ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক ও সহকারী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৮:৫৯:৩৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৩০ Time View

জেলা প্রতিনিধি

ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক ও সহকারীকে আটক করা হয়েছে। গাবখান সেতুর টোলপ্লাজায় সিমেন্টবাহী একটি ট্রাক প্রাইভেট কারসহ কয়েকটি গাড়িকে চাপা দিলে এ নিহতের ঘটনা ঘটে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) বিকেলে ঝালকাঠি গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ সদরের ছত্রকান্দা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তাররা হলেন- চাপা দেয়া ট্রাকের চালক আল-আমিন (২৯) ও সহকারী নাজমুল (২২)। আল-আমিন ঝালকাঠি সদর উপজেলার বাসিন্দা। আর নাজমুলের বাড়ি খুলনায়।

ঝালকাঠি পুলিশ সুপার আফরুজুল হক টুটুল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ঝালকাঠি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, ঘাতক ট্রাক ও এর চালককে আটক করা হয়েছে।

এর আগে, বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে বরিশাল-পিরোজপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের ঝালকাঠির গাবখান সেতু এলাকায় এ দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ৮ জন নিহত হন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও ছয়জন নিহত হন। নিহতদের ১৪ জনের মধ্যে ৭ জন পুরুষ, ৪ জন নারী ও ৩ জন শিশু রয়েছে।

ঝালকাঠি সিভিল সার্জন এ এইচ এম জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থলেই ৮ জনকে নিহত দেখতে পাই এবং ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে আনার পরে আরও ৬ জন মারা যান। মোট ১৪ জন মারা গেছেন। এ ঘটনায় আরও ১৪ জন আহত হয়েছে। ১০ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ৪ জন ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।

জেলা প্রশাসক ফারহা গুল নিঝুম জানিয়েছেন, সরকারের পক্ষ থেকে নিহত পরিবারের জন্য মোট ৫ লাখ এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। এ ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক রুহুল আমীনকে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরওএমও) ডা. মেহেদী হাসান সানি জানিয়েছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক ও সহকারী আটক

Update Time : ০৮:৫৯:৩৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

জেলা প্রতিনিধি

ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক ও সহকারীকে আটক করা হয়েছে। গাবখান সেতুর টোলপ্লাজায় সিমেন্টবাহী একটি ট্রাক প্রাইভেট কারসহ কয়েকটি গাড়িকে চাপা দিলে এ নিহতের ঘটনা ঘটে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) বিকেলে ঝালকাঠি গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ সদরের ছত্রকান্দা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তাররা হলেন- চাপা দেয়া ট্রাকের চালক আল-আমিন (২৯) ও সহকারী নাজমুল (২২)। আল-আমিন ঝালকাঠি সদর উপজেলার বাসিন্দা। আর নাজমুলের বাড়ি খুলনায়।

ঝালকাঠি পুলিশ সুপার আফরুজুল হক টুটুল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ঝালকাঠি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, ঘাতক ট্রাক ও এর চালককে আটক করা হয়েছে।

এর আগে, বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে বরিশাল-পিরোজপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের ঝালকাঠির গাবখান সেতু এলাকায় এ দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ৮ জন নিহত হন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও ছয়জন নিহত হন। নিহতদের ১৪ জনের মধ্যে ৭ জন পুরুষ, ৪ জন নারী ও ৩ জন শিশু রয়েছে।

ঝালকাঠি সিভিল সার্জন এ এইচ এম জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থলেই ৮ জনকে নিহত দেখতে পাই এবং ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে আনার পরে আরও ৬ জন মারা যান। মোট ১৪ জন মারা গেছেন। এ ঘটনায় আরও ১৪ জন আহত হয়েছে। ১০ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ৪ জন ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।

জেলা প্রশাসক ফারহা গুল নিঝুম জানিয়েছেন, সরকারের পক্ষ থেকে নিহত পরিবারের জন্য মোট ৫ লাখ এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। এ ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক রুহুল আমীনকে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরওএমও) ডা. মেহেদী হাসান সানি জানিয়েছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।