ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিস্কৃত হলো প্রলয় গ্যাংয়ের ৪ সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৬:০৮:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩
  • / ৯৭ Time View

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আলোচিত প্রলয় গ্যাংয়ের চার সদস্যকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) কর্তৃপক্ষ।

সোমবার(২০ নভেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে শৃঙ্খলা পরিষদের সভায় এ বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের উপপরিচালক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রলয় গ্যাং বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও এর আশেপাশে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিল। সবশেষ গত ৮ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মীর আলভী আরসলানকে নির্যাতনের অভিযোগে গ্যাংয়ের চার সদস্যকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হলো।

পরে ৯ নভেম্বর আলভী আরসলানের মা বাদী হয়ে বহিষ্কৃত এই চারজনসহ পাঁচ শিক্ষার্থীকে আসামি করে শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেন। এ ছাড়া মামলায় অজ্ঞাতনামা ৮-১০ জনকে আসামি করা হয়।

বহিস্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন তবারক মিয়া (শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগ), মুরসালিন ফাইয়াজ (অর্গ্যানাইজেশন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড লিডারশিপ বিভাগ), ফয়সাল আহমেদ সাকিব (অর্গ্যানাইজেশন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড লিডারশিপ বিভাগ) এবং জুবায়ের ইবনে হুমায়ুন (অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগ)।

এ ঘটনায় ‘বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাদের কেন স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না’ মর্মে ৭ কার্য দিবসের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের স্বাক্ষরিত উক্ত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কথিত ‘প্রলয় গ্যাং’ নামের একটি গ্রুপের বিভিন্ন অসামাজিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে গঠিত আন্তঃহল তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী ১৪ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে ৪৯ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয় এ সভায়।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিস্কৃত হলো প্রলয় গ্যাংয়ের ৪ সদস্য

Update Time : ০৬:০৮:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আলোচিত প্রলয় গ্যাংয়ের চার সদস্যকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) কর্তৃপক্ষ।

সোমবার(২০ নভেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে শৃঙ্খলা পরিষদের সভায় এ বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের উপপরিচালক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রলয় গ্যাং বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও এর আশেপাশে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিল। সবশেষ গত ৮ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মীর আলভী আরসলানকে নির্যাতনের অভিযোগে গ্যাংয়ের চার সদস্যকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হলো।

পরে ৯ নভেম্বর আলভী আরসলানের মা বাদী হয়ে বহিষ্কৃত এই চারজনসহ পাঁচ শিক্ষার্থীকে আসামি করে শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেন। এ ছাড়া মামলায় অজ্ঞাতনামা ৮-১০ জনকে আসামি করা হয়।

বহিস্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন তবারক মিয়া (শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগ), মুরসালিন ফাইয়াজ (অর্গ্যানাইজেশন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড লিডারশিপ বিভাগ), ফয়সাল আহমেদ সাকিব (অর্গ্যানাইজেশন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড লিডারশিপ বিভাগ) এবং জুবায়ের ইবনে হুমায়ুন (অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগ)।

এ ঘটনায় ‘বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাদের কেন স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না’ মর্মে ৭ কার্য দিবসের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের স্বাক্ষরিত উক্ত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কথিত ‘প্রলয় গ্যাং’ নামের একটি গ্রুপের বিভিন্ন অসামাজিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে গঠিত আন্তঃহল তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী ১৪ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে ৪৯ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয় এ সভায়।