিত উদ্যোগ’। গত বছরের মতো এবারও ডিইউমুনা কর্তৃক প্রণয়ন করা হয়েছে একটি ইকুইটি পলিসি, যার মূল উদ্দেশ্য প্রতিনিধি ও পরিচালনা পর্ষদের নিরাপত্তা ও সুষ্ঠু পরিচালনা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা। এটি সম্পূর্ণ অধিবেশনে একটি ন্যায়সঙ্গত পরিবেশ নিশ্চিতকরণে ভূমিকা রাখবে। ২০২২ সালে প্রথম চালু করা হয় এ ইকুইটি পলিসি।

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ও জটিল বৈশ্বিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা, বিতর্ক ও সমাধান প্রণয়নের উদ্দেশে এ বছর মোট ১১টি কমিটি নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে তরুণ শিক্ষার্থীরা তাদের কূটনৈতিক ও যোগাযোগ দক্ষতা এবং উপস্থিত বক্তৃতার মতো গুণ বিকাশ করতে পারবেন। এ বছর ৫টি নতুন কমিটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। নতুন কমিটিগুলো হলো- আফ্রিকান ইউনিয়ন (এইউ), ইউনাইটেড নেশনস অফিস ফর ডিজাস্টার রিস্ক রিডাকশন (ইউএনডিআরআর), কমিটি অন দ্য পিসফুল ইউজেস অব আউটার স্পেস (সিওপিইউওএস), উত্তর আটলান্টিক চুক্তি সংগঠন মিলিটারি কমিটি এবং ব্রিকস প্লাস সামিট।

ব্রিকস প্লাস সামিটে বাংলাদেশের ছায়া জাতিসংঘ সার্কিটে প্রথমবারের মতো এসেছে ডাবল ডেলিগেশন। এছাড়াও এবার বিশেষভাবে বেশ কয়েকটি কমিটিতে দুটি করে আলোচ্যসূচি নিয়ে আলোচনা করা হবে। ২০১২ সাল থেকে অত্যন্ত সুষ্ঠুভাবে শিক্ষামূলক এ কার্যক্রমের আয়োজন করে আসছে ডিইউমুনা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাবি উপাচার্য ড. মাকসুদ কামাল বলেন, আমাদের অবশ্যই টেকসই উন্নয়নমূলক কাজের চর্চা করতে হবে এবং তা প্রচারের উপায় খুঁজে বের করতে হবে।

সম্মেলনের মহাসচিব এস এম নাহিয়ান ইসলাম বলেন, আমরা একাত্মতার সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের পাশে আছি এবং ডানমান-২০২৪ এর প্রতিপাদ্যটি ন্যায়বিচারের প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতির একটি উদাহরণ। অংশগ্রহণকারীরা তাদের স্বতঃস্ফূর্ততা ও পেশাদারত্ব প্রকাশের মাধ্যমে সম্মেলনটিকে প্রাণবন্ত ও সফল করে তুলবে বলে আমরা আশাবাদী।

অধিবেশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার, ডিইউমুনার মডারেটর ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেইন, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. ডেভিড ডোল্যান্ড এবং ডিইউমুনার সাবেক সভাপতি এম জে সোহেল প্রমুখ।