ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

  • Update Time : ০২:৩৪:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪
  • / 64

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ১০৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে । বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এ উৎসবের উদ্ধোধন করা হয়।

সোমবার (১ জুলাই) সকাল পৌনে ১০টায় উপাচার্যের বাসভবনের সামনে থেকে একটি শোভাযাত্রা নিয়ে ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) পায়রা চত্বরে যান শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এরপর সেখানে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল।

উপাচার্য বেলুন ও পাড়া উড়ানোর পর সংগীত বিভাগের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয়ের থিম সংসহ আরও দুইটি গানের পরিবেশ করা হয়। এরপর উপাচার্য বক্তব্য প্রদান করেন।

ড. মাকসুদ কামাল বলেন, আমাদের লক্ষ্য হলো এই বিশ্ববিদ্যালয়কে এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে রুপান্তর করা যা আমাদের জাতিকে একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে বিশ্বের দরবারে পরিচিত করাবে।

উদ্বোধনী বক্তব্যের পর ১০৪তম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে ১০৪ পাউন্ডের একটি কেক কাটা হয়।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, প্রো-ভিসি (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার, ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. বজলুর রশীদ, অধ্যাপক ড. মো. আতিয়ার রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মমতাজউদ্দিন আহমেদসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, হলের প্রাধ্যক্ষ, শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

Update Time : ০২:৩৪:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ১০৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে । বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এ উৎসবের উদ্ধোধন করা হয়।

সোমবার (১ জুলাই) সকাল পৌনে ১০টায় উপাচার্যের বাসভবনের সামনে থেকে একটি শোভাযাত্রা নিয়ে ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) পায়রা চত্বরে যান শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এরপর সেখানে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল।

উপাচার্য বেলুন ও পাড়া উড়ানোর পর সংগীত বিভাগের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয়ের থিম সংসহ আরও দুইটি গানের পরিবেশ করা হয়। এরপর উপাচার্য বক্তব্য প্রদান করেন।

ড. মাকসুদ কামাল বলেন, আমাদের লক্ষ্য হলো এই বিশ্ববিদ্যালয়কে এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে রুপান্তর করা যা আমাদের জাতিকে একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে বিশ্বের দরবারে পরিচিত করাবে।

উদ্বোধনী বক্তব্যের পর ১০৪তম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে ১০৪ পাউন্ডের একটি কেক কাটা হয়।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, প্রো-ভিসি (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার, ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. বজলুর রশীদ, অধ্যাপক ড. মো. আতিয়ার রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মমতাজউদ্দিন আহমেদসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, হলের প্রাধ্যক্ষ, শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা।